সেবা ও দায়িত্ব একটি পবিত্র আমানত

প্রকাশ:| সোমবার, ২৪ নভেম্বর , ২০১৪ সময় ০৬:২০ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব মোহাম্মদ মনজুর আলম বলেছেন, নগরবাসীকে দেয়া ওয়াদার আলোকে সিটি কর্পোরেশনকে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহীতার ভিত্তিতে পরিচালনা করা হচ্ছে। তিনি বলেন, বিগত ৪ বছরে নগরীর ১৮নং পূর্ব বাকলিয়া ওয়ার্ডে ১১ কোটি টাকা ব্যয়ে ৬৮টি উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে। তিনি বলেন, সুধি সমাবেশে উন্নয়ন প্রতিবেদন বই আকারে এবং ভিডিও ডকুমেন্ট প্রদর্শনের মধ্য দিয়ে স্বচ্ছতার নিদর্শন উপস্থাপন করা হয়েছে।

মেয়র বলেন, নগরবাসীর দেয় হোল্ডিং ট্যাক্স, থোক, রাজস্ব, এডিপিসহ উন্নয়ন সহযোগীদের দেয় অর্থের ব্যবহারে জবাবদিহীতার অংশ হিসেবে এ প্রয়াস। তিনি বলেন, নগরবাসী ভোট দিয়ে সেবার দায়িত্ব দিয়েছে। সেবা ও দায়িত্ব একটি পবিত্র আমানত। ঘরে ঘরে স্বচ্ছতার ভিত্তিতে সেবা পৌছে দেয়াটাই আমার লক্ষ্য। জনাব মনজুর আলম বলেন, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টুনীর আওতায় নগর দারিদ্র হৃাসকরণ কর্মসূচির মাধ্যমে নগরীতে প্রায় ৪৪ কোটি টাকার কর্মকান্ড পরিচালিত হয়েছে।

মেয়র বলেন, পানির চাহিদার জন্য ডিবটিউবওয়েল স্থাপন, স্বাস্থ্য সম্মত ল্যাট্রিন, মসজিদ, মন্দির, কবরস্থান, শ্মশান নির্মাণ করে ধর্মীয় সম্প্রদায় সমূহের চাহিদা পূরণ করা হচ্ছে। তিনি বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কার্যক্রমের স্বচ্ছতার কারণে টক অওউ, টঘউচ, মেরিষ্ট্রোপস, ঈউগচ সহ নানা ধরনের সহযোগী সংস্থা তাদের সাহায্যের হাত প্রসারিত করেছে। মেয়র বলেন, অবহেলিত বাকলিয়াবাসীর যোগাযোগের সমস্যা ধীরে ধীরে সমাধান হতে চলেছে। তিনি বলেন, বাকলিয়াবাসী সন্তানদের উচ্চ শিক্ষার সুবিধার্থে পূর্ব বাকলিয়া সিটি কর্পোরেশন বালিকা স্কুলকে কলেজে উন্নিত করা হয়েছে। মেয়র বলেন, অত্র ওয়ার্ডে সিটি কর্পোরেশন বালক ও বালিকাদের জন্য পৃথক ২টি স্কুল প্রতিষ্ঠা করেছে। তিনি বাকলিয়াবাসীর সহযোগিতা কামনা করে বলেন, বাকলিয়ায় প্রতিষ্ঠিত ষ্টেডিয়াম সকলের নিকট প্রশংসিত হয়েছে। মেয়র ও কাউন্সিলর নির্বাচনের ৪ বছর পূর্তি উপলক্ষে ১৮নং পূর্ব বাকলিয়া ওয়ার্ডস্থ পূর্ব বাকলিয়া সিটি কর্পোরেশন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত সুধি সমাবেশে প্রধান অতিথির ভাষনে সিটি মেয়র এ সব কথা বলেন।
সুধি সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ তৈয়ব। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংরক্ষিত ১৭, ১৮ ও ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিসেস শাহেদা কাসেম সাথী। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মেয়রের একান্ত সচিব আলহাজ্ব মোহাম্মদ মনজুরুল ইসলাম, প্রকৌশলী আবু ছালেহ, চেম্বার পরিচালক সৈয়দ ছগির আহমেদ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইউচুপ, সমাজসেবক আলহাজ্ব মোহাম্মদ সৈয়দ, বিশিষ্ট রাজনৈতিক নেতা হাজী মোহাম্মদ ইউচুপ, আহমদ ইলিয়াস, আলহাজ্ব মোহাম্মদ বাদশা, হাজী আবু তৈয়ব বাবু ও মো. মহিউদ্দিন।