হালদার তীর সংরক্ষণসহ ৬৮৮ কোটি টাকার অনুমোদন

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৪ এপ্রিল , ২০১৭ সময় ০৬:৩৯ অপরাহ্ণ

জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় চট্টগ্রামের ৬৮৮ কোটি ৬৯ লাখ টাকার দুটি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (০৪ এপ্রিল) ঢাকার  শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপার্সন  শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে  একনেক সভায় এ অনুমোদন দেওয়া হয়।

প্রকল্প দুটি হচ্ছে ‘চট্টগ্রাম শহরে পরিত্যক্ত বাড়িতে সরকারি আবাসিক ফ্ল্যাট ও ডরমেটরি ভবন নির্মাণ’ এবং ‘হাটহাজারী ও রাউজান উপজেলায় হালদা নদীর উভয় তীরের ভাঙন থেকে বিভিন্ন এলাকা রক্ষাকল্পে তীর সংরক্ষণ কাজ’। প্রথম প্রকল্পটির প্রাক্কলিত ব্যয় ৪৭৬ কোটি ৬১ লাখ টাকা। দ্বিতীয় প্রকল্পটির প্রাক্কলিত ব্যয় ২১২ কোটি ৮ লাখ টাকা। দুটি প্রকল্পই জিওবি (সরকারি) অর্থায়নে বাস্তবায়িত হবে।

পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল একনেক সভা শেষে  সাংবাদিকদের বলেন, চট্টগ্রাম শহরে ২৬ হাজার ৭৮ জন সরকারি চাকরিজীবী রয়েছেন। এরমধ্যে মাত্র ১ হাজার ৯৭৩ জনকে সরকারি কোয়ার্টার দেওয়া সম্ভব হয়েছে। চট্টগ্রাম শহরে বেশ কিছু পরিত্যক্ত সরকারি বাড়ি রয়েছে। এ সব পরিত্যক্ত বাড়িতে অধিক সংখ্যক আবাসিক ভবন নির্মাণের মাধ্যমে সরকারি চাকরিজীবীদের আবাসন সমস্যার কিছুটা সমাধান করা সম্ভব । এ লক্ষ্যে চট্টগ্রাম শহরে পরিত্যক্ত বাড়িতে সরকারি আবাসিক ফ্ল্যাট ও ডরমেটরি ভবন নির্মাণ শীর্ষক একটি  প্রকল্প একনেক সভায় অনুমোদন দেওয়া হয়েছে ।

তিনি বলেন, সরকারি কর্মচারি-কর্মকর্তাদের জন্য পর্যায়ক্রমে শতভাগ আবাসন সুবিধা নিশ্চিত করতে এবং সরকারি পরিত্যক্ত সম্পত্তি যাতে বেদখল না হয় সে বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রী সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন।

জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের  নির্বাহী কমিটি (একনেক) সভায়  ৭ হাজার ৮৯০ কোটি টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে ৭টি নতুন ও সংশোধিত প্রকল্প  অনুমোদন দেওয়া  হয়েছে। এর মধ্যে জিওবি  ৩   হাজার  ৮৭৬ কোটি ৩২ লাখ টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য  ৪ হাজার ১৩ কোটি  ৬৮ লাখ টাকা্।