১০তলা ভবনে রূপ নিচ্ছে আলকরণ নূর আহমদ বালক উচ্চ বিদ্যালয়

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শনিবার, ২১ জুলাই , ২০১৮ সময় ০৮:৪১ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, মানুষ মানুষের জন্য । সৃষ্ঠির সেরা জীব মানুষ। তাই নিজ নিজ সামর্থ্য নিয়ে মানুষের কল্যাণে, মানুষের সেবায় এগিয়ে আসাই মানুষের নৈতিক দায়িত্ব এবং কর্তব্য। তিনি আজ বিকালে আলকরণ নূর আহমদ সিটি কর্পোরেশন উচ্চ বিদ্যালয় চত্বরে বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মাণ কাজ উদ্বোধনকালে একথা বলেন। স্থানীয় কাউন্সিলর তারেক সোলায়মান সেলিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মরহুম নূর আহমদ চেয়ারম্যানের দৌহিত্র অধ্যাপক সেলিম জাহাঙ্গীর, চসিক শিক্ষা-স্বাস্থ্য স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান কাউন্সিলর নাজমুল হক ডিউক, কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এ কে এম মাহমুদুল্লাহ বক্তব্য রাখেন। মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন প্যানেল মেয়র নিছার উদ্দিন আহমদ মঞ্জু,ইসমাইল বালি, সংরক্ষিত কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, আলহাজ্ব আবদুর রহমান, শফিক আহমদ সর্দার, মাকসুদ আহমদ সর্দার, শিক্ষক শাহাদাত হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, আমাদের সমাজে অনেক বিত্তশালী ব্যক্তি রয়েছেন। যাদের সামর্থ্য অনেক। কিন্তু সমাজ, দেশ উন্নয়নে তাদের তেমন কোন আগ্রহ দেখা যায় না। আবার অনেকেই আছেন এক টাকা দান করে দশ টাকার নাম কিনতে চান। এই প্রসঙ্গে সিটি মেয়র বলেন নিজ নিজ সামর্থ্য অনুযায়ী যথাযর্থভাবে যাকাত প্রদান করলে দেশে গরীব লোকের সংখ্যা কমে যেত। তাই পবিত্র ইসলাম ধর্মে বিধান রয়েছে, এক হাতে দান করলে অন্য হাত তা যাতে জানতে না পারে।তবে আমাদের সমাজে আমরা এর ব্যতিক্রম দেখতে পাই। যা ইসলাম ধর্মের বিধানানুযায়ী এটা একটি গহিত কাজ ।বিদ্যালয় প্রসঙ্গে সিটি মেয়র বলেন, দীর্ঘ ৬ বছর ধরে নূর আহমদ সিটি কর্পোরেশন বালক উচ্চ বিদ্যালয়টির কোন ক্যাম্পাস ছিল না। নতুন ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা নিয়ে বিদ্যালয়ের পুরোনো ভবনটি ভেঙ্গে ফেলাতে এই অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। নানা প্রতিকূলতার মাঝে আজ পর্যন্ত বিদ্যালয়ে কোন নতুন ভবন নির্মাণ সম্ভব হয়নি। এতে করে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদেরকে দীর্ঘদিন ধরে ভবন সংকটে ভুগতে হয়েছে। এই দুরাবস্থা দেখে এই বিদ্যালয়েরই প্রাক্তন ছাত্র বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আমিরুল হক এগিয়ে এসেছেন। তিনি বিদ্যালয়টিকে ১০ তলা ভবনে রূপ দেয়ার সমস্ত ব্যয় ভার বহন করেছেন। তার একান্ত ইচ্ছায় এবং আন্তরিকতায় এই বিদ্যালয় নতুন করে পথ চলার ঠিকানা খুঁজে পেয়েছে। জনাব আমিরুল হকের এই মহতী উদ্যোগের জন্য সিটি মেয়র তার কাছে কর্তৃজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
ভবন নির্মাণের ব্যয় বহনকারী আলহাজ্ব আমিরুল হক তার বক্তব্যে বলেন, আমি এই বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র। বিদ্যালয়ের প্রতি ঋণশোধ করা ছিল আমার দীর্ঘদিনের স্বপ্ন। এই স্বপ্ন বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়ে আমি এই বিদ্যালয়টিকে আধুনিক ১০ তলা ভবনে পরিণত করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে আমি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনসহ আপামর এলাকাবাসীর সহযোগিতা প্রত্যাশা করছি। তিনি মেয়রকে সকল উন্নয়ন ও সেবামুখী কর্মকান্ডে তার পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন পরিচালিত আলকরণ ওয়ার্ডস্থ নূর আহমদ বালক উচ্চ বিদ্যালয়কে আধুনিক ১০ তলা ভবনে রূপ দেয়া হচ্ছে। ইতোমধ্যে ভবনের নকশা, ড্রইং, ডিজাইনসহ যাবতীয় পরিকল্পনা চুড়ান্ত করা হয়েছে। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন অধিভুক্ত এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি আধুনিকায়নের সমস্ত ব্যয় ভার বহন করছেন বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র প্রিমিয়ার সিমেন্ট’র স্বত্তাধিকারী আলহাজ্ব আমিরুল হক। বিদ্যালয় ভবনটি নির্মাণে প্রায় ১০ কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নিয়েছেন তিনি। প্রথম পর্যায়ে ছয় তলা পর্যন্ত নির্মাণ করা হবে। পরবর্তীতে বাকি ফ্লোর বর্ধিত করা হবে। আসন্ন কোরবানের ঈদের পর বিদ্যালয় ভবন নির্মাণের কাজ শুরু হবে। সম্পূর্ণ শীততাপ নিয়ন্ত্রিত,অত্যাধুনিক শ্রেণি কক্ষ, মাল্টিমিডিয়া পাঠদান পদ্ধতি, বৈজ্ঞানিক ল্যাব,সুপরিসর কনফারেন্স হল এবং পুরো ক্যাম্পাস জুড়ে সেন্ট্রাল নেটওয়ার্কিং ব্যবস্থা,ওয়াইফাই জোনসহ নানা সুযোগ সুবিধার ব্যবস্থা রেখে এই বিদ্যালয় ভবনটি নির্মাণ করা হবে।