জলাবদ্ধতা নিরসনে খাল-নালার জায়গা পুনরুদ্ধারের সিদ্ধান্ত

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| রবিবার, ৫ আগস্ট , ২০১৮ সময় ১০:১৮ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশের দ্বিতীয় রাজধানীখ্যাত দেশের বৃহত্তম নগর চট্টগ্রামের দুঃখ খ্যাত জলাবদ্ধতা নিরসনে খাল ও নালাগুলো পরিষ্কারের পাশাপাশি বিএস-আরএস সীমানা নির্ধারণ করে অবৈধ দখলদারদের কাছ থেকে পুনরুদ্ধারের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

রোববার (০৫ আগস্ট) চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (চউক) ‘চট্টগ্রাম শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনকল্পে খাল পুনঃখনন, সম্প্রসারণ, সংস্কার ও উন্নয়ন’ প্রকল্পের চলমান কার্যক্রম নিয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সর্বোচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তা ও চউকের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।

নগরের দামপাড়ায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৩৪ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন বিগ্রেড সদর দপ্তরে এ বৈঠক হয়। সভায় চট্টগ্রাম শহরের জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্পের আওতায় গৃহীত বিভিন্ন কার্যক্রম পর্যালোচনা করা হয়।

পরামর্শক প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত নকশা অনুযায়ী খালগুলোর পাড়ে প্রতিরোধ দেয়াল এবং রাস্তা নির্মাসহ ডিপিপিতে উল্লেখিত কাজগুলো বর্ষা মৌসুমের পর শুরু হবে বলে জানানো হয়।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ার-ইন-চিফ সিদ্দিকুর রহমান সরকারের সভাপতিত্বে সভায় চউক চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম, ৩৪ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন বিগ্রেডের মহাপরিচালক রেজাউল মজিদসহ চউক, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৩৪ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন বিগ্রেড এবং পরামর্শক প্রতিষ্ঠান সিইজিআইএস’র প্রকল্প সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভা শেষে তারা চলমান কার্যক্রম পরিদর্শনে বহদ্দারহাট, শমসের পাড়া এবং হাজিরপুল এলাকায় যান।

এ সময় চউক চেয়ারম্যান বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে কার্যক্রম পরিচালনা করছে, তাই উক্ত প্রকল্পের সফলতা অবধারিত। পরিপূর্ণভাবে সব খাল বা নালা পরিষ্কার করা হবে।

তিনি বলেন, নগরবাসীর জলাবদ্ধতা নিরসনের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মেগা প্রকল্পের অনুমোদন দেন। ইতিমধ্যে প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। সেনাবাহিনীর মাধ্যমে প্রকল্পের কাজ সুষ্ঠুভাবে এগিয়ে নেওয়া হচ্ছে। আগামী দুই বছরের মধ্যে চট্টগ্রামবাসী দৃশ্যমান অগ্রগতি দেখতে পাবেন।