সেনাবাহিনীকে শক্তিশালী করতে সরকার অঙ্গীকারবদ্ধ -রাষ্ট্রপতি

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২৪ ডিসেম্বর , ২০১৩ সময় ০৮:০২ অপরাহ্ণ

‘একটি স্বাধীন দেশের জন্য সামরিক বাহিনীর গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম এবং সরকার একটি শক্তিশালী সামরিক বাহিনী গঠন করতে জাতির কাছে অঙ্গীকারবদ্ধ।’ এমন কথা বলেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ অ্যাডভোকট।

মঙ্গলবার সকালে চট্টগ্রামে বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমী বিএমএতে ৬৯তম বিএমএ লংকোর্স এবং ৪০তম বিএমএ স্পেশাল কোর্স ও বিএমএ স্পেশাল প্যালেস্টাইন শর্টকোর্সে ক্যাডেটদের কমিশন প্রাপ্তী উপলক্ষে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘কমিশনপ্রাপ্ত নবীন অফিসাররা নিঃস্বার্থভাবে দেশ ও জাতির সেবা করার ক্ষেত্রে কখনো পিছপা হবে না বলে আশা করি। দেশের ক্রান্তিলগ্নে এবং বিদেশে শান্তিরক্ষায় দায়িত্ব পালন করে ইতোমধ্যে সেনাবাহিনী যে সুনাম অর্জন করেছে নবীন অফিসারদের যোগ্যতায় তা আরো বৃদ্ধি পাবে।’

কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে ৩০ জন প্যালেস্টাইনি ক্যাডেট এবং একজন নেপালি ক্যাডেটসহ মোট ১৫৮জন ক্যাডেট নিজ নিজ দেশের সেনাবাহিনীতে কমিশন লাভ করেন।

এর আগে সকালে রাষ্ট্রপতি বিএমএ প্যারেড গ্রাউন্ডে পৌঁছালে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ইকবাল করিম ভূঁইয়া এবং ২৪পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল সাব্বির আহমদ তাকে স্বাগত জানান। রাষ্ট্রপতি ক্যাডেটদের মনোজ্ঞ কুচাকাওয়াজ পরিদর্শন ও অভিবাদন গ্রহণ করেন।

এসময় রাষ্ট্রপতির উপস্থিতিতে ক্যাডেটরা নিজেদের জীবন বাজি রেখে দেশ রক্ষার শপথ নেন।

৬৯তম বিএমএর দীর্ঘমেয়াদি কোর্সে ব্যাটেলিয়ান সিনিয়র আন্ডার অফিসার মোহাম্মদ খোরশেদ হাসান সোর্ড অব অনার এবং রাষ্ট্রপতি স্বর্ণপদক অর্জন করেন।

কুচকাওয়াজ শেষে নবীন অফিসারদের র‌্যাংক- ব্যাজ পরিয়ে দেন তাদের পিতা-মাতা ও অভিভাবকরা।