হাজী ইলিয়াছ এমপিকে ফুলেল শুভেচ্ছা

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৬ অক্টোবর , ২০১৫ সময় ০৮:৫৫ অপরাহ্ণ

কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সংসদ সদস্য ও জাপা নেতা আলহাজ মুহাম্মদ ইলিয়াছ এম.পি’কে ফুলের শুভেচ্ছা জানিয়ে জাতীয় পার্টিতে যোগদান করেছেন পেকুয়ার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (বি.ডি.আর জাহাঙ্গীর) এর নেতৃত্বে অর্ধ শতাধিক লোক।

ইলিয়ছ১৬অক্টোবর শুক্রবার সকালে পেকুয়া সদর ইউনিয়নের মিয়ারপাড়া এলাকার বাসিন্দা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক জাহাঙ্গীর আলম প্রায় অর্ধশতাধিক লোকজন নিয়ে কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জাপা নেতা আলহাজ মুহাম্মদ ইলিয়াছ এম.পি’র সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করতে চকরিয়া সওজ’র ডাকবাংলোয় যান। এসময় তিনি পেকুয়া উপজেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব এম.দিদারুল করিমের কাছ থেকে দলের প্রাথমিক সদস্য ফরম সংগ্রহে তা পুরন করে আনুষ্টানিকভাবে জাতীয় পার্টিতে যোগদান করেন।

এসময় সমবেত লোকজনের উদ্দেশ্যে কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জাপা নেতা আলহাজ¦ মুহাম্মদ ইলিয়াছ এম.পি বলেন, জাতীয় পার্টি প্রতিশোধ প্রতিহিংসা নয় দেশ ও জাতীর উন্নয়ন, জনকল্যান এবং অধিকার আদায়ের রাজনীতি চর্চ্চা করে বলেই দেশের সর্বস্থরের মানূষ বিএনপি-আ’লীগের চেয়ে পল্লী বন্ধু ও নয় বছরের সাবেক সফল রাষ্ট্রনায়ক হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ ও তার সহধর্মনী বর্তমান সংসদের প্রধান বিরোধীদলীয় নেত্রী প্রাক্তন ফার্স্ট লেডি রওশন এরশাদের নেতৃত্বকেই নিরাপদ মনে করছেন। তিনি চকরিয়া-পেকুয়া’কে জাপা’র শক্ত ঘাটি উল্লেখ করে বলেন, উপজেলা পরিষদ প্রবর্তন, কক্সবাজার সদর মহকুমাকে জেলায় উন্নীত ও জেলা পরিষদ প্রথায় নেতৃত্বের বিকাশ ছাড়াও কক্সবাজারকে পর্যটন নগরে রূপান্তরের মাধ্যমে তার অন্তর্গত সকল উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড বা প্রত্যন্ত পাড়া-মহল্লায় জাতীয় পার্টি সরকারের শাসনামলেই উন্নয়ন বিপ্লবের সূচনার ফলে কক্সবাজার আজ দেশে বিদেশে সমাদ্রিত সম্ভব হয়েছে। জাপা নেতা হাজী¦ মুহাম্মদ ইলিয়াছ এম.পি দেশে বিএনপি-আ’লীগের দ্বি-দলীয় শক্তির প্রতিশোধ প্রতিহিংসার রাজনীতি বন্ধের পাশাপাশি কক্সবাজার তথা সারাদেশে সুষম উন্নয়ন জনসেবার রাজনীতির বিপ্লব সাধনে জাতীয় পার্টির বিকল্প নেই দাবী করে আরো বলেন, চকরিয়া-পেকুয়ার উত্তর জনপদের মাটি ও মানূষের সেতু বন্ধন হিসাবে পরিচিত বারবাকিয়া-হারবাং সংযোগ(মোবারেকা এভিনিউ) সড়কে একমাত্র জাতীয় পার্টির শাসনামলেই সংষ্কার প্রকল্প গ্রহন ও বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া নেয়া হলেও বিএনপি-আ’লীগের আমলে তা বন্ধ করায় জনগুরুত্ব এসড়কটি তার ঐতিহ্য আভিজাত্য ও প্রানচাঞ্চলতা হারায়। ফলে, দূর্যোগ ঝুঁকিপূর্ন উপকুলীয় জনগোষ্টির বিকল্প যোগাযোগের নিশ্চয়তা হারিয়ে পেকুয়া তথা জেলার বিস্তির্ণ উপকুলীয় অঞ্চলের লাখ লাখ মানূষের আজ ভোগান্তির শেষ নেই। বিএনপি-আ’লীগের কাছে বিষয়টি সাধারণ মনে হলেও জাপা’র অবস্থান ভিন্ন।

জাপা ইতিহাস বিকৃতি বা ভ্রান্ত ইতিহাসের অন্ধ গলির পথ দিয়ে নয় প্রকৃত অতিত ইতিহাস ধারন করে তার উন্নয়ন সুফল নিশ্চিতের মাধ্যমে সকলের জন্য নিরাপদ, আত্মপ্রত্যয়ী ও সুন্দর, আগামী রচনায় বিশাসী হয়ে রাজনীতি সমাজনীতি চর্চ্চায় আত্মনিয়োজিত বলেই জাপায় সর্বস্তরের মানূষের সমাবেশ ঘঠছে। এ সূযোগ সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে চকরিয়া-পেকুয়ার মাটি মানূষের উন্নয়ন ভাগ্যবদল তরান্বিত করতে তিনি উপস্থিত নেতাকর্মী ও সর্বস্তরের মানূষের প্রতি উদ্ধার্থ আহব্বান জানান। তিনি বিডিআর জাহাঙ্গীরের জাপায় যোগদানকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, চকরিয়া তথা কক্সবাজারের মতো পেকুয়ায়ও জাতীয় পার্টিকে সু’সংগঠিত করার পাশাপাশি প্রত্যন্ত পাড়া-মহল্লায় বর্তমান সরকার ও বিরোধীদলের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা কর্মসূচীর যথাযথ বাস্তবায়ন ঘঠিয়ে মানূষকে জাপা মূখী করে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। যোগদান অনুষ্টানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পেকুয়া উপজেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব এম.দিদারুল করিম, জাপা নেতা হাজি¦ বদিউল আলম, সাবেক মেম্বার প্রবীন জাপা নেতা আহমদ হোসাইন, চকরিয়া জাতীয় শ্রমিক পার্টির সভাপতি নুরুল হোছাইন মনু, সাধারণ সম্পাদক মোঃ রোবেল ও এম.পি’র একান্ত সচিব নাজেম উদ্দিন প্রমূখ।