সিপিএ’র ভোট, সংসদের প্রতি আস্থার প্রতিফলন-স্পিকার

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২১ অক্টোবর , ২০১৪ সময় ১১:৪৬ অপরাহ্ণ

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি অ্যাসোসিয়েশনে (সিপিএ)-এ চেয়ারপারসন বাংলাদেশ থেকে নির্বাচিত করার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় বাংলাদেশের সংসদের প্রতি আস্থার প্রতিফলন ঘটিয়েছে। সিপিএ চেয়ারপারসন নির্বাচিত হওয়ার পর মঙ্গলবার ঢাকা ফিরে বিমানবন্দরে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি। বিমানবন্দরে তাকে লালগালিচায় অভ্যর্থনা ও ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, ডেপুটি স্পিকার এডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া, চিফ হুইপ, হুইপবৃন্দ ও এমপি এবং সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তারা। স্পিকার বলেন, বর্তমান জাতীয় সংসদের প্রতি অন্যান্য দেশগুলোর আস্থা রয়েছে। যে কারণে কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি এসোসিয়েশন (সিপিএ) ও ইন্টার-পার্লামেন্টারি ইউনিয়নের (আইপিইউ) মতো দু’টি আন্তর্জাতিক সংস্থায় বাংলাদেশের প্রতিনিধির জয়লাভ করা সম্ভব হয়েছে। তারসঙ্গে একমত প্রকাশ করেন আইপিইউ’র নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ও সরকার দলীয় এমপি সাবের হোসেন চৌধুরী। সংবাদ সম্মেলনে স্পিকার বলেন, দু’টি আন্তর্জাতিক সংস্থায় এক সপ্তাহের ব্যবধানে বিজয় একটি বিরাট অর্জন ও বিরল গৌরবের। এটা সংসদীয় গণতন্ত্রের চলমান বিজয়। সংসদীয় গণতন্ত্রের বিজয়। এই বিজয় বাংলাদেশের জন্য নতুন সুযোগ ও সম্ভাবনার দুয়ার খুলে দিয়েছে। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ৫ জানুয়ারি নির্বাচন নিয়ে কোনো সঙ্কট আছে বলে মনে করি না। যদি থাকতো তাহলে আন্তর্জাতিক দু’টি পার্লামেন্টারি ফোরামে বাংলাদেশ বিজয় অর্জন করতে পারত না। সিপিএ এবং আইপিইউ পদে বিজয় অর্জন বিশ্বের বুকে বাংলাদেশ নজির স্থাপন করেছে দাবি করে তিনি বলেন, এ সংসদ বাংলাদেশের জনগণের প্রতিনিধিত্ব করে। বর্তমান সংসদের প্রতি বিশ্ব নেতারাও আস্থাশীল। তিনি আরো বলেন, এদু’টি বিজয়কে খ-িত করে না দেখার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি। এটি বাংলাদেশের জনগণ, সংস্কৃতি ও গণতন্ত্রের বিজয়। আইপিইউ প্রেসিডেন্ট সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, সরাসরি গোপন ভোটের মাধ্যমে এভাবে পর পর দুটি আন্তর্জাতিক পার্লামেন্টারি ফোরামের প্রধান নির্বাচিত হওয়া ছিলো বড় অর্জন। আমরা ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত হয়ে এসেছি। প্রধানমন্ত্রীর দূঢ় নেতৃত্বের কারণে এটা সম্ভব হয়েছে। আমাদের আত্মবিশ্বাস ছিল বলে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে পেরেছি উল্লেখ করে তিনি বলেন, বর্তমানে বিশ্বের ১৯২টি দেশে নির্বাচিত সংসদ চালু আছে। এর মধ্যে ১৮৫টি দেশই আইপিইউ ও সিপিইউরে সদস্য। বাংলাদেশ এখন এ দেশগুলোর নেতৃত্ব দিচ্ছে। এখান থেকে ১০ বছর আগেও যেটা কল্পনা করা যেতো না এখন সেটা বাস্তব।


আরোও সংবাদ