গভীর সমুদ্র বন্দর কর্মশালায় অংশ নিতে থাইল্যান্ড যাচ্ছে প্রতিনিধি দল

প্রকাশ:| বুধবার, ৩ মে , ২০১৭ সময় ১০:৪৩ অপরাহ্ণ

মহেশখালীর মাতারবাড়িতে ১৮ মিটার ড্রাফট ও কমপক্ষে ২২০ মিটার দৈর্ঘ্যের ৮০ হাজার মেট্রিকটন ওজনের বেশি জাহাজ ভেড়ানোর বন্দর হচ্ছে। জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি (জাইকা) ও বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে নির্মাণ হতে যাওয়া মাতারবাড়ি গভীর সমুদ্র বন্দর বিষয়ে জ্ঞান অর্জন (কর্মশালায়) করতে থাইল্যান্ডে যাচ্ছে বিভিন্ন সংস’ার ১৩ সদস্যের একটি টিম। বর্তমানে ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে জাহাজ কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের ভেতরে জাহাজ প্রবেশের জন্য চ্যানেল তৈরির কাজ চলছে।
চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, কক্সবাজার জেলা প্রশাসন, বাংলাদেশ ইকোনমিক জোন অথরিটি (বেজা), বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ, প্ল্যানিং কমিশন, নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন সংস’া থেকে ১৩ জন প্রতিনিধি যাচ্ছে এই সফরে। আজ বৃহস্পতিবার তারা ঢাকা থেকে থাইল্যান্ডের ব্যাংককের উদ্দেশে যাত্রা শুরুর কথা রয়েছে।
সফরে থাকা বন্দর কর্তৃপক্ষের একজন্য প্রতিনিধি জানান, আগামী ৮ মে পর্যন্ত তারা এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে অংশ নেবেন। মূলত: জাইকার আঞ্চলিক প্রধান সদরদপ্তর থাইল্যান্ডে হওয়ায় এ প্রশিক্ষণ কর্মসূচি সেখানে রাখা হয়েছে।
উল্লেখ্য, প্রায় ৩৬ হাজার কোটি টাকার কয়লা বিদ্যুৎ নির্মাণ প্রকল্পে জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি (জাইকা) দিচ্ছে ৩৬ হাজার কোটি টাকা ও বাংলাদেশ সরকার দিচ্ছে ৭ হাজার কোটি টাকা। এ অর্থায়নের আওতায় গভীর সমুদ্র বন্দরের জন্য জেটি নির্মাণ করা হচ্ছে।


আরোও সংবাদ