স্যানিটেশন মাস এবং বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস উদযাপন

প্রকাশ:| সোমবার, ১২ অক্টোবর , ২০১৫ সময় ১০:০৯ অপরাহ্ণ

স্যানিটেশন মাস
অদ্য ১২ অক্টোবর সোমবার বিভাগীয় কমিশনার অফিস-চট্টগ্রাম এবং জনস্বাস্থ্য ও প্রকৌশল অধিদপ্তর-চট্টগ্রাম এর উদ্যোগে এবং ব্র্যাক-ওয়াশ কর্মসূচির সার্বিক সহায়তায় এবং অন্যান্য বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থার সহযোগিতায় চট্টগ্রামে বিভাগীয় পর্যায়ে জাতীয় স্যানিটেশন মাস অক্টোবর-২০১৫ এবং বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস-২০১৫ উদযাপন করা হয়। এ উপলক্ষে বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ আব্দুললাহ এর নেতৃত্বে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি নগরীর ডিসি হিল প্রাঙ্গন থেকে যাত্রা শুরু করে সার্কিট হাউজে গিয়ে শেষ হয়।
র‌্যালী শেষে ব্র্যাক-ওয়াশ কর্মসূচি কর্তৃক আয়োজিত হাত ধোয়া প্রর্দশনীর কার্যক্রম উ™ে¡াধন করেন বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ আব্দুললাহ। ব্র্যাক-ওয়াশ কর্মসূচির একজন কর্মী এবং একজন স্কুল ছাত্রী উক্ত হাত ধোয়া কার্যক্রম প্রদর্শন করে দেখান।
শেষে বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ আব্দুললাহ-এর সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুিষ্ঠত হয়। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী শফিউল আলম, জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন, স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক দীপক চক্রবর্তী।
স্বাগত বক্তব্য দেন জনস্বাস্থ্য ও প্রকৌশল অধিদ্প্তর-চট্টগ্রামের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী বজলুল হক। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজ- চট্টগ্রামের সহযোগী অধ্যাপক মুহাম্মদ ইদ্রিস আলী। ব্র্যাক-ওয়াশ কর্মসূচির কার্যক্রম তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন ঢাকা প্রধান কার্যালয় ব্র্যাক-ওয়াশ কর্মসূচির ডিভিশনাল ম্যানেজার মোঃ ফারুক হোসেন খান। এছাড়া সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইসলামিক ফাউন্ডেশন-চট্টগ্রাম এর পরিচালক আবুল হায়াত মোঃ তারেক, ব্র্যাক-ওয়াশ কর্মসূচির জেলা ম্যানেজার সুরাইয়া বেগম, জেলা ব্র্যাক প্রতিনিধি মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম মজুমদার, এস কফিল এবং ওর্য়াল্ড ভিশন, দু:স্থ স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও অপকা এর প্রতিনিধিবৃন্দ।
বক্তাগণ উন্নত স্যানিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন। উন্নত স্যানিটেশন এর বৈশিষ্ট হল, ওয়াটার সিল থাকতে হবে, র্দূগন্ধ ছড়াবে না এবং মশা মাছি টয়লেটের ভিতরে যেতে পারবে ন্ াএমন স্যানিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা।
জেলা প্রশাসক ব্র্যাকের স্কুল স্যানিটেশেনের প্রসংশা করেন। তিনি বলেন সরকার ও বেসরকারী সংস্থাগুলো মিলে একসঙ্গে কাজ করার কারনে বর্তমান সরকার এমডিজি অর্জনে সফল হয়েছে। ভবিষ্যতেও এসডিজি অর্জন এর ক্ষেত্রে সকলকে এক সঙ্গে কাজ করার প্রতি তিনি গুরুত্বারোপ করেন।
সভায় বিভাগীয় কমিশনার বলেন আমরা পর্যায় ক্রমে উন্নয়ন এর দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। বর্তমানে ৯৯ শতাংশ লোক স্যানিটেশেন ব্যবস্থার আওতায় রয়েছে। যদিও এটি কিছু কম বেশি হতে পারে। তিনি বলেন, দক্ষিন এশিয়ার অন্যান্য দেশের থেকে এক্ষেত্রে আমরা অনেক বেশি এগিয়ে। পর্যায় ক্রমে উন্নত স্যানিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্য সরকার এনজিওদের নিয়ে কাজ করে যাবে।
সভায় চসিক এর প্রধান নির্বাহী তাঁর বক্তৃতায় বলেন, জলাবদ্ধতা ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সিটি কর্পোরেশন এর দুটি বড় কাজ। তিনি নালা ও নর্দমা পরিস্কার রাখার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন এবং সবাইকে এ ব্যাপারে সহযোগীতার জন্য অনুরোধ করেন। তিনি সকলকে পরিবার ছোট রাখার পাশাপাশি পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা বিষয়ে সচেতন হওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।
সভায় পরিচালক স্থানীয় সরকার ব্র্যাক ওয়াশ কর্মসূচীর কার্যক্রমের ভূয়সি প্রশংসা করেন এবং এ অর্জন ধরে রাখার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন।
এছাড়া সভায় অন্যান্য সরকারী কর্মকর্তা, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিক, শিক্ষক, ব্র্যাক এর আঞ্চলিক ও জেলা পর্যায়ের বিভিন্ন কর্মর্কতাগণ উপস্থিত ছিলেন।