সাগরে নৌ-দূঘর্টনায় ২ জেলে নিহত

প্রকাশ:| শনিবার, ১৪ নভেম্বর , ২০১৫ সময় ০৮:২৭ অপরাহ্ণ

কুতুবদিয়ার উপকূল থেকে ৮ জেলে নিয়ে একটি ফিশিং ট্রলার বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার জন্য যাওয়ার পথে সাগরের জাহাজখাড়ি নামক স্থানে ট্রলির সাথে ধাক্কা লেগে এফ,বি আল্লারদান ফিশিং ট্রলারটি ডুবে যায়।জেলে

এসময় ফিশিং ট্রলারের ৮ জেলের মধ্যে ৬ জেলেকে অন্য একটি ফিশিং ট্রলার উদ্ধার করলেও দুই জেলে নিখোঁজ ছিল। দূর্ঘটনার প্রায় ১২ ঘন্টা পর ডুবে যাওয়া ফিশিং ট্রলারের ভিতর থেকে মৃত অবস্থায় দুই জেলেকে উদ্ধার করে। নিহত জেলেরা হচ্ছে, কুতুবদিয়া দ্বীপের দক্ষিণ অমজাখালী গ্রামের জাফর আলমের ছেলে জামসেদ (২২) ও তার আপন চাচাতভাই আমির হোসেনের ছেলে আজিজুর রহমান (২০)। এ ঘটনায় আহত হয়েছে, নাছির উদ্দিন (২৩) মাঝি শাহাব উদ্দিন (৩৫)।

ট্রলারের মাঝি শাহাব উদ্দিন বলেন, গত শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টায় কুতুবদিয়া দ্বীপের দক্ষিণ অমজাখালী গ্রামের উপকূল হতে ৮ জেলেসহ এফ.বি আল্লাহদান ফিশিং ট্রলার নিয়ে মাছ ধরার উদ্দেশ্যে সাগরে যাওয়ার পথে ভোর ৪টায় জাহাজখাড়ি নামক স্থানে ট্রলারটি পৌছলে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা মাছ ধরার ট্রলির সাথে ধাক্কা লাগে।

এ সময় তাদের ট্রলারটি (এফ.বি আল্লাহদান) সাগরে ডুবে যায়। এদিকে ট্রলিটি তাদেরকে উদ্ধার না করে গভীর সাগরে দিকে চলে যায়। দূর্ঘটনার কবলে পড়া জেলেদেরকে সাগরে ভাসতে দেখে চকরিয়ার বদরখালীর একটি ফিশিং ট্রলার ৬ জেলেকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করে। এ খবর পেয়ে তাদের সাথে থাকা অন্যান্য ফিশিং ট্রলার ডুবে যাওয়া ফিশিং ট্রলারটি উদ্ধার করে গতকাল শনিবার বিকাল ৪টার সময় অমজাখালীঘাটে নিয়ে আসে।

তখনো নিহত জেলে জামসেদ ও আজিজুর রহমান নিখোঁজ ছিল। সাগরে ডুবে যাওয়া আল্লাহদান ফিশিং ট্রলারটি উদ্ধার করে কূলে এনে পানি সেচ দিতে গিয়ে নিখোঁজ থাকা জেলে জামসেদ ও আজিজুর রহমানকে ট্রলারের ভিতরে (১২ ঘন্টা পর) মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। একই পরিবারের দুই জেলে নিহত হওয়ায় এলাকায় এবং তাদের পরিবারে শোকের মাতম।