‘সাহাব উদ্দিন বলি খেলা’র জয়ী’ শামছু

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ১৪ এপ্রিল , ২০১৬ সময় ১১:০৪ অপরাহ্ণ

সিআরবি’র সাত রাস্তার মোড়ের সামনের খোলা মাঠ।সেই মাঠে ১২ হাত বাই ১২ হাতের একটি চতুর্ভূজ আকৃতির খেলার মঞ্চ। চারদিকে রশির বেড়া।মূল মাটি থেকে পাঁচ হাত উপরে এসে তৈরি হয়েছে সেই বালির মঞ্চ।

এই মঞ্চটা ‘সাহাব উদ্দিন বলি খেলা’র জন্যই।পহেলা বৈশাখ উপলক্ষেই এই আয়োজন।

সেখানে একে একে লড়লেন ২৮ জন বলি।তাদের কেউ ৫০ বছরের আশপাশের, আবার কেউবা ১২ এর ঘরের।তাদের মধ্যে চলে দীর্ঘ দুই ঘণ্টার লড়াই।কেউ কাউকে ছাড় দিতে রাজি নয়।সেই প্রাণপন ‘যুদ্ধের’ পর দিনের শেষে এসে চ্যম্পিয়ন হলেন উখিয়ার শামছু বলি। রানার আপ হলেন কুমিল্লার সালাউদ্দিন বলি।তৃতীয় হন কলিমুল্লাহ বলি।

বলি খেলায় অংশ নিলেন জোসেফ ও ফোমান নামের দুই বিদেশিও।তারা দুজনই ফ্রান্সের নাগরিক। বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে গত আট বছর ধরে আয়োজিত হয়ে আসছে এই বলি খেলা।

বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটা থেকে শুরু হয় এই বলি খেলা।ওই সময়টা প্রখর খড়া রোদের দখলে পুরোটা।কিন্তু বিশাল শিরীষ গাছটা যেভাবে মাথার উপর ছাদ হয়ে দাঁড়িয়ে থাকল সেই ত্বক পোড়া রোদটা চারপাশে আছে-তা বুঝার উপায় নেই।মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশে দর্শকেরা উপভোগ করলেন বলি খেলা।

এই বলি খেলার উদ্যোক্তা সাহাব উদ্দিন।তিনিও বেশ কিছু সময় রেফারির ভুমিকায় ছিলেন মঞ্চে।

বলি খেলার স্থানীয় কাউন্সিলর জহর লাল হাজারির চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় দেওয়া ধারাভাষ্য দর্শকদের মাঝে বেশ সাড়া জাগিয়েছে।
‘সাহাব উদ্দিন বলি খেলা’র জয়ী’ শামছু
জহর লাল হাজারি বলি খেলার প্রায় পুরোটা সময় চট্টগ্রামের ধারাভাষ্যে কখনও বলি খেলায় অংশ নেওয়াদের উৎসাহ দিতে গিয়ে দর্শকদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, ‘তোয়ারা জোরে জোরে তালি মারো’(তোমরা জোরে জোরে হাততালি দাও) আবার কখনও বলি’দের উদ্দেশ্যে বলছেন, ‘কেয়া কেয়ারে ছাড়ি ন দিও’( কেউ কাউকে ছাড় দিও না)।

বলি খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।

বক্তব্য দিতে গিয়ে সিটি মেয়র বলেন, ‘পহেলা বৈশাখ বাঙালী জাতির ঐতিহ্যবাহী উৎসবের দিন।বলি খেলাও বাংলাদেশের অনেক বছরের পুরনো সংস্কৃতির অংশ।এরকম উৎসবের মাধ্যমে আমাদের মধ্যে সম্প্রীতির বন্ধন আরও দৃঢ় হয়। আসুন আমরা সবাই বাংলা সংস্কৃতি লালন করি।’

বক্তব্য শেষে সিটি মেয়র বলি খেলায় জয়ীদের হাতে ট্রপি ও পুরস্কার তুলে দেন।