প্রশ্নপত্র ফাঁস করে শিক্ষক নিয়োগের অভিযোগ

চট্টগ্রম অফিস প্রকাশ:| বুধবার, ১৩ সেপ্টেম্বর , ২০১৭ সময় ০৯:৩৬ অপরাহ্ণ

শংকর চৌধুরী,খাগড়াছড়ি: খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের অধীনস্থ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগে প্রশ্নপত্র ফাঁস করে গত ২৫ আগস্ট অনুষ্টিত লিখিত পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ করেছে ছাত্র সমাজ ও সংবাদ সম্মেলন করেছে সুষম উন্নয়ন ও দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি। বুধবার বেলা সাড়ে ১০টায় খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা পরিষদের সামনে থেকে সম্মিলিত ছাত্র সমাজের ব্যানারে মিছিল বের করে বিক্ষোভকারীরা শাপলা চত্ত্বর অভিমুখে যেতে চাইলে কলেজ গেইট এলাকায় পুলিশ বাধা দেয়। পরবর্তীতে মিছিল করে জেলা পরিষদ কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে স্বর্ণিভর বাজারে বিক্ষোভ সমাবেশ করে বিক্ষোভকারীরা ।

সম্মিলিত ছাত্র সমাজের আহ্বায়ক নয়ন চাকমার সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, ত্রিপুরা ইয়ং স্টুডেন্টস ফোরাম (টিওয়াইএসএফ’র) সদর উপজেলা শাখার সভাপতি টিটো ত্রিপুরা, ইউপিডিএফ সমর্থিত পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ শাখার সাধারণ সম্পাদক জেসিন চাকমা ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট পৌর শাখার সদস্য হিরো চাকমা প্রমুখ। এসময় বক্তারা, শিক্ষার মূল ভিত্তি প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে জেলা পরিষদের লাগামহীন দুর্নীতি রুখে দিতে সর্বস্তরের জনগণের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এছাড়াও প্রশ্নপত্র ফাঁস করে গত ২৫ আগস্ট অনুষ্ঠিত লিখিত পরীক্ষা অবিলম্বে বাতিল করে নতুন প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেয়ার দাবী জানান।

অপর দিকে, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্যদের বিরুদ্ধে শিক্ষক নিয়োগসহ বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণে ব্যাপক অনিয়ম-দূর্নীতির অভিযোগ এনে সদর উপজেলা পরিষদের মিলনাতয়নে সংবাদ সম্মেলন করেছে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা সুষম উন্নয়ন দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি। সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্নপত্র ফাঁস করে গত ২৫ আগস্ট অনুষ্টিত লিখিত পরীক্ষা বৃহস্পতিবার ১৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বাতিল করা না হলে আগামী রবিবার ১৭ সেপ্টেম্বর খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ ঘেরাও করে কঠোর কর্মসূচী দেওয়া হবে বলে ঘোষনা দেয়।

এসময়, পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্যদের বিরুদ্ধে শিক্ষক নিয়োগসহ বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণে অনিয়ম-দূর্নীতি বন্ধের দাবী জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, নবগঠিত সুষম উন্নয়ন ও দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির আহবায়ক ও সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান চঞ্চুমনি চাকমা, সদস্য সচিব ও খাগড়াছড়ি পৌর সভার মেয়র মো. রফিকুল আলম, পানছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সর্বোত্তম চাকমা ও রামগড় পৌর সভার মেয়র কাজী শাহাজাহান রিপন প্রমূখ।

প্রসঙ্গত, গত ২৫ আগস্ট জেলার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শুন্য ও নবসৃষ্ট পদের অনুকূলে ৩৫৮ জন শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার লক্ষে লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।


আরোও সংবাদ