১৪ দিনে রেলের ‘এক্সট্রা’ আয় অর্ধকোটি

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| সোমবার, ২৮ মে , ২০১৮ সময় ০৯:৫৬ অপরাহ্ণ

ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের ট্রেনে এক্সট্রা বগি সংযোজন করে ১৪ থেকে ২৭ মে পর্যন্ত ১৪ দিনে রেলওয়ে ৫০ লাখ ৪ হাজার ৪৪০ টাকা বেশি আয় করেছে। সুবর্ণ, তূর্ণা, মহানগর, গোধূলি ও সোনার বাংলা ট্রেনে এ সময়ে প্রায় ৫৪টি এক্সট্রা বগি সংযোজন করা হয়।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, দেশের ‘লাইফ লাইন’ খ্যাত ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের যানজটকে ঘিরে যাত্রীদের চাপ বেড়েছে রেলওয়ের ওপর। ফলে চাহিদা বেড়েছে টিকেটের। বাড়তি চাহিদা সামলাতে প্রায় দিনই এসি চেয়ার, শোভন চেয়ার ও এসি স্লিপারের বগি সংযোজন করতে হচ্ছে।

১৪ মে সুবর্ণ এক্সপ্রেসে (৭০১) একটি এসি চেয়ার (ডব্লিউজেসিসি) ও একটি শোভন চেয়ারের (ডব্লিউইসি), মহানগর এক্সপ্রেসে (৭২১) দুইটি এসি চেয়ার, মহানগর গোধূলিতে (৭০৩) একটি শোভন চেয়ার, সোনার বাংলা এক্সপ্রেসে (৭৮৭) দুইটি এসি চেয়ার, একটি শোভন চেয়ার এবং তূর্ণা এক্সপ্রেসে (৭৪১) একটি এসি স্লিপার, দুইটি এসি চেয়ার, তিনটি শোভন চেয়ারের বগি সংযোজন করা হয়। এক দিনেই এক্সট্রা বগি থেকে রেলওয়ে আয় করে ৮ লাখ ৯০ হাজার ১৯০ টাকা।

পরদিন ১৫ মে চারটি ট্রেনে ৭টি এক্সট্রা বগি সংযোজন করে রেলওয়ে আয় করে ৭ লাখ ৩৫ হাজার ২৩০ টাকা। সর্বশেষ ২৭ মে দুইটি ট্রেনে চারটি বগি সংযোজন করে আয় করেছে ২ লাখ ২৬ হাজার ৯৬০ টাকা।

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের একজন কর্মকর্তা বলেন, জনস্বার্থে রেলওয়ে এক্সট্রা বগি সংযোজন করে বাড়তি যাত্রীকে গন্তব্যে পৌঁছে দিয়েছে। যতদিন টিকেটের চাপ থাকবে এ প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। পাশাপাশি আসন্ন ঈদে বাড়িমুখো যাত্রীদের নিরাপদে গন্তব্যে পৌঁছে দিতে প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে রেলওয়ে। এ লক্ষ্যে বগি মেরামত, রং করাসহ আনুষঙ্গিক কাজ পুরোদমে চলছে।