জনমত তৈরিতে সাংবাদিকদের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ

প্রকাশ:| শনিবার, ১৯ আগস্ট , ২০১৭ সময় ০১:২০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :: চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন আমি মনে করি জনমত তৈরিতে সাংবাদিকদের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনারা এগিয়ে এলে আমাদের দায়িত্ব পালনে সহযোগিতা হয়।।

শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব আয়োজিত ‘নান্দনিক চট্টগ্রামে নন্দিত নাগরিক’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় সিনিয়র সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মেয়র এ মন্তব্য করেন।

জালাবদ্ধতা দ্রুত নিরসনের লক্ষ্যে সরকারি তহবিলে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্রস্তাবিত মেগা প্রকল্পটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। চট্টগ্রামের জনপ্রতিনিধি হিসেবে জলাবদ্ধতার স্থায়ী সমাধানের জন্য পাওয়ার চায়নাকে দিয়ে ফিজিবিলিটি স্ট্যাডি করিয়ে প্রকল্প নিয়েছিলেন উল্লেখ করে মেয়র বলেন, আমি মেয়রের দায়িত্ব নেওয়ার পর দু’ভাবে চেষ্টা করেছিলাম। যেহেতু পানির সমস্যা তাই পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীকে নিয়ে বাকলিয়া পরিদর্শন করেছি। পাম্প হাউসসহ স্লুইসগেট, বেড়িবাঁধ, রিটেইনিং ওয়াল নির্মাণের প্রকল্প নিতে অনুরোধ করি। পাওয়ার চায়না এ বিষয়ে ১০মাস ফিজিবিলিটি স্ট্যাডি করেছিল। তারা সরকার টু সরকার (জিটুজি) পদ্ধতিতে প্রকল্পটি বাস্তবায়নে আগ্রহীও ছিল। পাহাড়ি ঢল ও কাপ্তাই হৃদের পানি ছাড়াতে জলাবদ্ধতা ভয়াবহ রুপ ধারন করেছিল। খুব বেশি লেখালেখি হলো। একধরনের চাপ সৃষ্টি হলো সরকারের ওপর। তাই বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রামবাসীকে জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি দিতে সরকারি তহবিলে মেগা প্রকল্পটি অনুমোদন দিয়েছেন।

তিনি বলেন, সিটি করপোরেশন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অধীনে। সিডিএ গণপূর্ত মন্ত্রলালয়ের অধীনে। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে এমন নজির নেই। ইদানিং ৫০০ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন দিচ্ছে। বিষয়টি মানুষকে উপলব্ধি করতে হবে।

মেয়র বলেন, খুব সহজে অনেক কিছু বলে ফেলা যায়। আমাদের জনগণের কাছে যেতে হবে। আমাদের দায়বদ্ধতা আছে। কিন্তু যার দায়বদ্ধতা নেই তিনি দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। আমাদের সময় নিতে হয়। চিন্তাভাবনা করতে হয়।

মেয়র বলেন, এটি আমাদের শহর । এ শহরকে ঢেলে সাজানোর জন্য যে ধরনের সহায়তা দরকার আমাদের করতে হবে। আমাদের মধ্যে চিন্তার ভিন্নতা থাকাটা স্বাভাবিক। সম্প্রদায়গত, পলিটিক্যাল আইডেনডিটি ও পছন্দের ক্ষেত্রে ভিন্নতা থাকতে পারে।

তিনি বলেন, নগরীতে একটি নতুন সড়ক নির্মাণ করতে হলেও সিডিএ অগ্রাধিকার পাবে। কিন্তু নির্মাণকাজ শেষে সিটি করপোরেশনকে বুঝিয়ে দিতে হবে। জলাবদ্ধতা নিরসনের মেগা প্রকল্পও সিটি করপোরেশনকে বুঝিয়ে দিতে হবে।

আজ শুক্রবার (১৮ আগস্ট) বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব আয়োজিত ‘নান্দনিক চট্টগ্রামের নন্দিত নাগরিক’ হিসেবে সাংবাদিকদের সাথে সিটি মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন মতবিনিময় কালে উপস্থিত ছিলেন
প্রেসক্লাবের পিএইচপি ভিআইপি লাউঞ্জে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন ক্লাবের সভাপতি কলিম সরওয়ার। মতবিনিময় সভায় চট্টগ্রামের সিনিয়র সাংবাদিকবৃন্দ।