সাতকানিয়ায় গুলিবিদ্ধ পুলিশ কনস্টেবল মো. ইকবালের অবস্থা আশঙ্কাজনক

প্রকাশ:| বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর , ২০১৩ সময় ০৮:১৭ অপরাহ্ণ

police_satkanoiaজামায়াতের ডাকা বুধবার থেকে ৪৮ ঘন্টার হরতালের প্রথম দিনে চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় হরতাল-সমর্থকদের হামলায় মো. ইকবাল নামে পুলিশের এক কনস্টেবল গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

হামলাকারীদের গুলি ইকবালের বুক দিয়ে ঢুকে পিঠ দিয়ে বেরিয়ে গেছে। গুরুতর অবস্থায় তাঁকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে, দক্ষিণ চট্টগ্রামের সাতকানিয়া কাঞ্চনা এলাকায় সকাল ১১টায় শিবির নেতা কর্মীরা মিছিল বের করলে পুলিশ মিছিলে ৩/৪ রাউন্ড গুলি চালায়। তবে এতে হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি।

অপরদিকে, দুপুর ১২টায় সাতকানিয়ার ফুলতলী এলাকায় শিবির কর্মীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষে ২ পুলিশ সহ কমপক্ষে ৭ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। গুলিতে গুরুতর আহত পুলিশ সদস্য ইকবাল হোসেনকে (২৮) আশঙ্কাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার বেলা আড়াইটার দিকে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চমেকে আনা হয়। তিনি সাতকানিয়া থানার কাঞ্চনা জোটপুকুরিয়া পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত ছিলেন।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার হাফিজ আকতার সাংবাদিকদের জানান, বুধবার হরতাল চলাকালে কাঞ্চনা জোটপুকুরিয়া বাজার এলাকায় পুলিশের একটি দল টহল দিচ্ছিল। দুপুর ১২টার দিকে সেখানে হঠাৎ যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লার মৃত্যুদণ্ডের রায়ের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে শিবির একটি মিছিল বের হরে। কয়েকজন পুলিশের উপর চড়াও হয় এবং পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। শিবিরকর্মীদের ছোড়া একটি গুলি ইকবাল হোসেন নামে পুলিশের এক কনস্টেবলের বুকে গিয়ে লাগে। তাকে তাৎক্ষণিকভাবে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারে নেয়া হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

শিবিরের সাতকানিয়া পূর্ব শাখার সভাপতি এনামুল জানান, পুলিশ শিবিরের মিছিলে গুলি চালায়। এ সময় একটি গুলি বৈদ্যুতিক খুঁটিতে লেগে এটি ফের পুলিশের গায়ে এসে পড়ে। শিবির কর্মীরা কোন গুলি চালায়নি।