স্বামীর নির্যাতনে স্ত্রীর আত্মহত্যা

প্রকাশ:| বুধবার, ২৫ সেপ্টেম্বর , ২০১৩ সময় ১১:৪৯ অপরাহ্ণ

বিষপান করে আত্মহত্যাহাটহাজারীতে স্বামীর অত্যাচার সইতে না পেরে ঝিনুক আক্তার(২৫) নামে এক সন্তানসম্ভবা মহিলা বিষপান করে আত্মহত্যা করেছে। বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের চারিয়া তালুকদার পাড়ার দেলোয়ার হোসেনর বাড়ীতে এ ঘটনাটি ঘটেছে। আত্মহননকারী ঝিনুক উক্ত বাড়ীর আবদুর সবুরের স্ত্রী বলে জানা গেছে। ঘটনার পর থেকে স্বামী পলাতক রয়েছে।

জানা যায়,দীর্ঘদিন পর্যন্ত আবদুর সবুর যৌতুকের টাকার জন্য ঝিনুককে মারধর করে আসছিল। সে অনেকবার ঝিনুককে টাকার জন্য বাপের বাড়ীতেও পাঠিয়ে দিয়েছিল। বুধবার সকালেও সে যৌতুকের জন্য আমার বোনকে শারীরিক নির্যাতন করে। এক পর্যায়ে নির্যাতন সইতে না পেরে ঝিনুক বিষ খেয়ে আত্ম হত্যা করেছে ।

তবে আত্মহননকারী ঝিনুকের ভাই মো.আলমগীর সাংবাদিকদের জানান আমার বোন আত্মহত্যা করতে পারে না। বোনের পাশের ঘরের এক মহিলা বলেছে যে আমার বোনকে জোর করে বিষ খাইয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। আলমগীর আরো বলেন,লোক দেখানোর জন্য আমার বোনের লাশ চমেক হাসপাতালে রেখে তারা পালিয়েছে। ১২ বছর পূর্বে সবুরের সাথে আমার বোনের বিয়ে হয়। বোনের স্বামী তাকে সব সময় নির্যাতন করত।

এ ব্যাপারে মির্জাপুর ইউপি সদস্য মো.ইয়াকুব বলেন,ঝিনুকের দুইটি সন্তান রয়েছে। তাছাড়া ঝিনুক আট মাসের অন্তঃস্বর্ত্তা। আবদুর সবুর প্রায় সময় তার স্ত্রীকে নির্যাতন করত। ঝিনুক এ ব্যাপারে অনেকবার আমাকে মৌখিক অভিযোগও করেছে।

ঝিনুকের বাপের বাড়ী ফটিকছড়ির আমতল কবলাটিলায় বলে জানা গেছে। তার পিতার নাম মফজল আহমদ।


আরোও সংবাদ