স্বামীকে হত্যার পর স্ত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর , ২০১৩ সময় ০৫:৩৬ অপরাহ্ণ

বাগেরহাটের রামপালে শেখ সিরাজুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তিকে হত্যা করে তাঁর স্ত্রী কেরোসিন খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। আজ শুক্রবার ভোরে রামপাল উপজেলার পেড়িখালী ইউনিয়নের সিকিরডাঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে নিহত সিরাজুলের স্ত্রী অসুস্থ হালিমা বেগমকে (৩২) রামপাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

নিহত সিরাজুলের ১২ বছর বয়সী ছেলে সোহেল জানায়, তার বাবা দিনমজুরের কাজ করে সংসারের খরচ চালাতেন। কিন্তু তা দিয়ে ভালোভাবে চলত না। এ নিয়ে বাবা-মায়ের সব সময় ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকত। শুক্রবার ভোরে মসজিদ থেকে নামাজ পড়ে বাড়ি ফিরে সে বাবার জবাই করা লাশ বিছানায় পড়ে থাকতে দেখে।

রামপাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী দাউদ হোসেন সকালে মুঠোফোনে ঘটনাস্থল থেকে এই প্রতিবেদককে বলেন, সোহেল ফজরের নামাজ পড়তে বাড়ির পাশে মসজিদে গেলে ভোর ছয়টার দিকে ঘুম থেকে উঠে হালিমা বেগম তাঁর চার বছর বয়সী মেয়ে জান্নাতকে ঘরের বারান্দায় ভাত খেতে দেন। এরপর তিনি রান্নাঘর থেকে ধারালো বঁটি এনে ঘুমন্ত স্বামী সিরাজুলকে জবাই করে হত্যা করে নিজেও কেরোসিন খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান। এর কিছুক্ষণ পরে ছেলে মসজিদ থেকে বাড়ি ফিরে বাবার লাশ দেখে প্রতিবেশীদের খবর দেয়। পরে গ্রামের লোকজনের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে এবং তাঁর স্ত্রীকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে রামপাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

ওসি আরও জানান, ‘হত্যাকাণ্ডে ব্যবহূত ধারালো বঁটি উদ্ধার করা হয়েছে। পারিবারিক কলহের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি।’