শিরোনাম
You are here: প্রচ্ছদ / খাগড়াছড়ি

বিভাগ: খাগড়াছড়ি

Feed Subscription

বিদেশী শক্তি সরেছে দ্রুত পতন ঘটবে আ’লীগ সরকারের

খাগড়াছড়িতে বিএনপি’র নতুন সদস্য ও নবায়ন কার্যক্রমের উদ্বোধনিতে ওয়াদুদ ভুইয়া

শংকর চৌধুরী,খাগড়াছড়ি॥
খাগড়াছড়িতে উৎসবমুখর পরিবেশে শুরু হয়েছে জেলা বিএনপি’র নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম। সোমবার ২৪জুলাই সকাল সারে ১১টায় খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপি’র দলীয় কার্যালয়ে নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জেলা বিএনপি’র সভাপতি এবং সাবেক সংসদ সদস্য ওয়াদুদ ভূইয়া।

এসময় জেলা বিএনপি’র জ্যেষ্ঠ সহ সভাপতি প্রবীণ চন্দ্র চাকমা, আবু ইউসুফ চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম ভূইয়া ফরহাদ, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম সবুজ, জেলা ছাত্র দলের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল সহ জেলা বিএনপি, অঙ্গসংগঠন ও উপজেলা, ইউনিয়ন শাখার নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওয়াদুদ ভূইয়া বলেন, বর্তমান আওয়ামী অবৈধ সরকার বিদেশী শক্তি হারাচ্ছে। এতে সরকার বেসামাল হয়ে উঠেছে। এতে করে ধ্র“ত সরকারের পতন ঘটবে। দেশ বিরোধী সকল ষড়যন্ত্রের জবাব দিতে আপামর জনতাকে ভোটের ব্যালেটে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।
আলোচনা সভা শেষে নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রমের উদ্বোধন করে নিজের সদস্যপদ নবায়ন করেন জেলা বিএনপি’র সভাপতি এবং সাবেক সংসদ সদস্য ওয়াদুদ ভূইয়া। এরপর ১৮ টি বুথে একযুগে চালু করা হয় নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম।

জেলা বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত দফতর সম্পাদক আবু তালেব জানান, পুরাতন সদস্যদের নবায়নের পাশাপাশি খাগড়াছড়ি পুরো জেলায় নতুন ১,০১,১০০ জন নতুন সদস্য সংগ্রহের লক্ষ্যে কাজ করছে তারা। আগামী দু’মাস জেলার প্রতিটি উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড ইউনিটে নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম চলবে। বিএনপিতে যোগদান: এসময় খাগড়াছড়ির মহালছড়ি উপজেলার মাইসছড়ি ইউনিয়নের ইউপি সদস্য নিহার কান্তি চাকমা ও ওয়ার্শিটন চাকমার নেতৃত্বে শতাধিক নারী পুরুষ খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপি’র সভাপতি ওয়াদুদ ভূইয়ার হাতে ফুলের তোঁড়া দিয়ে বিএনপিতে যোগদান করেন।

খাগড়াছড়ি পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অর্ধদিবস কর্মবিরতি

শংকর চৌধুরী,খাগড়াছড়ি:
রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা ও পেনশনসহ সকল প্রকার সরকারি সুযোগ-সুবিধা প্রদানের দাবিতে অর্ধদিবস কর্মবিরতি কর্মসূচি পালন করেছে খাগড়াছড়ি পৌরসভার কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সোমবার ২৪জুলাই সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত বাংলাদেশ পৌর কর্মকর্তা কর্মচারী এসোসিয়েশনের উদ্যোগে খাগড়াছড়ি পৌরসভার গেইটের সামনে এ কর্মসূচি পালন করে। এ সময় বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি জেলা কমিটির সভাপতি জামাল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক অংকমং মারমা, খাগড়াছড়ি পৌরসভার সচিব পারভীন আকতার, হিসাবরক্ষক খোন্দকার সাহেদ আবেদিন, নকশাকার এসএম নাজিম উদ্দিন দপ্তর সম্পাদক উজ্জ্বল দে ও প্রভাত তালুকদার প্রমুখ।

খাগড়াছড়িতে ৫২৯ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপণ

শংকর চৌধুরী,খাগড়াছড়ি:
সবুজ শ্যামলে ভরবে দেশ পাহাড় ধস বন্দে সবুজ বনায়ন গড়ে তোলার অহবানে। জাতীয় বৃক্ষরোপণ অভিযান সপ্তাহ উপলক্ষে রবিবার ২৩জুলাই খাগড়াছড়ি জেলার সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একযোগে করা হয়েছে বৃক্ষরোপণ ।

খাগড়াছড়ি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ফাতেমা মেহের ইয়াছমিন জানান, জেলার ৫২৯ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বৃৃক্ষরোপণ করা হয়েছে।

বৃক্ষরোপণ অভিযানে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে নিজ নিজ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা । এসময় রোপণ করা হয় বিভিন্ন রকম ফলজ, বনজ ও ঔষধি গাছের চারা ।

ত্রিপুরা ল্যাণ্ড দাবির সমর্থনে সংহতি সমাবেশ

শংকর চৌধুরী,খাগড়ছড়ি:
ভারতের উত্তর পূর্বের ত্রিপুরা রাজ্যকে পৃথক “ত্রিপুরা ল্যাণ্ড” ঘোষণার দাবিতে চলা আন্দোলনের সমর্থন জানিয়ে খাগড়াণছড়িতে বাংলাদেশ ত্রিপুরাসা ব্যানারে বৃহস্পতিবার ২০জুলাই বেলা ১১টার সময় খাগড়াছড়ি প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও সংহতি সমাবেশ করেছে ত্রিপুরা জাতিগোষ্ঠী।

ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচিতে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যকে পৃথক ত্রিপুরা ল্যাণ্ড ঘোষণার দাবিতে গত ১০ জুলাই থেকে ইন্ডিজেনাস পিপলস ফ্রন্ট অব তুইপ্রাল্যাণ্ড (আইপিএফটি) এনসি দেব বর্মা গোষ্ঠীর আন্দোলন কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করা হয় সমাবেশ থেকে। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি জেলা জজ কোর্টের আইনজীবী শুভ্র দেব ত্রিপুরা, পানছড়ি ত্রিপুরা সমাজের প্রতিনিধি মণীন্দ্র ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী নয়ন ত্রিপুরা, তনয় ত্রিপুরা ও মাটিরাঙা ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী মিঠু ত্রিপুরা প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, ভারত সরকার ত্রিপুরাদের ঐতিহ্য, ভাষা, সংস্কৃতি ধ্বংসের চেষ্টা করছে। অবিভক্ত বাংলায় ত্রিপুরা জাতি গোষ্ঠীর ১৮৪ জন রাজা শাসন করেছেন। ইতিহাসে ত্রিপুরা জাতিগোষ্ঠী ঐতিহ্য গৌরবময়। সে জাতিগোষ্ঠী আজ বিলুপ্তির পথে। তায় এই জাতিগোষ্ঠীর অস্তিত্ব রক্ষায় পৃথক ত্রিপুরা ল্যাণ্ড রাজ্যের দাবি সময়োপযোগী দাবি করে বাংলাদেশের ত্রিপুরারা এতে সংহতি প্রকাশ করেছে বলে জানান বক্তারা। মানববন্ধনে জেলা সদর, মাটিরাঙা, পানছড়ি ও দীঘিনালা উপজেলায় বসবাসকারী ত্রিপুরা জাতিগোষ্ঠীরা অংশগ্রহণ করেন।

খাগড়াছড়িতে ট্রাক-থ্রি হুইলার সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ৩

শংকর চৌধুরী,খাগড়াছড়ি:
খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা সড়কের চার মাইল এলাকায় সোমবার ১৭জুলাই সকাল দশটার দিকে থ্রি হুইলার-মিনি ট্টাক মুখোমুখী সংঘর্ষে অন্তরা চাকমা গৌরিকা (৩৮) নামে এক মহিলার মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। নিহতের বাড়ী জেলার দীঘিনালা উপজেলার তারাবুনিয়া গ্রামে বলে নিশ্চিত করেছে লাশ সনাক্ত করতে আসা নিহতের স্বামী সুরেজ চাকমা।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ওসি (তদন্ত) মো. শাহ নুর জানান,সকালে দীঘিনালা উপজেলা থেকে থ্রি হুইলারটি জেলা সদরে আসার পথে বিপরিত দিক থেকে আসা ট্রাকের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে ঘটনা স্থলে থ্রি হুইলারে থাকা যাত্রী অন্তরা চাকমা ঘটনাস্থলে প্রাঁন হারায়। পালিয়ে যাওয়ার সময় দীঘিনালা সড়কের নয় মাইল এলাকা থেকে ট্রাক চালক আবু তাহেরকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় থ্রি হুইলার চাল ও ট্রাকের হেলাপার পলাতক রয়েছে বলেও জানান ওসি।

দুর্ঘটনার পর পর পুলিশ, সেনাবাহিনী, ফায়ার সার্ভিস ঘটনা স্থলে পৌছে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে। জ্যোৎস্না চাকমা, সুমিতা চাকমাসহ আহতদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

কারাগারের চাউল খোলাবাজারে বিক্রিকালে আটক ২

শংকর চৌধুরী,খাগড়াছড়ি:
খাগড়াছড়ি জেলা কারাগারের বরাদ্ধকৃত চাউল অবৈধ ভাবে খোলা বাজারে বিক্রির সময় দু’জনকে আটক করেছে পুলিশ। কারাগার থেকে বিক্রির জন্য নিয়ে আসা ৮ বস্তা চাউল শনিবার ১৫জুলাই সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে জেলার শাপলা চত্ত্বর এলাকা থেকে জব্দ করা হয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কারারক্ষীদের সহযোগিতায় শাপলা চত্ত্বর মুক্তমঞ্চ এলাকা থেকে চাউলের একটি গোডাউন থেকে কারাগারের বরাদ্ধকৃত ৪০০ কেজি চাউলসহ গোডাউন এর মালিক মোঃ শাহজাহান ও বিক্রেতা মোঃ আবুল বশরকে অবৈধ ভাবে চাউল বেচাবেনার দায়ে আটক করা হয়েছে।

কারাগারের জেলার মাহবুব কবির দীর্ঘ দিন ধরে কারাগারের চাউল ও ডাল বাহিরে খোলা বাজারে বিক্রি করে আসছে বলে অভিযোগের ভিত্তিতে আজ তাদের ফাঁদ পেতে চাউলসহ আটক করা হয়। এ ঘটনায় সরকারী চাউল অবৈধ ভাবে বিক্রির অভিযোগে জেলার মাহবুব কবীর ও কারাগারের গুদাম সহকারী প্রীতি কুমার চাকমার বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা করা হবে বলে জানান খাগড়াছড়ি জেলা কারাগারের জেল সুপার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুনতাসীর হাসান।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক ২ কারারক্ষী জানান, শনিবার সকালে জেলারের নির্দেশে গুদাম সহকারী প্রীতি কুমার চাকমা গুদামের তালা খুলে দেয়। এসময় দুটি অটো ও একটি ভ্যান গাড়ী কারাগারে আসে। সে গাড়ীতেই এসব চাউল বিক্রয়ের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়।

অভিযুক্ত গোডাউন মালিক,চাউল ব্যবসায়ী শাহজাহান জানান, কেজি ৩২ টাকায় কম মূল্যে পাওয়ায় তা ক্রয় করেছে সে। তবে খাগড়াছড়ি কারাগারের জেলার মাহবুব কবির তার বিরুদ্ধে অবৈধ ভাবে চাউল বিক্রির অভিযোগ অস্বীকার করেন।

 

পার্বত্যাঞ্চলের শান্তি প্রতিষ্টায় চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়ন করবে আ’লীগ সরকার

শংকর চৌধুরী,খাগড়াছড়ি: পার্বত্যাঞ্চলের শান্তি প্রতিষ্টায় চুক্তির র্পূণ বাস্তবায়ন আওয়ামীলীগ সরকার করবে জানিয়ে খাগড়াছড়ি ২৯৮নং সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেছেন, পাহাড়ের মানুষের শান্তির জন্য ১৯৯৭ সালে বর্তমান সরকার চুক্তি করেছে আর তার বাস্তবায়নও এ সরকার করবে। পাহাড়ের মানুষ শান্তি চায় উল্লখ করে বলেন, আওয়ামীলীগ জঙ্গিবাদ,সন্ত্রাসবাদে বিশ্বাস করে না। শনিবার সকাল ১১টায় খাগড়াছড়ির ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনিস্টিটিউট মিলনায়তনে পার্বত্য জেলা পরিষদের উদ্যোগে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে ফলদ চারা বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় তিনি আরো বলেন, ফলদ বাগান করেও উন্নয়নের চাকা স্বচল করা সম্ভব। তার জন্য সকলকে সচেতন হতে হবে। আজকের একটি চারা পাহাড়ধসসহ প্রাকৃতিক দূর্যোগ প্রতিরোধে করবে। এই স্বাধীন দেশ পেতে যুদ্ধের নেতৃত্বসহ শেখ মুজিবুর রহমানের নানা অবদানের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু খেঠে খাওয়া মানুষের পাশে থেকে কাজ করে গেছেন। তার জন্যই বাংলাদেশ নামের দেশটি এখন সারা বিশ্ববাসীর কাছে পরিচয় লাভ করেছে।

বর্তমানে মুজিব কন্যা শেখ হাসিনা এ দেশের রোল মডেল বলে তিনি মন্তব্য করেন। তিনি সময় সময় কৃষক বাঁচলে দেশ বাঁচবে উল্লেখ করে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আবারো নৌকায় ভোট দেওয়ার আহবান জানান। অনুষ্ঠানে খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ সদস্য ও কৃষি কমিটির আহ্বায়ক এড.আশুতোষ চাকমার সভাপতিত্বে প্রায় তিনশ প্রান্তিক কৃষকদের মধ্যে ৩০টি ফলজ ও ১০টি তেঁজপাতা চারা বিতরণ করা হয়।

২ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলায় বাসচাপায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছে আরও দুইজন। মঙ্গলবার ভোর ৪টার মানিকছড়ি থানার আমতল এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

 

নিহতরা হলো- মহিদুল ইসলাম (৩৩) ও মো. আরিফ (২৫)। তাদের বাড়ি গুইমারা উপজেলার জালিয়াপাড়া এলাকায়। আহতরা হলেন- জামাল উদ্দিন (২৯) ও মিল্টন খান। জামাল উদ্দিনকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, খাগড়াছড়ির রামগড় উপজেলার তৈচালা এলাকা থেকে মঙ্গলবার রাতে সংঘবদ্ধ গরু চোরের এক দল চারটি গরু বাসে করে নিয়ে পালাচ্ছিল। খবর পেয়ে গুইমারা উপজেলা থেকে তাদের ধাওয়া করা হয়। মানিকছড়ি আমতল এলাকায় বাসটির গতিরোধের চেষ্টা করা হলে তাদের চাপা দিয়ে পালিয়ে যায় মিনি বাসটি।

 

বিষয়টি নিশ্চিত করে মানিকছড়ি থানার ওসি মাঈন উদ্দিন খান জানান, সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ দুটি খাগড়াছড়ি আধুনিক জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সব গিলে খাচ্ছে চেঙ্গী নদী

খাগড়াছড়ি  প্রতিনিধি: পানছড়ি উপজেলার দক্ষিণ শান্তিপুর এলাকার রাবার ড্যামের পশ্চিম পাশে তারক সেন মহাজন পাড়ার বড় একটি অংশ চেঙ্গী নদীর প্রবল স্রোতে বিলীন হয়ে গেছে।

যে কোনো মুহূর্তে বিলীন হবার প্রহর গুনছে কল্যাণমিত্র চাকমার বসতভিটাসহ আশপাশের বাড়িগুলো। তার বসতঘরের মাঝামাঝিতে দেখা দিয়েছে বড় ধরনের ফাটল। বৈদ্যুতিক ৪টি খুঁটি রয়েছে ঝুলন্ত অবস’ায়। উল্টাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান বিজয় চাকমা ও পানছড়ি সাবজোন ইতিমধ্যে কল্যাণমিত্রকে অন্যত্র সরে যেতে পরামর্শ প্রদান করেছে।
সরেজমিনে রাবার ড্যাম এলাকায় গিয়ে দেখা যায় বিশালাকার ভাঙনের চিত্র। এই ভাঙনের মুখে রয়েছে কল্যাণমিত্র চাকমার বসতঘর। তিনি অন্যত্র পাড়ি জমানোর উদ্দেশ্যে ঘরের জিনিস পত্রাদি বাক্সবন্দি করছেন। গত সপ্তাহে তার গোয়াল ঘরটি চেঙ্গী নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। স’ানীয় বিজয় চাকমা, মৃণাল কান্তি চাকমা, প্রতিরঞ্জন চাকমা, সত্যব্রত চাকমা জানান, রাবার ড্যামটি নির্মাণের সময় নকশা জটিলতা ছিল বলেই গ্রামটি আজ বিলীনের পথে। এই গ্রামে শতাধিক পরিবারের বসবাস ছিল। ভাঙনের ভয়ে বর্তমানে ২০ পরিবারও নেই। ড্যাম নির্মাণকালে নদীর দুই পাশে পাথরের ব্লক বসানো হয়েছে অতি সামান্য। যদি ৫০-১০০ গজ পর্যন্ত ব্লক বসানো হতো তাহলে নদীর গতিপথ সঠিকভাবে প্রবাহিত হতো। কিছুদিন পর কয়েক কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত রাবার ডা্যামটি ভাঙনের হাত থেকে রক্ষা পাবে কিনা, সকলের সন্দেহ।
এলাকাবাসী জানায়, বিষয়টি পানি উন্নয়ন বোর্ডকে জানানো হলেও বোর্ডের কোনো কর্মকর্তা ঘটনাস’লে আসেননি।
বিদ্যুৎ বিভাগের আবাসিক প্রকৌশলী আলাউদ্দিন সোহাগ জানান, বৈদ্যুতিক খুঁটিগুলো অন্যত্র স’ানান্তরের কাজ শুরু হয়েছে। দু’একদিনের মধ্যেই তা শেষ হবে।

পার্বত্য মানুষের জীবনমান উন্নয়নে আড়াইশ’ কোটি টাকার প্রকল্প

পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে ভূমি, সম্পদ ও জীবন-জীবিকা ব্যবস্থাপনা শক্তিশালীকরণের লক্ষ্যে ২শ’ ৫০ কোটি টাকার একটি প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল রোববার ঢাকায় হোটেল সোনারগাঁওয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈ সিং প্রধান অতিথি হিসেবে ‘স্ট্রেনদেনিং ইনক্লুসিভ ডেভেলপমেন্ট ইন চিটাগাং হিলট্রাক’ শীর্ষক প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। মন্ত্রণালয়ের সচিব নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসজিডি-বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, ইউএনডিপি বাংলাদেশ এর কান্ট্রি ডাইরেক্টর সুদীপ্ত মুখার্জী, ইউএসআইডি বাংলাদেশ এর মিশন ডাইরেক্টর জেনিনা জারুজেল্কি, বাংলাদেশে নিযুক্ত ডেনমার্কের ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রদূত ও ড্যানিডা বাংলাদেশ এর হেড অব কো-অপারেশন পিটার বোগ জেনসেন। খবর বাসসের। অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় ১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর ঐতিহাসিক পার্বত্য শান্তি চুক্তি স্বাক্ষরের পর উন্নয়নের অগ্রযাত্রা সূচিত হয়। তারই ধারাবাহিকতায় সরকার ও বিভিন্ন সহযোগী সংস্থা এ অঞ্চলের টেকসই উন্নয়নে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছে। তিনি নতুন এ প্রকল্প বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্টদের সততা, নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে কাজ করার আহ্বান জানান।

Scroll To Top