সড়ক পরিবহন শ্রমিক ঐক্য পরিষদের মানববন্ধন

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১০ জুলাই , ২০১৮ সময় ১০:৫৯ অপরাহ্ণ

২২ জুলাই আহুত শ্রমিক ধর্মঘট প্রত্যাখান করে মেট্রো আরটিসি পুর্ণগঠন ও বিআরটিএ দূর্ণীতিবাজ কর্মকর্তাদের অপসারন করতে হবে।
চট্টগ্রাম অদ্য ১০ জুলাই ১৮ইং মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় পাহাড়তলী থানাধীন অলংকার মোড় পুলিশ বক্সের সামনে বৃহত্তর চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন শ্রমিক ঐক্য পরিষদের পূর্বঘোষিত দ্বারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসাবে অবৈধ পরিবহন শ্রমিক ধর্মঘট প্রত্যাখ্যান করে ধর্মঘট আহ্বানকারি চাঁদাবাজদের আইনের আওতায় এনে গ্রেফতার, চট্টগ্রাম বিআরটিএ বিভাগীয় কার্যলয়ে কর্মরত উপ-পরিচালক শহিদুল্লাহ কায়সার ও সহকারি পরিচালক মেট্রো সার্কেল (১) তৈাহিদুল ইসলামকে অপসারন করে তদন্ত পূর্বক শাস্তির দাবী, জামাত সংশ্লিষ্ট শ্রমিক সংগঠন চট্টগ্রাম ট্রেক্সী-টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়ন ১৪৪১ ও চট্টগ্রাম টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়ন ১৩০৯ এর কার্যক্রমের উপর মহামাণ্য হাইকোটের নিষেধাজ্ঞা আদেশ কার্যকরে চাঁদাবাজী বন্ধ ও চট্টগ্রাম মেট্রো আরটিসি কমিটি পুর্ণগঠনের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপত্বি করেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় ট্যাংকলরী শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যকরী সভাপতি মোঃ আব্দুল মজিদ সভা পরিচালনা করেন বৃহত্তর চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন শ্রমিক ঐক্য পরিষদের যুগ্ম- আহ্বায়ক নজরুল ইসলাম খোকন উক্ত মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় শ্রমিকলীগ পাহাড়তলী শিল্পাঞ্চল শাখার সভাপতি ও শ্রম আদালত সদস্য আলহাজ্ব শফি বাঙ্গালী প্রধান বক্তা ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় ট্যাংকলরী শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ও শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক এম জসিম রানা, বিশেষ বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ আনোয়ার হোসেন বক্তব্য রাখেন বৃহত্তর চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব উজ্জ্বল বিশ্বাস, ওসমান গনি, মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম, মোঃ বেলাল, জামাল মুন্সী, সদস্য ,মোঃ হাশেম, মোঃ ইউসুফ, মোঃ শাহদাত হোসেন, মোঃ মঞ্জুরুল আলম,সুনীল দেবনাথ, হারুনুর রশিদ বাবুল, মোঃ আব্দস সালাম, মোঃ আব্দুল হালিম, মোঃ আমীন, মোঃ সোহেল প্রমুখ। বক্তারা বলেন ২২ জুলাই আহুত শ্রমিক ধর্মঘট আহ্বানের মূল ইন্ধনদাতা বিআরটিএর দুই দূর্ণীতিবাজ কর্মকর্তারা সড়ক পরিবহন আইন, ১৯৮৩ এর ৫১ (১) ও মোটরযান অধ্যাদেশ ৪২ (১) এর বিধানাবলি লঙ্গন করে কতিপয় শ্রমিক নেতার মুখোশধারী চাঁদাবাজদের সাথে সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছে তারা গাড়ীর মালিকদের কাছ থেকে অবৈধ পন্থায় রি-ম্যাক্সিমা গাড়ীর রেজিষ্ট্রেশন দিয়ে কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। রি-ম্যাক্সিমা ৪ আসনের অটোরিক্শাকে ৬ আসনের অটোটেম্পোর পারমিট দিয়ে বৈধতা দিতে সড়ক পরিবহনে নৈরাজ্য সৃষ্টির অপকৌশল হিসাবে শ্রমিক নেতার মুখোশধারী চাঁদাবাজ জামাতীদের ধর্মঘটের ইন্ধনের দায়ে অপসারন করতে হবে। দীর্ঘদিন যাবত শ্রমিকনেতার মুখোশধারন করে মেট্রো আরটিসি কমিটিতে ঘাফটি মেরে বসে থাকা চাঁদাবাজ ও চ্যাসিস ব্যবসায়ীর দালাল সদস্যদের অপসারন করে মেট্রো আরটিসি পুর্ণ গঠনে দাবী জানান। দেশের সর্বোচ্চ আদালতের আদেশে নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকা সত্ত্বেয় জামাত-জঙ্গী নিয়ন্ত্রিত শ্রমিক সংগঠন রেজিঃ ১৪৪১ এর ব্যানারে চান্দগাঁও থানা পুলিশে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সহযোগীতায় কাপ্তাই রাস্তার মাথায়,ডবলমুরিং থানাধীন, আগ্রাবাদ বাদামতল, বড় পোল এলাকায়, সশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনী দ্বারা অবৈধ কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে টোকেন বানিজ্য করে প্রকাশ্যে চাঁদাবাজী ও শ্রমিক নির্যাতন হচ্ছে প্রতিনিয়ত একই কায়দায় চট্টগ্রাম টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়ন রেজিঃ নং ১৩০৯ ব্যানারে জিপিও মোড়, কোতোয়ালী, বাকলিয়া নতুন ব্রীজ এলাকায় অহরহ চাঁদাবাজী শ্রমিক নির্যাতন হচ্ছে অবিলম্বে পুলিশে সহায়তায় চাঁদাবাজী-শ্রমিক নির্যাতন বন্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহনে সিএমপির পুলিশ কমিশনারের হস্তক্ষেপ কামনা করে চাঁদাবাজদের দ্রুত গ্রেফতারের জোর দাবী জানান। বক্তারা আহুত এই শ্রমিক ধর্মঘট আগামী জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বৃহত্তর চট্টগ্রামকে অস্থিতিশীল করে সরকার বিরোধী বিশেষ কারো এজেন্ডা বাস্তাবায়নে উদ্যোগী হয়েছেন বলে দাবী করে বলেন ধর্মঘট আহ্বানকারীদের আইনের আওতায় এনে তাদের মুখোশ উম্মোচন করতে হবে নেতৃবৃন্দরা। আগামী ১১ই জুলাই নগরীর ইপিজেড থানাধীন বে-শপিং এর সামনে একই দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল সফল করতে ঐক্য পরিষদ এর সদস্যভুক্ত সংগঠনের সকল নেতা-কর্মীদের যথা সময়ে উপস্থিত থাকার অনুরোধ জানান।