পটিয়া পৌর কাউন্সিলরের বঙ্গবন্ধুর ছবি অবমাননা

চট্টগ্রম অফিস প্রকাশ:| সোমবার, ১৭ জুলাই , ২০১৭ সময় ০৫:৩৩ অপরাহ্ণ

পটিয়া প্রতিনিধি॥
পটিয়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল খালেকের বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি অবমাননার অভিযোগ ওঠেছে। বঙ্গবন্ধুর ছবি ডেকে দিয়ে কাউন্সিলরের ছবি ও আপত্তিকর মন্তব্য লিখে ফেইসবুকে পোস্ট করলে তা এলাকার তৃণমূল আ’লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। সোমবার দুপুরে পৌরসভার আল্লাই কাগজী পাড়া এলাকায় নেতাকর্মীরা এ ব্যাপারে বিক্ষোভ করেছে।
জানা গেছে, পটিয়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবদুল খালেক সম্প্রতি জাপা থেকে আ’লীগে যোগ দেন। গত রবিবার দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের কর্মী সভায় দলীয়ভাবে প্রাক্তন জাপা নেতা আবদুল খালেককে প্রতিনিধি সম্মেলনের কার্ড প্রদান করেন। ওই কার্ডে পদবী লেখা হয়েছে আবদুল খালেক ১নং ওযার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি। অথচ ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি হলেন মাষ্টার খাইরুল বশর এবং সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন। আবদুল খালেক তার নিজ ফেইসবুক আইডি থেকে প্রতিনিধি সম্মেলনের কার্ডটি পোষ্ট করেন। এতে তিনি লিখেছেন ‘জাতীয় পার্টি থেকে আওয়ামী লীগে যোগ দেওয়ার ১৫ দিনের মধ্যেই আওয়ামী লীগের সভাপতির পদ টাকা দিয়ে কিনে ফেলেছি। যেহেতু টাকা দিয়ে এই পদ কিনেছি সেহেতু এই ব্যাপারে আর কেউ কিছু বললে মুখ সেলাই করে দেব’। এছাড়া বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি (ছবি) ডেকে দিয়ে কাউন্সিলর আবদুল খালেকের ছবি লাগিয়ে ফেইসবুকে পোষ্ট করলে তৃণমূল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ক্ষোভে ফুঁসে ওঠেন।
পটিয়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন বলেন, জাতীয় পার্টি ছেড়ে আওয়ামী লীগে যোগদানকারী বির্তকিত কাউন্সিলর আবদুল খালেক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে শুধু অবমাননা করেনি, আপত্তিকর ও দম্ভোক্তি লিখে আ’লীগ নেতাকর্মীদের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছে। বিষয়টি দলের শীর্ষ নেতাদের অবগত করা হয়েছে এবং নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। দলীয় সিদ্ধান্তের পর কাউন্সিলের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাসহ আদালতে মামলা করা হবে।
এ বিষয়ে কাউন্সিলর আবদুল খালেক জানান, আমার নামে ভুয়া ফেইজবুক আইডি খুলে কে বা কারা এসব আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। আমি থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি।’


আরোও সংবাদ