‘নিখোঁজদের তালিকা প্রকাশ করবে হেফাজত’

প্রকাশ:| বুধবার, ২৪ জুলাই , ২০১৩ সময় ১০:৩৪ অপরাহ্ণ

মতিঝিল শাপলা চত্বরে নিখোঁজ ব্যক্তিদের তালিকা প্রকাশ করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন হেফাজতের ইসলামের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদী।
বুধবার সন্ধ্যায় সংগঠনটির চট্টগ্রাম মহানগরীর উদ্যোগে লালখান বাজার এলাকার জামিয়াতুল উলূম আল-ইসলামিয়া মাদ্রাসা hafajot ifterপ্রাঙ্গনে ইফতার পূর্ব আলোচনা সভায় হেফাজতে ইসলামের নেতারা বলেছে আল্লামা আহমদ শফিকে অসম্মান করে ফের ক্ষমতায় ।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হেফাজতের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন,‘আল্লামা শফী সাহেবকে অসম্মান করার জন্য সরকার মহিলাদের রাস্তায় নামাচ্ছে।’

তিনি বলেন,‘কোন অপরাধ করিনি, কারও পক্ষে বিপক্ষেও কথা বলিনি। তবু মিথ্যা মামলা দিয়ে ৩১ দিন রিমান্ডে নির্যাতন করা হয়েছে। ক্ষমতা দখলের জন্য নয়, নবী বিরোধীদের বিরুদ্ধে আমাদের এ আন্দোলন।’

‘নাস্তিক’দের বিরুদ্ধে এ আন্দোলন চলবে উল্লেখ করে তিনি বলেন,‘‘দেশের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কথা বললে গালি দিলে ৭ বছরের জেল হয়। কিন্তু বিশ্বনবীর বিরুদ্ধাচরণ করে বেয়াদবি করলে ‘নাস্তিক’দের জামিন হয়।”

কিন্তু নাস্তিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা ও সংবিধানে ‘আল্লার ওপর আস্থা ও বিশ্বাস’ ফিরিয়ে না আনা পর্যন্ত এদেশের তাওহীদি জনতার জিহাদ চলবে বলে ঘোষণা দেন তিনি।

যুদ্ধাপরাধীদের প্রসঙ্গ টেনে হেফাজতের এই নেতা বলেন,’৪০ বছর আগের যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করলে হবে না। এরআগে গত ৫ মে শাপলা চত্ত্বরের বর্বরতার বিচার করতে হবে।’

শাপলা চত্ত্বরে নিহতদের শহীদ আখ্যা দিয়ে হেফাজত মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন,‘শহীদ ভাইয়েদর রক্ত বৃথা যেতে দেবো না।’

হেফাজত নেতা মুফতি ইজহারুল ইসলাম বলেন,‘হেফাজতের আমির আল্লামা আহমেদ শফীর বিরুদ্ধে নিলর্জ্জ মিথ্যাচার করে ফের ক্ষমতায় থাকা যাবে না। ফের ক্ষমতায় আসতে চাইলে হেফাজতের ১৩ দফা বাস্তবায়ন ও আল্লামা শফীর সঙ্গে বেয়াদবি বন্ধ করতে হবে।’

হেফাজতের সিনিয়র মহাসচিব আল্লামা মহিবুল্লাহ বাবুনগরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় সংগঠনটির নেতা আল্লামা আবদুল মালেক হালিম, মাওলানা আহমেদ উল্লাহ, নগর বিএনপির সহ সভাপতি আবু সুফিয়ান, বিএনপি নেতা এমএ হাশেম রাজু, এসএম ফজলুল হক, যুদ্ধাপরাধে অভিযুক্ত সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ছেলে হুম্মাম কাদের চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।