হারানো দুই শিশুকে মাতৃকোলে ফিরিয়ে দিল পুলিশ

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৩ জুন , ২০১৬ সময় ০৯:৪৭ অপরাহ্ণ

মবিন (৮) ও ফাহিম (৭)। দুই ভাই। বাবা আবুল হোসেনের মৃত্যুর পর মা দিলু বেগম তাদের তুলে দিয়েছিলেন নগরীর সিঅ্যান্ডবি এলাকার আহসানিয়া উম্মিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানায়।

হারানো দুই শিশুকে মাতৃকোলে ফিরিয়ে দিল পুলিশপিতৃহারা দুই শিশু পুত্রকে অভাবের তাড়নায় এতিমখানায় ভর্তি করিয়ে দিয়ে গ্রামের বাড়িতে থাকছিলেন দিলু বেগম। তবে মাস যেতে না যেতেই মা-বাবা ছাড়া সেই দুই শিশু এতিমখানা থেকে পালিয়ে যায়। তবে ঘুরতে ঘুরতে নগরীর চান্দগাঁও থানার সিঅ্যান্ডবি এলাকা থেকে পালিয়ে যাবার পথে বায়েজিদ থানার অক্সিজেন এলাকা থেকে শুক্রবার সকালে তাদের উদ্ধার করে পুলিশ।

এরপর ৬ ও ৮ বছরের দুই শিশুর কাছ থেকে অস্পষ্ট তথ্য নিয়ে রাঙ্গুনিয়া থানার ওসির সঙ্গে যোগাযোগ করেন বায়েজিদ থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন। পরে সেখানকার স্থানীয় জন প্রতিনিধির সঙ্গে যোগাযোগ করে দুই শিশুর মাকে খুঁজে বের করা হয়।

পরে বিকেলে বায়েজিদ থানায় শিশু দুটি নিতে আসেন দিলু আক্তার। এরপর অানুষ্ঠানিকতা সেরে হারানো শিশু দুটিকে মায়ের কোলে তুলে দেন ওসি মহসীন।

শিশু দুটি হলো, সিঅ্যান্ডবি আহছানিয়া উম্মিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার ছাত্র মুবিন (৮) ও ফানিম (৭)। তারা রাঙ্গুনিয়া উপজেলার খতিব নগরের নুরানী বাড়ির মৃত আবুল হোসেনের ছেলে।

ওসি মহসীন বলেন, ‘অক্সিজেন এলাকা থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ আজ সকালে তাদের উদ্ধার করে। পরে তাদের কাছ থেকে শুধুমাত্র রাঙ্গুনিয়া থানার নামটি শুনে সেই থানার সঙ্গে যোগাযোগ করে মায়ের সন্ধান পাই। পরে বিকেলে মা দিলুর কাছে শিশু দুটিকে হস্তান্তর করি।’

এসময় শিশু দুটিকে নিতে এসে বায়েজিদ থানায় কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন দিলু বেগম। তিনি বলেন, ‘পুলিশ আজকে আমার দুই ছেলেকে উদ্ধার করে আমার কোলে ফিরিয়ে দিয়েছে। যদি পুলিশের হাতে না পড়ে অপহরণকারীদের হাতে পড়তো তাহলে তাদের আমি কীভাবে পাইতাম। আমি ওসি স্যারের কাছে কৃতজ্ঞ।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমার স্বামী গত মাসে স্ট্রোক করে মারা যাওয়ার পর আমার চার ছেলে মেয়েকে নিয়ে খুব কষ্টে আছি। সেজন্য বড় ছেলেকে একজনের কাছে কাজে দিয়ে, এই দুইজনকে এতিমখানায় দিছি । আরেকজনকে নিয়ে আমি বাড়িতে থাকি।’

তবে শিশু দুটি কেন এতিমখানা থেকে পালিয়ে গেছে সে বিষয়ে কিছুই জানায়নি।