৩০ জন বাংলাদশি মেডিক্যাল শিক্ষার্থীকে আটক করেছে ইউক্রেনের কর্তৃপক্ষ

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৩ জুন , ২০১৪ সময় ১১:২৫ অপরাহ্ণ

রাশিয়াপন্থী ও ইউক্রেন বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষের সময় কমপক্ষে ৩০ জন বাংলাদশি মেডিক্যাল শিক্ষার্থীকে আটক করেছে ইউক্রেনের কর্তৃপক্ষ।

রোববার দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় লুগানস্ক শহরে রুশপন্থী মিলিশিয়াদের বিরুদ্ধে ইউক্রেনের সরকারি বাহিনীর অভিযানের আগ মুহূর্তে তাদেরকে আটক করা হয়।

তাদের প্রায় সবাই লুগানস্ক স্টেট মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটির ছাত্র। আটক বাংলাদেশি ছাত্রদের একজন বাংলাদেশের ইংরেজি দৈনিক ঢাকা ট্রিবিউনকে ফোনের মাধ্যমে এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

লিটন চন্দ্র ভৌমিক নামের ওই ছাত্র তাদের দুরবস্থার কথা তুলে ধরে চরম উদ্বেগ প্রকাশ করেন। তিনি জানান, তাদের এ আটকাবস্থা থেকে সরিয়ে নেয়ার মত ইউক্রেনে কোনো বাংলাদেশি মিশন নেই।

লিটন চন্দ্র বলেন, “আমরা জানতে পারি, ইউক্রেন বাহিনী পুরো শহরটি চারদিক থেকে ঘিরে ফেলেছে। একটি রুশপন্থী মিলিশিয়া বাহিনীর বিরুদ্ধে তারা হামলার পরিকল্পনা করে। কারণ এখানে ওই মিলিশিয়ারা দেশটির গুরুত্বপূর্ণ বেশ কয়েকটি সরকারি ভবন দখল করে রেখেছে। বাংলাদেশ থেকে আসা আমরা ত্রিশজন ছাত্রই এখন পুরাপুরি যুদ্ধাঞ্চলের মধ্যে আছি।”

লিটন উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, “দয়া করে আমাদেরকে বাঁচান।”

তিনি আরো জানান, ইউক্রেনের এ অঞ্চলটিতে ভারতের শিক্ষার্থীও ছিল। কিন্তু সেখানকার ভারতীয় মিশন তাদের দেশের ছাত্রদের ইতিমধ্যে সরিয়ে নিয়ে গেছে।

বেশ কান্নাজড়িত কণ্ঠে অসহায়ত্ব প্রকাশ করে লিটন বলেন, “কিন্তু আমরা এখানে আছি, আমাদের কোনো অবিভাবক নেই। রাশিয়ার মস্কোয় বাংলাদেশ মিশনের সাথে যোগাযোগ করা জরুরি।”

লিটন বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে সাহায্যের জন্য আবেদন জানান।

লিটনের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা উপজেলায়।

তবে এ খবর এরইমধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় অবহিত হয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ইতিমধ্যে বিষয়টি নিয়ে উদ্যোগ নেয়ার জন্য রাশিয়ার মস্কোয় বাংলাদেশ মিশনকে অবহিত করেছে।