সাম্প্রদায়িক সহিংসতাকারীদের ট্রাইব্যুানালে বিচার করতে হবে

প্রকাশ:| শনিবার, ৫ নভেম্বর , ২০১৬ সময় ০৮:৪৮ অপরাহ্ণ

%e0%a6%9f%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%be%e0%a6%87%e0%a6%ac%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a7%81%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a6%b2%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%a7%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%ae%e0%a7%87ব্রাহ্মণবাড়ীয়াসহ সারাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের মঠ, মন্দির, বাড়ী ঘরে হামলা ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ, নারী ধর্ষনসহ সাম্প্রদায়িক সহিংসতার প্রতিবাদে এবং অবিলম্বে দুষ্কৃতকারীদের গ্রেপ্তার পূর্বক বিশেষ ট্রাইব্যুানালের বিচারের দাবিতে শ্রীশ্রী জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদ বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বানে দেশব্যাপী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশের অংশ হিসেবে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে অনুষ্ঠিত বিশাল মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ হলেও সরকার প্রশাসন ও প্রগতিশীল রাজনৈতিক দলের মধ্যে একটি সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী ঘাপটি মেরে আছে। সময় সুযোগ পেলে তারা এদেশের ধর্মীয় সংখ্যালগু সনাতনী সম্প্রদায়ের উপর উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। যারা ব্রাহ্মণ বাড়িয়াসহ সারা দেশে সম্প্রদায়িক সন্ত্রাস চালাচ্ছে তাদের কোন ধর্ম পরিচয় থাকতে পারে না। তাদেরকে অনতিবিলম্বে মানবতার দুশমন ঘোষণা করে বিশেষ ট্রাইবুন্যালে বিচারের মাধ্যমে শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। ক্ষতিগ্রস্থ মঠ, মন্দির, ঘর বাড়ি, রামুর বৌদ্ধ বিহারের ন্যায় সেনাবাহিনী ধারা পুনঃনির্মাণ করতে হবে এবং ক্ষতিগ্রস্থদের সরকারী উদ্যোগে পুনঃবার্সনের ব্যবস্থা করতে হবে। বক্তারা বলেন, মাননীয় প্রদানমন্ত্রী সদ্ইচ্ছা থাকলেও প্রশাসনের লুকিয়ে থাকা এক শ্রেণী সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী পদে পদে বাধা সৃষ্টি করছে এবং দেশকে একটি অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করার ষড়যন্ত্র করছে। ষড়বৃষ্টি উপেক্ষা করে কয়েক হাজার মানুষ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে অংশগ্রহণ করে। শ্রীশ্রী জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদ বাংলাদেশ চট্টগ্রাম উত্তর দক্ষিণ মহানগর শাখার যৌথ উদ্যোগে মহানগর সভাপতি শ্রী কাজল কান্তি দত্তের সভাপতিত্বে ও কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এড. চন্দন তালুকদারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথিরবক্তব্য রাখেন শ্রী শ্রী জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদ বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও পৌর মেয়র দেবাশীষ পালিত, সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাষ্ট্রের ট্রাষ্টি বাবু রাখাল দাশ গুপ্ত, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, সংগঠনের সাবেক কার্যকরী সভাপতি বিমল কান্তি দে, শ্রী শ্রী জন্মষ্টমী উদ্যাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতা সাধন ধর, লায়ন পিন্টু দাশ গুপ্ত, লায়ন দুলাল চন্দ্র দে, চন্দন দাশ, ঋশীকেশ আইচ অসিম, বিদ্যা লাল শীল, পরেশ চন্দ্র চৌধুরী, লায়ন আশীষ ভট্টাচার্য্য, প্রদীপ চৌধুরী, লায়ন তপন কান্তি দাশ, প্রকৌশলী আশুতোষ দাশ, রানা বিশ্বাস, স্বরূপ চৌধুরী শাওন, মহানগর পূজা পরিষদের সভাপতি অরবিন্দ পাল অরুন, ৩২নং আন্দরকিল্লা ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জহুর লাল হাজারী, ২১নং জামাল খান ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, পূজা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুজিত দাশ, উত্তর জেলা পূজা পরিষদের সভাপতি অমৃত লাল দে, সাধারণ সম্পাদক মাস্টার নির্মল কান্তি দাশ, দক্ষিণ জেলা সাধারণ সম্পাদক তাপস কান্তি দে, শ্রীশ্রী জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদ উত্তর জেলার সাধারণ গৌতম পালিত টিকলু, বাগিশিক কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডা. অঞ্জন দাশ। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন ননী গোপাল আচার্য্য, আশীষ চৌধুরী, শ্রী প্রকাশ দাশ অসিত, ডা. কথক দাশ, লিটন নন্দী, রতন আচার্য্য, সাধন চৌধুরী, হিল্লোল সেন উজ্জ্বল, লিটন কান্তি দত্ত, শুভাষ দাশ, পুলক খাস্তগীর, দেবাশীষ নাথ দেবু, সলিল গুহ, নিধু বিশ্বাস, প্রদীপ চৌধুরী টিংকু, দেবাশীষ দাশ গুপ্ত বাবু, বিপ্লব চৌধুরী, শিবু দত্ত, রিটু দাশ বাবলু, এড. নিখিল কুমার নাথ, বিপ্লব সেন, নিখিল ঘোষ, সুমন চৌধুরী, অঞ্জন সিকদার, শিপ্রা চৌধুরী, প্রবীর বণিক, এড. গৌতম হাজারী, এড.টিপু শীল জয়দেব, শ্যামল মজুমদার, বিশ্বজিৎ গুপ্ত বিশু, দোলন দেব, নারায়ন সিংহ, অশোক দেব লিটন, স্টালিন দে, অধ্যাপক সমির মজুমদার, জয়ন্ত বণিক, তারাপদ দাশ, সৌভন দাশ শুভ, সাজু বিশ্বাস, স্বপন বণিক, অমিত ধর, রাজিব চৌধুরী মিল্টন, শোভন দাশ শুভ, লিটন কুমার শীল, মুনমুন দত্ত মুন্না, বাবলা কুমার দাশ, অধ্যাপক শিপক কুমার নাথ, বাবলু দাশ, থানা কমিটির পক্ষ থেকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অঞ্জন দত্ত, সৈকত দাশ, টিটু কুমার চৌধুরী, মিঠুন সরকার, শ্যামল দাশ গুপ্ত, বাপ্পি দাশ, লিটন দাশ, বিশ্বজিৎ দে, ডা. বিজন কান্তি নাথ, দিপক কুমার রায়, ডা. নেহেরুলাল ধর, মিত্র কুমার শীল, তমাল শর্মা চৌধুরী, ডা. মানষ শেখর, রাম চন্দ্র দাশ, মান্না দে, সৈকত মহাজন সাজু, সুমন দেব, শিমুল শীল, শ্যামল শীল, স্বপন চৌধুরী বাবু, রঞ্জিত দাশ প্রমুখ। মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে বিভিন্ন সংগঠনের মধ্যে কোতোয়ালী থানা পূজা উদ্যাপন পরিষদ শ্রীশ্রী ঠাকুর অনুকুল চন্দ্র সৎসংঘ ফাউন্ডেশন, সীতাকুন্ড চন্দ্রনাথ জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদ, মাঝির ঘাট আঞ্চলিক কমিটি, কোতোয়ালী থানা ছাত্র যুব ঐক্য পরিষদ, হাজারী লেইন সনাতনী ঐক্য পরিষদ, শারদাঞ্জলি ফোরাম চট্টগ্রাম ঐক্যবদ্ধ সনাতনী যুব সমাজ, নরেন আবৃত্তি একাডেমী, সনাতনী ছাত্রযুব ঐক্য পরিষদ কাট্টলী, পতেঙ্গা থানা জন্মাষ্টমী সনাতনী যুব কল্যাণ পরিষদ, চট্টশ্বরী কালী বাড়ীসহ আরো বিভিন্ন সংগঠন সংহতি প্রকাশ করেন।