সামাজিক ব্যবসার প্রসারে ‍জাপান-দ.কোরিয়া সফর ইউনূসের

প্রকাশ:| রবিবার, ২৮ জুলাই , ২০১৩ সময় ১০:৫২ অপরাহ্ণ

শান্তিতে নোবেলজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূস নিজের উদ্ভাবিত সামাজিক ব্যবসার প্রসারে এবার জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়া সফর Yunus-korea20130728094119করেছেন। ২৫ থেকে ২৮ জুলাই দেশ দুটি সফর করেন তিনি। এসময় সামাজিক ব্যবসা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে দুই দেশের ব্যবসায়ী ও সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে তার কয়েকটি বৈঠক হয়।

ইউনূস সেন্টার থেকে পাঠানো একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২৭ ও ২৮ জুলাই জাপান সফর করেন গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা। ওসাকা সফরকালে সেখানের ২০ জন শীর্ষস্থানীয় ধনাঢ্য ব্যক্তির সঙ্গে দুটি বৈঠক করেন তিনি। এসব বৈঠকে জাপানে সামাজিক ব্যবসার সম্ভাবনা ও বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা হয়।

অধ্যাপক মুহাম্মদ ইউনূস ওসাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও অন্য কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় এক হাজার শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য দেন। এছাড়া তিনি ওসাকার শীর্ষস্থানীয় নারী উদ্যোক্তাদের সঙ্গে দিনব্যাপী একটি মিটিংয়ে যোগ দেন ও সামাজিক ব্যবসায় তাদের অংশ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

ইউনূস সেন্টারের সঙ্গে যৌথভাবে সামাজিক ব্যবসা শুরু করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে জাপানি এক বিপনিবিতান।

নাগানো গভর্নর সুইচি অ্যাবে তার অঞ্চলে স্থাপিত নতুন বিশ্ববিদ্যালয়ে চ্যান্সেলর হিসেবে যোগ দেয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন ড. ইউনূসকে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কাঠামো নিয়ে আলোচনার জন্য অধ্যাপক ইউনূসের সঙ্গে ‍সাক্ষাৎ করেন অ্যাবে।

সুপরিচিত জিকেই গ্রুপ অব কোম্পানিজের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কুনিহিকো ইউকিফুনও ড. ইউনূসের সঙ্গে দেখা করেন। ইউনূসের ‘ক্ষুদ্রঋণ’ ও ‘সামাজিক ব্যবসা’ ধারণাকে জনপ্রিয় করতে জিকেই মাঙ্গা কোম্পানির পরিচালক কাকুমেত মাঙ্গা সিরিজ বই তৈরি করবেন বলে জানানো হয়েছে ইউনূস সেন্টারের বিজ্ঞপ্তিতে।

জানা গেছে, এ সিরিজের প্রথম বইটি চলতি বছরই প্রকাশিত হবে। কমিক বইকে জাপানি ভাষা মাঙ্গা বলা হয়। ইউনূসের জীবন ও কাজের উপর তৈরি মাঙ্গার সকল ড্রয়িংয়ে বাংলাদেশের বাস্তবতার প্রতিফলন ঘটাতে এ বছরের শুরুতেই জিকেই এবং তাদের শিল্পীরা বাংলাদেশ সফর করেছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, টয়োটা ও নিশান মোটরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও ড. ইউনূসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। ‘করপোরেট সোশ্যাল রেসপনসিবিলিটি’র আওতায় কিভাবে সামাজিক ব্যবসা চালানো যায় তার বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা হয় টয়োটা ও নিশান প্রতিনিধিদের সঙ্গে ড. ইউনূসের।

দক্ষিণ কোরিয়ার তৃতীয় বৃহত্তম বহুজাতিক কোম্পানি এসকে গ্রুপের মালিক ও চেয়ারম্যানের আমন্ত্রণে ২৫ জুলাই সেদেশে যান ড. ইউনূস। কর্মকর্তাদের সামাজিক ব্যবসা সম্পর্কে ধারণা প্রদানের জন্য এসকে গ্রুপ ড. ইউনূসকে সিউলে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে। বলা হয়েছে, দুই দিনের সফরে সামাজিক ব্যবসা সংক্রান্ত একটি কর্মশালায় যোগ দেন ড. ইউনূস।