১২ কোটি টাকা বকেয়া রেখে শুক্রবার থেকে বন্ধ হয়ে গেলো নাটোর চিনিকল

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৮ মার্চ , ২০১৪ সময় ১০:১৯ অপরাহ্ণ

আখ চাষিদের পাওনা ১২ কোটি টাকা বকেয়া রেখে শুক্রবার থেকে বন্ধ হয়ে গেলো নাটোর চিনিকল। মিলের গুদামে ১৯ হাজার মেট্রিকটন চিনি অবিক্রিত পড়ে রয়েছে। বাজারে আমদানি করা চিনি কম দামে বিক্রি হওয়ায় দাম কমিয়েও বিক্রি হচ্ছে মিলের চিনি।

চিনিকল সূত্রে জানা যায়, এবার নাটোর চিনিকলে ১১ হাজার ৮৮৬ মেট্রিকটন টন চিনি উৎপাদিত হয়েছে। চিনিকলে প্রতি কেজি চিনির উৎপাদন খরচ পড়েছে ৬৮ টাকা। কিন্তু চিনি বিক্রি না হওযায় সম্প্রতি চিনির বিক্রয় মূল্য কমিয়ে প্রতি কেজি ৪০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবুও চিনি তুলছে না ডিলাররা।

এদিকে চিনি বিক্রি না হওয়ায় চাষিদের আখের দাম ১২ কোটি টাকা ও মিলের শ্রমিক-কর্মচারী, কর্মকর্তাদের বেতনভাতা দেড় কোটি টাকা পরিশোধ করতে পারছে না মিল কর্তৃপক্ষ।

মিল সূত্র জানায়, গত বছরের ডিসেম্বর মাসের ১৫ তারিখে নাটোর চিনিকলে আখ মাড়াই শুরু হয়। চলতি বছরের ২৬ মার্চ পর্যন্ত আখ মাড়াই হয়েছে ১ লাখ ৫৩ হাজার মেট্রিক টন। এবার মৌসুমের শুরুতেই হরতাল অবরোধের কারণে মিলে উৎপাদন বন্ধ ছিল ২১ দিন। এতে একদিকে উৎপাদন ব্যাহত হয়েছে, অন্যদিকে বেড়েছে উৎপাদন খরচ।

গত ২ বছরে নাটোর চিনিকল লোকসান দিয়েছে ৩০ কোটি টাকা। এবার প্রায় ২০ কোট টাকা লোকসান আশঙ্কা করছে মিলে কর্তৃপক্ষ।

নাটোর চিনিকলের মহাব্যবস্থাপক ( এম ডি) আরশাদ আলী জানান, চিনিকল করপোরেশন ও ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে চলতে হচ্ছে মিলকে। এ অবস্থায় মিল বন্ধ করা ছাড়া আর কোনো উপায় ছিলো না।


আরোও সংবাদ