স্বৈরচার থেকে দেশকে বাঁচাতে কমলা লেবুতে ভোট দিন-অলি

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ২৩ এপ্রিল , ২০১৫ সময় ০৯:০৭ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামে ২০ দলীয় জোট সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মনজুর আলমের পক্ষে প্রথমবারের প্রচারণায় নেমে ‘কমলা লেবু’ প্রতীকে ভোট চেয়েছেন ২০ দলের অন্যতম নেতা ও এলডিপি’র চেয়ারম্যান কর্ণেল (অব.) অলি আহম্মদ।
অলি
বৃহস্পতিবার নগরীর পাঁচলাইশ ওয়ার্ডে গণসংযোগকালে অলি আহম্মদ বলেন, ‘দেশে এখন গণতন্ত্রের বদলে স্বৈরতন্ত্র চলছে। দেশের মানুষ নিরাপত্তাহীনতায় দিনাতিপাত করছে। স্বৈরচারের হাত থেকে দেশকে বাঁচাতে হলে আগামী ২৮ এপ্রিল কমলা লেবু মার্কায় ভোট দিয়ে মনজুর আলমকে বিজয়ী করতে হবে।’

মনজুরকে পাশে নিয়ে তিনি বলেন, ‘ভোট একটি আমানত। ভোটাররা উপযুক্ত প্রার্থী দেখে তাদের আমানত প্রদান করবে।’

সাবেক এ মন্ত্রী বলেন, ‘সরকার দলীয় ক্যাডাররা ইতিমধ্যে বিভিন্ন এলাকায় অস্ত্রের মহড়া দিচ্ছে। সেনাবাহিনী মোতায়েন না করলে নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন সম্ভব হবেনা। সরকার ভোটারদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হলে এলডিপিসহ ২০ দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা যে কোন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড প্রতিরোধ করবে।’

অলি আহম্মদ বলেন, ‘দেশ আজ রসাতলে গেছে। খুন, গুম, দুর্নীতি-দু:শাসনে মানুষের জীবনে নাভিশ্বাস উঠেছে। জীবনের নিরাপত্তা নেই, অন্যায়-জুলুমের বিচার নেই, মানুষের কথা বলার, প্রতিবাদ করার অধিকার কেড়ে নেয়া হয়েছে।’

চট্টগ্রাম থেকে মুক্তিযুদ্ধের সুচনা হয়েছিল উল্লেখ করে অলি আহম্মদ বলেন, ‘২৮ এপ্রিল চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মনজুর আলমকে বিজয়ী করার মাধ্যম স্বৈরাচারী সরকারের পতন আন্দোলনের নতুন অধ্যায় শুরু হবে।’

গণসংযোগকালে মনজুর আলম বলেন, ‘গত নির্বাচনে জনগন আমাকে বাক্স ভরে ভোট দিয়েছেন। গত সাড়ে চার বছরে নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ হয়েছে।’

তিনি তাঁর গতবারের দেয়া প্রতিশ্রুতির অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করতে তাঁকে আরেকবার নির্বাচিত করার আহবান জানান।

সকালে নগরীর ৩ নং পাঁচলাইশ ওয়ার্ডে অনুষ্ঠিত সংক্ষিপ্ত সমাবেশ শেষে আতুরার ডিপো, জাংগাল পাড়া,হাজি পাড়া, চালিতাতলী, ওয়াজেদিয়া মাদ্রাসা এলাকা, নয়াহাট, অনন্যা আবাসিক এলাকা, কুয়াইশ রোড এলাকায় গণসংযোগ করেন।

গণসংযোগকালে মহানগর বিএনপি নেতা মোর্শেদুল আলম কাদেরী, বায়েজিদ থানা বিএনপি নেতা সামশুল আলম, গাজী মো. আইয়ুব খান, মো.ইলিয়াছ, আবুল কালাম আবু, ইদ্রিস আলী, আবদুল কাদের, নাছিমা আলম, ইসমাইল বালি, হাজ্বী মো. হোসেন, মাহবুবুল আলম, মো. মহিউদ্দিন জুয়েল, জসিম উদ্দিন, মো. ইউছুফ আনিছুর রহমান বাবুল, জসিম উদ্দিন যুবদল নেতা বখতেয়ার আলম, আ জ ম নাজের, ছাত্রদল নেতা তৈয়ব রানা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।