১২০ রানে অলআউট বাংলাদেশ

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি , ২০১৪ সময় ০৬:৫০ অপরাহ্ণ

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের শেষ ও সিরিজ নির্ধারনী টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ১২০ রানে অলআউট হয়ে গেছে বাংলাদেশ। টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। প্রথম ওভারেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। দিলশানের ওভারের পঞ্চম বলে চান্ডিমালের হাতে ধরা পড়েন শামসুর রহমান শুভ। দ্বিতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে কুলাসেকারার বল হাঁকাতে গিয়ে সীমানার কাছে মেন্ডিসের হাতে ধরা পড়েন তামিম। দলের রান তখন মাত্র ৩/২। শুরুর সেই ধাক্কা আর সামরাতে পারেনি বাংলাদেশ। শেষ পর্যন্ত এক বল বাকি থাকতেই ১২০ রানে অলআউট হয়ে যায় স্বাগতিকরা। সাকিব আল হাসান নেমেই চার হাঁকান। সঙ্গে জ্বলে ওঠেন এনামুলও। ২ ওভারে এ জুটি যোগ করেন ৩২ রান। কিন্তু চতুর্থ ওভারে সেনানায়েকের বলে হাঁকাতে গিয়ে আউট হয়ে যান সাকিব। অসাধারণ ক্যাচ নেন কুলাসেকারা। ৬ বলে ১২ রান করেন তিনি। পঞ্চম ওভার এক রান দেন লাসিথ মালিঙ্গা। ষষ্ঠ ওভারের তৃতীয় বলে আউট হলেন এনামুল। ১৭ বলে ২৪ রান করেন এনামুল। নাসির হোসেন আউট হন মেন্ডিসের প্রথম ওভারেই ৮ রান করে। এরপর রান আউট হলেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ৮০ রানের মাথায় ফরহাদ রেজার বিদায়ের পর অধিনায়ক মাশরাফি খানিকটা পিটিয়ে স্কোর একশ’ পার করিয়ে নেন। কিন্তু ১০১ রানের মাথায় বোল্ড হয়ে যান মাশরাফি মালিঙ্গার ইয়র্কারে। তিনি চারটি চারে ১৭ রান করেন ১০ বলে। এরপর শেষ ওভারে মালিঙ্গা বিদায় করেন আরাফাত সানি ও সাব্বির রহমানকে। অভিষিক্ত সাব্বির সর্বোচ্চ ২৬ রান করেন। যদিও তিনি বল খেলেন ৩৬টি। তার ইনিংসে চার ছিল দুটি। মালিঙ্গা তিন উইকেট নেন মাত্র ২০ রানে। দুটি করে উইকেট নেন কুলাসেকারা ও সেনানায়েকে।
প্রথম ম্যাচে মূল একাদশে জায়গা পাওয়া দুই ক্রিকেটার আজ খেলছেন না। প্রথম ম্যাচে অভিষিক্ত উইকেট কিপার মিথুন আলীর পরিবর্তে দলে দলের কিপিং করবেন এনামুল হক বিজয়। আর টি-টোয়েন্টি দলে ৪২ তম ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক হয়েছে ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান রুম্মানের। অন্যদিকে দলে এসেছেন সাবেক সহ অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। দল থেকে বাদ পড়েছেন সোহাগ গাজী। প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ শেষ বলে মাত্র ২ রানের জন্য হেরেছিল। লঙ্কার বিপক্ষে এর আগে তিনটি ম্যাচে টসে জিতে বাংলাদেশ ফিল্ডিং নিয়েছিল।