৩০ বিঘা জমির ওপর ২০১ গম্বুজ বিশিষ্ট মসজিদ

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১০ ফেব্রুয়ারি , ২০১৭ সময় ০৫:৫৪ অপরাহ্ণ

টাঙ্গাইলে নির্মিত হচ্ছে ২০১ গম্বুজ বিশিষ্ট মসজিদ। আর এর মিনার হবে বিশ্বের দ্বিতীয় উচ্চতম মিনার। সরকারি অর্থ সহায়তা ছাড়াই নির্মাণাধীন মসজিদটি গ্রিনেজ বুকে স্থান পাবে বলে প্রত্যাশা প্রতিষ্ঠাতার। তবে, মুসল্লি ও দর্শনার্থীদের যাতায়াতের সুবিধার্থে রাস্তা সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে, নির্মাণাধীন মসজিদটি দেখতে প্রতিদিনই ভিড় করছেন দেশি-বিদেশি দর্শনার্থীরা।

সুউচ্চ মিনার আর সারি সারি গম্বুজ দেখে যে কারোই মনে হতে পারে মধ্যপ্রাচ্যের কোনো দেশের স্থাপনা এটি। কিন্তু, বিশ্বের সবচে বেশি গম্বুজ বিশিষ্ট এই স্থাপনাটি নির্মিত হচ্ছে টাঙ্গাইলের গোপালপুরে।

২০১৩ সালে উপজেলার দক্ষিণ পাথলিয়ায় এই মসজিদের নির্মাণ কাজ শুরু করেন স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সাধারণ মানুষের সহযোগিতায় প্রায় শেষে পথে ২০১ গম্বুজ ও ৫৭ তলা সমান ইটের তৈরি মিনারবিশিষ্ট মসজিদ নির্মাণ। নানা কারুকাজে সাজানোর লক্ষ্যে ভেতর ও বাইরে চলছে শোভাবর্ধনের কাজ। দৃষ্টিনন্দন এ মসজিদ দেখতে প্রতিদিনই ভিড় করছেন দর্শনার্থীরা।

এদিকে, বিশ্ব রেকর্ড সৃষ্টির পরিকল্পনায় নির্মিতব্য মসজিদকে দর্শনীয় স্থানে রূপ দিতে সড়ক সংস্কার জরুরি বলে জানান মসজিদ প্রতিষ্ঠাতা মুক্তিযোদ্ধা মো. রফিকুল ইসলাম।

দর্শনার্থীদের কথা বিবেচনায় রেখে এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দিলেন টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক মো. মাহবুব হোসেন।

প্রায় একশ’ কোটি টাকা ব্যয়ে ৩০ বিঘা জমির ওপর নির্মাণাধীন এই মসজিদে একসাথে ১৫ হাজার মুসল্লি নামাজ আদায়ের ব্যবস্থা থাকবে। এর পাশাপাশি এখানে, এতিমখানা, বৃদ্ধাশ্রম, দুস্থ মুক্তিযোদ্ধা পুনর্বাসন কেন্দ্র, বিনামূল্যের চিকিৎসা কেন্দ্র এবং লাশ হিমাগার তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে।