সিএসই নির্বাচনে ১০জন প্রার্থীর মধ্যে ১জন প্রর্থী মনোনয়নপত্র পত্যাহার করে নিয়েছেন

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১১ ফেব্রুয়ারি , ২০১৪ সময় ১০:৩১ অপরাহ্ণ

১৫ ফেব্রুয়ারির চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) নির্বাচনে ১০জন প্রার্থীর মধ্যে ১জন প্রর্থী মনোনয়নপত্র পত্যাহার করে নিয়েছেন।

মঙ্গলবার বিকেলে বাংলামেইলকে সংশ্লিষ্ট সূত্র নিশ্চিত করেছে। সূত্র জানায়, নির্বাচনি তফসিল অনুযায়ী ১১ ফেব্রুয়ারি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে জালালাবাদ সিকিউরিটিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান মসিহ মালিক চৌধুরী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

ফলে ডিমিউচুয়ালাইজেশন পরবর্তী চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ নির্বাচনে ৯ জন প্রার্থী লড়াই করবেন।

অংশগ্রহণকারী নয় প্রার্থীরা হলেন, বি রিচ লিমিটেডের চেয়ারম্যান/সিইও মো. শামসুল ইসলাম, ব্রিটিশ বেঙ্গল সিকিউরিটিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান ডা. জামশেদ সানিয়াত আহমেদ চৌধুরী, আইএসপিআই সিকিউরিটিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মির্জা সালমান ইস্পাহানি, আলফা সিকিউরিটিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহাজাদা মাহমুদ চৌধুরী, আইল্যান্ড সিকিউরিটিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, হাসান শেয়ারস অ্যান্ড সিকিউরিটিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অ্যাডভোকেট মো. আনোয়ার হোসেন, লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ লিমিটেডের পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামরুল আনম চৌধুরী, রেমন্স ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড সিকিউরিটিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান মো. মফিজউদ্দিন এবং বিএইচ সিকিউরিটিজ ইনভেস্টমেন্ট সার্ভিসেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তারেক কামাল।

নির্বাচনি তফসিল অনুযায়ী সিএসই’র নির্বাচন আচরণবিধি-২০১৩ অনুযায়ী রেকর্ড ডেট ছিল ২৫ জানুয়ারি। ওই তারিখ পর্যন্ত যাদের নাম রেজিস্টারে রয়েছে কেবল তারাই ভোট দিতে পারবেন। এ হিসেবে সিএসইতে মোট ভোটার সংখ্যা ১৪৪ জন।

৯ ফেব্রুয়ারি মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করে প্রার্থীদের প্রাথমিক তালিকা প্রকাশ করা হয়। প্রার্থীদের নির্বাচন সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ থাকলে ১১ ফেব্রুয়ারির দাখিলের সময় শেষ হয়েছে। ১২ ফেব্রুয়ারি সিএসই’র নোটিশ বোর্ড এবং ওয়েবসাইটে প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে।

জানা গেছে, ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন পরবর্তী সিএসই’র পর্ষদ হবে ১৩ সদস্যের। এতে চারজন থাকবেন শেয়ারহোল্ডার পরিচালক, সাতজন স্বতন্ত্র পরিচালক, একজন কৌশলগত বিনিয়োগকারী পরিচালক (স্ট্র্যাটেজিক ইনভেস্টর ডিরেক্টর) এবং একজন স্টক এক্সচেঞ্জের ব্যবস্থাপনা পরিচালক থাকবেন। তবে কৌশলগত বিনিয়োগকারী পরিচালক ছাড়াই ডিএসই’র নতুন পর্ষদ গঠন করা হবে।