টেকসই বেড়িবাঁধ,মানব উন্নয়নের লক্ষে কুতুবদিয়া দ্বীপ সুরক্ষার মতবিনিময় সভা

প্রকাশ:| সোমবার, ৩০ জানুয়ারি , ২০১৭ সময় ১০:২৯ অপরাহ্ণ

 

এস.কে.লিটন কুতুবী কুতুবদিয়া,কক্সবাজার।

টেকসই বেড়িবাঁধ ও ঘূর্ণিঝড় রোয়ানুর আঘাতে বিধ্বস্ত পরিবারকে পূনর্বাসিত করার লক্ষ্যে  সোমবার (৩০ জানুয়ারি) কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদ হল রুমে ইউএনও সালেহীন তানভীর গাজীর সভাপতিত্বে কুতুবদিয়া দ্বীপ সুরক্ষার উপায় শীর্ষক এক সেমিনার সভা অনুষ্টিত হয়। উক্ত সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) চেয়ারম্যান ডক্টর কাজী খলীকুজ্জামান আহমদ, বিশেষ অতিথি ছিলেন,পিকেএসএফের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সাবেক সচিব) আবদুল করিম, পিকেএসএফের উপ-ব্যবস্থাপক ডক্টর জসিম উদ্দিন, কোষ্ট-ট্রাষ্টের পরিচালক রেজাউল করিম চৌধুরী, কক্সবাজার-২ (কুতুবদিয়া-মহেশখালী) আসনের সাংসদ আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক, কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এটিএম নুরুল বশর চৌধুরী, কক্সবাজার জেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত সদস্য মাষ্টার আহমদ উল্লাহ, উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির হায়দার, মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান ছৈয়দা মেহেরুন্নেছা, বড়ঘোপ ইউপির চেয়ারম্যান এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, আলী আকবর ডেইল ইউপির চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুচ্ছাফা বিকম, উত্তর ধুরুং ইউপির চেয়ারম্যান আ স ম শাহরিয়ার চৌধুরী, দক্ষিন ধুরুং ইউপির চেয়ারম্যান ছৈয়দ আহমদ চৌধুরী, কৈয়ারবিল ইউপির চেয়ারম্যান জালাল আহমদ, কুতুবদিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জহিরুল ইসলাম, কুতুবদিয়া উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এস,কে লিটন কুতুবী, কোষ্ট ট্রাষ্টের সহকারী পরিচালক মোস্তাফা কামাল আখন্দ, সহকারী পরিচালক তারেক সাইদ হারুন, সিনিয়র সমন্বয়কারী জিয়াউল করিম চৌধুরী ঝন্টু ও প্রকল্প সমন্বয়কারী মোঃ ফজলুল হক।

বক্তারা কুতুবদিয়া দ্বীপের ৪০ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের মধ্যে ২০ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ বিধ্বস্ত থাকায় ৬ ইউনিয়নের অর্ধলক্ষ মানুষ মারাত্মক ঝুঁকিতে রয়েছে। গেল বছর ঘূর্ণিঝড় রোয়ানুর আঘাতে কুতুবদিয়া দ্বীপের ২০ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে যায়। ওই সময়ে ৬ ইউনিয়নের প্রায় ৩০ হাজার পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এসব পরিবার এখনো পূনর্বাসিত হতে পারেনি। বর্তমানে বিধ্বস্ত পরিবারগুলো নিকটস্থ আত্মীয়ের বাড়ীতে এবং সড়কের পাশের উ”ুঁ স্থানে আশ্রয় নিয়েছে। কোষ্ট ট্রাষ্টসহ ৮/১০ টি এনজিও কুতুবদিয়া দ্বীপের ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় সুপেয় জল, স্যানিটেশন, চিকিৎসা ও শিক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিতের ওপর কাজ করে যাচ্ছেন। সেমিনার শেষে অতিথিরা কুতুবদিয়া দ্বীপের উত্তর ধুরুং ইউনিয়নের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় কোষ্ট ট্রাষ্টের সমৃদ্ধি কর্মসূচীর কার্যক্রম পরিদর্শন করেন এবং উল্লেখযোগ্য কর্মকান্ডগুলো আরো এগিয়ে নেয়ার জন্য অনুরোধ জানান। অবকাঠামো গত কাজের ক্ষেত্রে আরো বরাদ্দ দেয়ার আশ্বাস দেন।