৩টি করে চারা রোপন সামাজিক ও আদর্শিক কর্তব্য

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৯ আগস্ট , ২০১৬ সময় ১০:৪০ অপরাহ্ণ

৩টিচট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব এ.বি.এম. মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানই বাংলাদেশকে মানুষের বাসযোগ্য করার জন্য ’৭৩ সালে সবুজ বিপ্লবের ডাক দিয়েছিলেন এবং পাঁচশ কিলোমিটার উপকূলীয় তীরবর্তী ভূমিতে বনায়নের মহাপ্রকল্প গ্রহণ করেছিলেন। এর সুফল আমরা পেয়েছি। তিনি আরো বলেন, আমরা যারা বঙ্গবন্ধুর সৈনিক তাদেরকে নিজ আঙ্গিনায় একটি করে ফলজ, বনজ ও ঔষুধী গাছের চারা রোপন করতে হবে। তাহলেই আমাদের জনপদ পরিবেশ বান্ধব থাকবে এবং জলবায়ু উষ্ণতা কমে আসবে।
তিনি আজ বিকেলে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের বৃক্ষরোপন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে চারা বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতির ভাষণে তিনি একথা বলেন। তিনি আরো বলেন, প্রাকৃতিক পরিবেশ বিপর্যায়ের জন্য মানুষই সবচেয়ে দায়ী। প্রকৃতির প্রতিশোধ বড়ই নিষ্ঠুর। এই অভিজ্ঞতা আমাদের আছে। তাই আমাদের প্রাণ বাঁচাতে প্রকৃতির কোন ক্ষতি করা যাবে না। মানবজীবনের সংক্ষিপ্ত সময়ে জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত অনেক কাজ করি। এর মধ্যে অন্যতম প্রধান হলো বৃক্ষরোপন।
চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, পরিবেশ বিপর্যয় আজ প্রধান বৈশ্বিক সংকট। এই সংকট মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৈশ্বিক স্বীকৃতি অর্জন করেছেন। বাংলাদেশে পরিবেশ বিপর্যয় রোধ ও দারিদ্রমুক্তির লড়াইয়ে আমাদের মধ্যে সকল ভুল-ভ্রান্তি বিভেদ পরিহার করে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করার ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। তিনি চট্টগ্রাম নগরীকে বিশ্বমানে উন্নীত করার জন্য জলাবদ্ধতা, যানজট মুক্ত পরিবেশ বান্ধব করে মানুষের বাসযোগ্য করার জন্য সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকার মেগাপ্রকল্পের পরিকল্পনার উল্লেখ করে বলেন, নগরীর ৩২টি ভরাট খাল খনন, চাক্তাই খাল রক্ষা, কর্ণফুলীর নব্যতা বৃদ্ধি, মেরিন ড্রাইভ নির্মাণ সহ পরিকল্পিত নগরায়ন করার জন্য এই মেগাপ্রকল্পটি একনেকে অনুমোদিত হলে চট্টগ্রামের সম্ভাবনার দুয়ার খুলে যাবে। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান চৌধুরী সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাকেন মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব নঈম উদ্দিন চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমু, শফিক আদনান, আইন সম্পাদক এডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, নির্বাহী সদস্য নজরুল ইসলাম বাহাদুর, আহমদ ইলিয়াছ, কাউন্সিলর ও সদস্য মোহাম্মদ জাবেদ, থানা আওয়ামী লীগ আলহাজ্ব সিদ্দিক আলম, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আব্দুল মান্নান চৌধুরী, মো. ইকবাল চৌধুরী, মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন।
সভামঞ্চে উপস্থিতি ছিলেন, সহ-সভাপতি এডভোকেট সুনীল কুমার সরকার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব বদিউল আলম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম ফারুক, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক চন্দন ধর, ধর্ম সম্পাদক হাজী জহুর আহমদ, মুক্তিযোদ্ধা সম্পাদক দেবাশীষ গুহ বুলবুল, উপ-দপ্তর সম্পাদক কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী, নির্বাহী সদস্য এম.এ জাফর, আবুল মনসুর, গাজী শফিউল আজিম, বখতেয়ার উদ্দিন খান, অমল মিত্র, হাজী বেলাল উদ্দিন, থানা আওয়ামী লীগের জাহাঙ্গীর চৌধুরী সি ইন সি (স্পেশাল), হাসান মনসুর, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আলহাজ্ব আলী বক্স, জহির আহমেদ, আলহাজ্ব শের মোহাম্মদ, জামাল উদ্দিন, আবুল কাশেম, সুলতান আহমেদ, নুরুল আজিম নুরু, সৈয়দ মোহাম্মদ জাকারিয়া, এস.এ. হান্নান, এস.কে পাল, আবদুল্লাহ আল ইব্রাহিম, মোহাম্মদ ইয়াকুব, শওকত আলী, আবু তৈয়ব ছিদ্দিকী, মোছলেম উদ্দিন, মো: ছালাহ উদ্দিন ইবনে আহমেদ, মহানগর যুবলীগের মহিউদ্দিন বাচ্চু, দেলোয়ার হোসেন খোকা, ফরিদ মাহমুদ, মহানগর ছাত্রলীগের ইমরান আহমেদ ইমু। অনুষ্ঠান শেষে সভাপতি এ.বি.এম. মহিউদ্দিন চৌধুরী ৪৪ টি সাংগঠনিক ওয়ার্ডে ১৫ হাজার ফলজ, বনজ ও ঔষুধী চারা বিতরণ করেন এবং শহীদ মিনার সংলগ্ন উদ্যানে তিনটি চারা রোপণ করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন।