হঠাৎ হাতির তাণ্ডব

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৪ জুলাই , ২০১৫ সময় ০৯:৫৫ অপরাহ্ণ

গাজীপুরে রথমেলা সার্কাসের দুটি হাতি আজ শুক্রবার ব্যাপক তাণ্ডব চালিয়েছে। উত্তেজিত হয়ে তারা কয়েকটি যাত্রীবাহী টেম্পো ও লেগুনা ভাঙচুর করেছে। এ সময় একটি হাতি একটি বড় সোলার বিদ্যুতের খুঁটিও হেলিয়ে ফেলে।

হঠাৎ হাতির তাণ্ডবপুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গাজীপুর জেলা শহর জয়দেবপুরে গত শনিবার (১৮ জুলাই) থেকে শ্রীশ্রী মাণিক্যমাধবের রথযাত্রা ও রথমেলা শুরু হয়েছে। রথযাত্রা উপলক্ষে প্রতিবারের মতো এবারের রথমেলায়ও অন্যান্য দোকানপাট ও বিনোদনের পাশাপাশি সার্কাসের আয়োজন করা হয়। আজ শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে গোসল করাতে দি লায়ন সার্কাসের একটি পুরুষ ও একটি নারী হাতিকে পূর্ব চান্দনা এলাকায় নেওয়া হয়। এ সময় হাতিটি হঠাৎ উত্তেজিত হয়ে ওই এলাকায় ধীরাশ্রম-জয়দেবপুর রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীবাহী একটি টেম্পো উল্টে ফেলে দেয়। সেই সঙ্গে লেগুনাসহ তিনটি টেম্পো ভাঙচুর করে। এ সময় হাতির মাহুতসহ আশপাশের লোকজন আতঙ্কিত হয়ে ছোটাছুটি করতে থাকেন।

হঠাৎ হাতির তাণ্ডব1খবর পেয়ে জয়দেবপুর থানা পুলিশ ও সার্কাসের লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে আসে। তারা হাতিটিকে শান্ত করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। একপর্যায়ে স্থানীয় লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে হাতিটিকে ধাওয়া দিলে পাশের সিটি করপোরেশনের গোরস্থানের ভেতরে জঙ্গলে চলে যায়। পরে ঢাকা চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষকে খবর দেওয়া হয়।

খবর পেয়ে চিড়িয়াখানার লোকজন প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি নিয়ে ঘটনাস্থলে আসে এবং দীর্ঘ সময় চেষ্টার পর সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে হাতিকে নিয়ন্ত্রণে এনে ওই জঙ্গল থেকে বের করে আনা হয়। তবে এ ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

লেগুনাচালক তারা মিয়া জানান, তিনি সিটি করপোরেশনের বাসন এলাকা থেকে ছাগল নিয়ে পাশের হাটে আসেন। হাটে ছাগল নামিয়ে লেগুনাটি পানি দিয়ে পরিষ্কারের জন্য ওই স্থানে রাখা হয়েছিল। পরে হাতিটি এ ঘটনা ঘটায়।

দি লায়ন সার্কাসের হাতির পরিচালক (মাহুত) মো. মাসুদ মিয়া জানান, হাতিটিকে গোসল করাতে ওই এলাকায় আনা হয়েছিল। হঠাৎ প্রাকৃতিক কারণে শারীরিক উত্তেজনায় হাতিটি এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

জয়দেবপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবদুল হামিদ জানান, যৌন উত্তেজনার কারণে হাতিটি হঠাৎ উত্তেজিত হয়ে যানবাহন ভাঙচুর করলেও কেউ হতাহত হয়নি।