৯টি সেতু উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ২০ আগস্ট , ২০১৫ সময় ১০:০৩ অপরাহ্ণ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের মাধ্যমে দেশকে একটি যোগাযোগ নেটওয়ার্কের মধ্যে নিয়ে আসতে কাজ করছে সরকার।

বৃহস্পতিবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশে ৯টি সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। এ সময় তিনি আশা প্রকাশ করেন, আঞ্চলিক মহাসড়কগুলোতে যোগাযোগ নিরবচ্ছিন্ন হওয়ায় শক্তিশালী হবে স্থানীয় অর্থনীতি।

নদীমাতৃক বাংলাদেশে স্থল পথে যোগাযোগের অন্যতম অন্তরায় ছোট বড় নদীগুলো। আর এ বাধা দূর করতে যমুনা নদীর উপর বঙ্গবন্ধু সেতু নির্মাণের পর পদ্মা নদীতে চলছে দেশের বৃহত্তম সেতু নির্মাণের কাজ। পাশাপাশি উদ্যোগ নেয়া হয়েছে আঞ্চলিক মহাসড়কগুলোকে সংযুক্ত করার।

এরই ধারাবাহিকতায় ৫ বিভাগের ছয় জেলার নয়টি সড়ক সেতুর উদ্বোধন করা হল। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সেতু গুলোর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এর মধ্যে দক্ষিণের জেলা মাদারীপুরে উদ্বোধন করা হয় চারটি সেতুর। চীনা সহায়তায় আড়িয়াল খাঁ নদীর ওপর নির্মিত এই সেতুগুলোর মাধ্যমে যুক্ত হবে মাদারীপুর শরীয়তপুর এবং চাঁদপুর মহাসড়ক।

দক্ষিণের আরেক জেলা পটুয়াখালী থেকে কুয়াটার পথে মহিপুর এবং আলীপুরের মধ্যবর্তী স্থানে খাপড়া ভাঙা নদীর ওপর নির্মাণ করা হয়েছে শেখ রাসেল সেতুর। একই পথে আন্দার মানিক এবং সোনাতলা নদীতে নির্মাণাধীন রয়েছে শেখ কামাল এবং শেখ জামাল সেতু।

এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সারা দেশে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা, নৌ-যোগাযোগ ও রেল পথে যোগাযোগের নেটওয়ার্ক চালু করতে চাই আমরা। গণমানুষের উন্নয়নে আমরা যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করবো।’

সিলেটের গোলাপগঞ্জের সঙ্গে বিয়ানীবাজারের সঙ্গে সংযোগকারী সেতুটির চালু হওয়ার ফলে দুই উপজেলার সরাসরি যোগাযোগের পাশাপাশি এখানে উৎপাদিত কৃষি পণ্য পরিবহনের কাজ সহজ হবে। এছাড়া সুনাম গঞ্জের পাথর বালি সিমেন্ট মাছ- কৃষিজাত পণ্য রাজধানী ঢাকা সহ সারা দেশে পরিবহণ হবে উদ্বোধন হওয়া আব্দুজ জহুর সেতুর মাধ্যমে।

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গাইবান্ধার বড়দহ সেতু কক্সবাজারে চকরিয়ায় বাটাখালী সেতুর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


আরোও সংবাদ