স্ত্রীর তলপেটে লাথি, গর্ভের সন্তান নষ্ট, স্বামী কারাগারে

প্রকাশ:| সোমবার, ৩০ নভেম্বর , ২০১৫ সময় ০৯:৩২ অপরাহ্ণ

নারী নির্যাতনডেনমার্কভিত্তিক বহুজাতিক কোম্পানির কর্মকর্তা রাজেশ সিংহ (৩৩)। উচ্চশিক্ষিত রাজেশ সিংহের সঙ্গে গত বছরের ২১ জানুয়ারি বিয়ে হয় এনায়েতবাজার গোয়ালপাড়াএলাকার রতন ঘোষের মেয়ে শ্রাবণী ঘোষ প্রকাশ সঙ্গীতার (২৬)। শ্রাবণীও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজতত্ত্বে মাস্টার্স পাশ।

বিয়ের পর থেকে শ্রাবণীর বাবার কাছে ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে আসছিল উচ্চশিক্ষিত রাজেশ সিংহ। এক পর্যায়ে শুরু হয় শারীরিক নির্যাতন। চলতি বছরের ৪ জুন স্ত্রীর তলপেটে লাথি মেরে তার গর্ভের সন্তান নষ্ট করে দেন রাজেশ। শ্রাবণী সুস্থ হওয়ার পর ১৬ সেপ্টেম্বর আদালতে মামলা দায়ের করেন।

ওই মামলায় সোমবার (৩০ নভেম্বর) রাজেশ চট্টগ্রামের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এ আত্মসমর্পণ করলে বিচারক মো.রেজাউল করিম চৌধুরী তাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন। তবে একই মামলায় আসামি হিসেবে থাকা রাজেশের বাবা-মা ও দুই ভাইকে জামিন দিয়েছেন আদ‍ালত।

রাজেশ সিংহ ডেনমার্কভিত্তিক অ্যাটেক্স ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি বহুজাতিক কোম্পানির উচ্চ পদে কর্মরত আছেন।

মামলার বাদিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী বলেন, স্বামী-স্ত্রী দু’জনই উচ্চশিক্ষিত। স্বামী স্ত্রীর তলপেটে লাথি মেরে তার দুই মাসের গর্ভের বাচ্চা নষ্ট করে দিয়েছে। বিচার বিভাগীয় তদন্তে বিষয়টির সত্যতা পাওয়া গেছে। উচ্চশিক্ষিত একজন মানুষের কাছ থেকে এ ধরনের অমানবিক আচরণ দু:খজনক।

মামলা দায়েরের পর ট্রাইব্যুনাল বিচার বিভাগীয় তদন্তের জন্য মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আব্দুল কাদেরকে নির্দেশ দিয়েছিলেন। ১০ নভেম্বর তিনি ট্রাইব্যুনালে প্রতিবেদন দাখিল করেন। এতে রাজেশ সিংহসহ সব আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে বলে উল্লেখ করা হয়।


আরোও সংবাদ