২৩৯ জন আরোহীসহ খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না মালয়েশিয়া বিমানের

প্রকাশ:| শনিবার, ৮ মার্চ , ২০১৪ সময় ০২:৩৫ অপরাহ্ণ

চীনের বেইজিং যাওয়ার উদ্দেশ্যে ২৩৯ জন আরোহী নিয়ে আকাশে ওঠার পর আর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সের একটি বিমানের।২৩৯ আরোহী নিয়ে বিমান নিখোঁজ
বিমানটি নিখোঁজ হওয়ার খবর শুনে বেইজিং বিমানবন্দরে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন বিমানে থাকা যাত্রীদের স্বজনরা। ছবি- রয়টার্স।

শনিবার সকালে এক প্রতিবেদনে বিবিসি বাংলা জানিয়েছে, স্থানীয় সময় শুক্রবার রাত ১২টা ৪১ মিনিটে কুয়ালামাপুর বিমানবন্দর থেকে মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সের এমএইচ৩৭০ ফ্লাইটটি বেইজিংয়ের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। এর দুই ঘণ্টা পর বিমানটি ভিয়েতনামের আকাশসীমায় কা মৌ প্রদেশের কাছে পৌঁছানোর পর কন্ট্রোল রুমের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্স বলেছে, ২৩৯ জন যাত্রী নিয়ে বিমানটির বেইজিংয়ের স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৬টায় অবতরণ করার কথা থাকলেও সেটি নির্ধারিত সময়ে সেখানে পৌঁছায়নি। বিমানটির অবস্থান জানার জন্য বা এটিকে উদ্ধারে অনুসন্ধান চলছে।

এদিকে ভিয়েতনামের নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম টিউওই ট্রে জানিয়েছে, ২৩৯ জন যাত্রীসহ বিমানটি শনিবার দক্ষিণ চীন সাগরে বিধ্বস্ত হয়েছে। তবে মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেনি।

ভিয়েতনামের নৌবাহিনীর কর্মকর্তা অ্যাডমিরাল এনগো ভ্যান ফ্যাট দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তাসংস্থাকে জানান, বিমানটি দক্ষিণ চীন সাগরে বিধ্বস্ত হয়েছে জানতে পেরে তিনি দক্ষিণ ভিয়েতনামের একটি দ্বীপ থেকে বেশ কিছু নৌকাকে দ্রুত ঘটনাস্থলে যেতে নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে নিজেদের ওয়েবসাইটে এক বিবৃতিতে মালয়েশিয়া এয়ালাইন্স জানিয়েছে, বিমানটিতে যাত্রী ছিল ২২৭ জন। আর ক্রু ছিল ১২ জন।

বিমানে মোট ১৪টি দেশের নাগরিকরা ছিলেন—উল্লেখ করে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এদের মধ্যে এক শিশুসহ চীন ও তাইওয়ানের ১৫৩ জন, মালয়েশিয়ার ৩৮ জন, ইন্দোনেশিয়ার ৭ জন, অস্ট্রেলিয়ার ৬ জন, ফ্রান্সের ৩ জন, এক শিশুসহ যুক্তরাষ্ট্ররের ৪ জন, নিউজিল্যান্ডের ২ জন, ইউক্রেনের ২ জন, কানাডার ২ জন, রাশিয়ার ১ জন, ইতালির ১ জন, ভারতের ৫ জন, নেদারল্যান্ডসের ১ জন ও অস্ট্রিয়ার ১ জন নাগরিক রয়েছেন।