সিটি গভর্নেন্স প্রকল্পের সমন্বয় কমিটির সভা

প্রকাশ:| বুধবার, ২৯ মার্চ , ২০১৭ সময় ০৭:৫৭ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের অবকাঠামো উন্নয়ন ও ইনক্লুসিভ নগর পরিকল্পনা উন্নিত করন কর্মসূচি (আইসিজিআইএপি) সঠিকভাবে বাস্তবায়নের লক্ষে গঠিত নগর উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির ৭ম সভা ২৯ মার্চ ২০১৭ খ্রি. বুধবার, দুপুরে নগরভবনের ৩য় তলায় অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সভাপতি ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন সভায় সভাপতিত্ব করেন। সভায় কমিটির সদস্য সচিব মোহাম্মদ আবুল হোসেন, কমিটির সদস্য চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচিত ৫ম পরিষদের ১৮টি স্থায়ী কমিটির সভাপতি, বিজিএমই’র পরিচালক মাহফুজুল হক শাহ, বাংলাদেশ রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাব্যবস্থাপক চৌধুরী মোহাম্মদ ইশা ই খলিল, এম এ খালেক চৌধুরী, সিএমপি চট্টগ্রাম এর এডিসি ওয়াহিদুল হক চৌধুরী, চট্টগ্রাম ওয়াসার বাণিজ্যিক ব্যবস্থাপক ড. পীযুষ দত্ত, নারী ঐক্য বাংলাদেশের জান্নাতুল ফেরদৌস, শরনের পুর্নিমা বড়–য়া, কর্নফুলী গ্যাস ডিষ্ট্রিবিশন কো: ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী আবদুল হালিম, বিপিসিএল’র সহকারী প্রকৌশলী মো. মিজানুর রহমান, চট্টগ্রাম বন্দরের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সাইফুল হাসান চৌধুরী এবং জাইকার প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভায় বিগত ৬ষ্ঠ সভার কার্যবিবরনী অনুমোদন এবং আলোচ্যসূচির উপর আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। তৎমধ্যে হালনাগাদকৃত অবকাঠামোগত উন্নয়ন প্রকল্প, সিটি কর্পোরেশন এলাকায় চলমান অবকাঠামো উন্নয়ন কাজের অনুসন্ধান, সিজিপি ব্যাচ-১ এর অগ্রগতি পর্যালোচনা এবং উন্নয়ন কর্মসুচি বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে উদ্ভুত সমস্যা ও প্রতিবন্ধকতা এবং আন্তঃপ্রাতিষ্ঠানিক সমন্বয়ের সম্ভাব্যতা অনুসন্ধান ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। সভার সভাপতি চট্টগ্রাম সিটি কর্র্পোরেশনের মেয়র সিটি গভর্নেন্স প্রকল্পের আওতায় চলমান ২শত ১ কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন বিষয়ে নানাদিক তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ২য় ব্যাচে প্রায় ৩শত ৩৪ কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়নের অপেক্ষায় আছে। ইতোমধ্যে পোর্ট কানেকটিং রোড এবং আগ্রাবাদ এক্সেস রোড সহ কয়েকটি প্রকল্পের দরপত্র আহবান করা হয়েছে। মেয়র আশা করেন এয়ারপোর্ট রোডে চলমান ৩টি ব্রিজ এর নির্মাণ কাজ নির্ধারিত সময়ে সম্পাদিত হবে।
তিনি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নানামুখী সেবার বিশদ ব্যাখ্যা দিয়ে বলেন, সরকারী ও স্বায়ত্বশাসিত এবং সেবাদান কারী সকল সংস্থার সাথে সমন্বয় সাধনের মাধ্যমে কাংখিত উন্নয়ন এগিয়ে নেয়া সহজ হবে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সরকারী পরিপত্র ও সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে সমন্বয়ের মধ্য দিয়ে উন্নয়ন কার্যক্রম এগিয়ে যাচ্ছে। মেয়র আশা করেন সেবা দায়িত্বে নিয়োজিত সিডিএ, ওয়াসা, পিডিবি, টিএন্ডটি, গণপূর্ত, রোডস এন্ড হাইওয়ে, রেলওয়ে, বন্দর সহ যাবতীয় প্রতিষ্ঠান একে অপরের সহযোগিতায় সরকারী সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করবে। এক্ষেত্রে কোন ধরনের জটিল পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। মেয়র বলেন, মাদক ও যানজট থেকে নগরবাসী মুক্তি চায়। তিনি তার ভিশন উপস্থাপন করে বলেন, মদুনাঘাট থেকে পতেঙ্গা পর্যন্ত প্রতিরোধ দেয়াল এবং খালের মুখে পাম্প হাউজ সহ স্লুইচ গেইট নির্মাণের একটি প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। তিনি আশা করেন, রেলওয়ের সাথে অমিমাংশিত সমস্যা সমূহ উভয়ের আলোচনার ভিত্তিতে সমাধান করা সম্ভব হবে।