হাইকোর্টের রায় সংশোধিত দুদক আইন অবৈধ, অসাংবিধানিক

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৩০ জানুয়ারি , ২০১৪ সময় ০৪:৪১ অপরাহ্ণ

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী ও বিচারকদের ‘বিশেষ সুবিধা’ দিয়ে নবম সংসদে পাস করা দুদক আইন (সংশোধিত)-২০১৩ অবৈধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বৃহস্পতিবার এক রুলের শুনানি শেষে বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি এবিএম আলতাফ হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।

গত ২৫ নভেম্বর সংশোধিত দুদক আইনের ৩২(ক) ধারাকে কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিলেন আদালত।

এছাড়াও চার সপ্তাহের মধ্যে জাতীয় সংসদের স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, আইন সচিব, রাষ্ট্রপতি কার্যালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সচিব, সংসদ সচিবালয়ের সচিবসহ সংশ্লিষ্টদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছিল।

বৃহস্পতিবার আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ।

তিনি বলেন, ৩২ (ক) এর মধ্যে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী ও নিম্ন আদালতের বিচারকদের ‘বিশেষ সুবিধা’র কথা উল্লেখ রয়েছে।

এর আগে এ আইন বাতিলে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছিলেন সুপ্রিমকোর্টের আরেক আইনজীবী ড. ইউনুছ আলী আকন্দ।

গত বছরের ১১ নভেম্বর ‘দুর্নীতি দমন কমিশন (সংশোধন) বিল-২০১৩’ সংসদে পাস হয়। এ আইন সংবিধানের ২৭ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। কারণ ২৭ অনুচ্ছেদে আইনের দৃষ্টিতে সবাই সমান বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

দুদক আইন অনুযায়ী সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, বিচারকদের বিরুদ্ধে সরকারের অনুমোদন ছাড়া দুর্নীতির মামলা দায়ের করা যাবে না।

উল্লেখ্য, আগে দুদককে মামলা ও চার্জশিটের ক্ষেত্রে সরকারের অনুমোদন নিতে হতো না। কমিশনের অনুমোদন (দুদকের নির্বাহীদের) নিয়ে দুদক কর্মকর্তারা মামলা করতে পারেন।