দেশের মাটিতে চির নিদ্রায় সোলাইমান

প্রকাশ:| রবিবার, ২৬ জুলাই , ২০১৫ সময় ০৯:৪০ অপরাহ্ণ

10887208_418554911626708_2936019769752248376_oইউএইতে মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত বাংলাদেশী তরুণ সোলাইমান এর মরদেহ রাতে চট্টগ্রামে পৌছায়। সোমবার সকাল ৯টা৩০ মিনিটে তার জানাজা ও দাফন সম্পন্ন হয় ।

ইগত ১৯শে জুলাই সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাস আল খাইমার এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত বাংলাদেশী তরুন মোহাম্মদ সোলায়মান(২৮) এর আগে লাশবাহি বিমানটি রোববার দুপুরে দেশে পৌছালেও বিরুপ আবহাওয়ার কারণে চট্টগ্রমে অবতরণ করতে না পেরে ঢাকায় ফিরে যায়। যা রোববার সন্ধ্যা ৭.৩০ মিনিটে চট্রগ্রাম বিমান বন্দরে অবতরণ করে।

উল্লেখ করা যেতে পারে চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার মির্জাপুর গ্রামে মুহুরীহাট বটতল নিবাসী মোহাম্মদ হাফেজ এর তৃতীয় পুত্র ছিলেন সোলাইমান।পারিবারিক সূত্র ও প্রবাসীদের বর্ননা মতে ১৯শে জুলাই আনুমানিক সময় বিকেল ৫টা নাগাদ শেষবারের মতো বাড়িতে ফোনে যোগাযোগ করে সোলেমান। সন্ধ্যা ৬টার পর চাচাতো ভাইয়ের বাসায় যাবার উদ্দেশ্যে বের হয়ে রাস আল খাইমার মহাসড়কে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি ট্রেলারে ধাক্কা দেয় তার গাড়ি। সোলেমানের জিপ গাড়িটি নিয়ন্ত্রন হারানোর কারণ জানা না গেলেও ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে ইউএই পুলিশ এসে তার লাশ ও দুমড়ে মুচড়ে যাওয়া গাড়ি তাদের হেফাজতে নিয়ে যায়।

পারিবারিক সূত্র দাবি করে সমস্ত পক্রিয়া চুকিয়ে তার লাশ দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করতে গিয়ে বিপাকে পড়তে হয়েছে স্বজনদের। ২২ তারিখের মধ্যে সকল কার্যাদি সম্পন্ন হলেও টিকেট দিতে গড়িমসি করেছে এজেন্সি। এর পরও ঝক্কিঝামেলা শেষ করে লাশ বিমানে চট্টগ্রাম আসে রোববার সন্ধ্যা ৭.৩০ মিনিটে। রোববার বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টা নাগাদ সোলায়মানের লাশ বাড়িতে এসে পৌঁছানোর কথা থাকলেও বিরুপ আবহাওয়ার কারণে চট্টগ্রমে বিমানটি অবতরণ করতে না পেরে ঢাকায় ফিরে যায়।

মুহুরীহাট ঈদগাহ ময়দানে সোমবার সকাল ৯টা৩০মিনিটে মরহুম সোলায়মানের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয় এর পর তাকে স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করা হয়।

আমরা (নিউজচিটাগাং পরিবার) তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। প্রার্থনা করি আল্লাহ্‌ যেন তাকে জান্নত নসীব করেন এবং পরিবারকে শোক কাটিয়ে উঠার তৌফীক দেন-আমীন।