সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন নগরী রাখা সকল দায়ভার পরিচ্ছন্ন বিভাগের

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৪ জুলাই , ২০১৭ সময় ০৭:২১ অপরাহ্ণ

জাতীয় নগরদারিদ্র হ্রাসকরণ কর্মসূচি বাস্তাবয়ন উপলক্ষে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এলাকায় দরিদ্র বসতি চিহ্নিতকরণ কর্মসূচির ফলাফল উপস্থাপন ও পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত

জাতীয় নগরদারিদ্র হ্রাসকরণ কর্মসূচি বাস্তাবয়ন উপলক্ষে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এলাকায় দরিদ্র বসতি চিহ্নিতকরণ কর্মসূচির জরিপ ফলাফল উপস্থাপন ও পরামর্শ সভা ৪ জুলাই মঙ্গলবার সকালে নগরভবনের কে বি আবদুচ ছত্তার মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন প্রধান অতিথি ছিলেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সচিব মো. আবুল হোসেন। সভায় নগরদরিদ্র বসতি মিটিং বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য উপাত্ত তুলে ধরেন জিআইএস এবং ডাটাবেইজ অফিসার আবুল বশর। দরিদ্র বসতি ম্যাপিং কার্যক্রম প্রক্রিয়া এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ভূমিকা উপস্থাপন করেন টিম লিডার ছালেহা আক্তার। স্বাগত বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ স্থপতি এ কে এম রেজাউল করিম। এনইউপিআরপিএ’র টাউন ম্যানেজার ড. সোহেল ইকবাল জাতীয় নগরদারিদ্র হ্রাসকরণ কর্মসূচি বিষয়ে বিশদ ব্যাখ্যা উপস্থাপন করেন। পবিত্র কোরআন থেকে তেলোয়াত করেন মাওলানা হারুন উর রশিদ। ফলাফল উপস্থাপন ও পরামর্শ সভায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলরবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন । সভায় উপস্থাপিত দরিদ্র বসতি চিহ্নিতকরণ কর্মসূচির ফলাফল যাচাই-বাছায়ের জন্য কাউন্সিরদের ১ সপ্তাহ সময় দেয়া হয়। এ সময়ের মধ্যে সুপারিশকৃত প্রস্তাবনাসমূহ পরবর্তী সভায় যাচাই-বাছাই পূর্বক পেশকৃত জরিপ ফলাফল চূড়ান্ত করে জাতীয় নগরদরিদ্র হ্রাসকরণ কর্মসূচির বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন বিভাগের কর্মকর্তা, তত্ত্বাবধায়ক, পরিদর্শক, সুপারভাইজার ও দলপতিদের সমন্বয় সভায় সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ সিটি মেয়রের

মঙ্গলবার বিকেলে নগরভবনে কে বি আবদুচ ছত্তার মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন বিভাগের কর্মকর্তা, তত্ত্বাবধায়ক, পরিদর্শক, সুপারভাইজার ও দলপতিদের সমন্বয় সভায় সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দিলেন সিটি মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন। তিনি বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সুনাম ও সুখ্যাতি পরিচ্ছন্ন বিভাগের কর্মকান্ডের উপর নির্ভর করে। নালা-নর্দমা সচল রাখা, নিয়মিত আবর্জনা অপসারন, সড়ক সমূহ পরিচ্ছন্ন রাখা সর্বোপরি পরিবেশবান্ধব স্বাস্থ্য সম্মত নগরী পরিচ্ছন্ন বিভাগের কার্যক্রমের উপর নির্ভর করে। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন পরিচ্ছন্ন বিভাগের কাজের সুবিধার্থে জনবল, যন্ত্রপাতি সহ যাবতীয় সহায়ক উপকরন নিশ্চিত করার পরও কাংখিত সুফল নগরবাসী উপভোগ করতে না পারার কোন কারণ নেই। সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন নগরী রাখা সকল দায়ভার পরিচ্ছন্ন বিভাগের। এ ক্ষেত্রে কাউকে ছাড় দেয়ার কোন সুযোগ নেই। আবর্জনা অপসারন সহ পরিচ্ছন্ন বিভাগের যাবতীয় কর্মকান্ডের দায়িত্ব যাদের উপর তাদের কর্মকান্ডে কোন ধরনের অবহেলা, গাফিলতি ও অনিয়ম পরিলক্ষিত হলে সংশ্লিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে শাস্তির আওতায় এনে চাকুরীচ্যুত সহ কঠোর শাস্তির প্রত্যয় ব্যক্ত করেন মেয়র। এ ক্ষেত্রে কোন অজুহাত, আপত্তি ও সুপারিশ কার্যকরি হবে না । মেয়র বলেন, জনগনের কাছে দেয়া সকল ওয়াদা তিনি বাস্তবায়ন করবেন। মেয়র আশা করেন, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বেতনভুক্ত কর্মচারী হিসেবে শ্রেণী নির্বিশেষে সকলকে সততা ও নিষ্ঠার সাথে নিজ নিজ দায়িত্ব সুষ্ঠ ও সুচারুরূপে সম্পাদন করতে হবে। তিনি বলেন, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করা হবে। বিনিময়ে সকলকে স্ব স্ব দায়িত্ব পালনে আন্তরিক হতে হবে। সমন্বয় সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ শফিকুল মন্নান সিদ্দিকী। সভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্ণেল মহিউদ্দিন আহমেদ ও পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোরশেদ আকতার চৌধুরী সহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


আরোও সংবাদ