সাক্ষ্যগ্রহণ ছাড়া মামলা খারিজের অভিযোগ

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১ মার্চ , ২০১৬ সময় ১০:০১ অপরাহ্ণ

আদালতচাঞ্চল্যকর একটি হত্যা মামলায় বাদির সাক্ষ্যগ্রহণ না করে মামলাটি সরাসরি খারিজ করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে চট্টগ্রামের একটি আদালতের বিরুদ্ধে। মামলার বাদি চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির কাছে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

মঙ্গলবার (০১ মার্চ) চট্টগ্রামের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো.সেলিম মিয়া মামলাটি খারিজ করে দিয়েছেন। এরপর মামলার বাদি জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদকের কাছে লিখিত অভিযোগ জমা দেন।

২০০৬ সালে সীতাকুণ্ডের গৃহবধূ নিলুফা জামান শাহানাকে যৌতুকের জন্য নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলাটির বিচার চলছিল ওই ট্রাইব্যুনালে।

লিখিত ‍অভিযোগ পাবার কথা স্বীকার করে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট কফিল উদ্দিন আহমেদ বলেন, সাক্ষ্যগ্রহণের পর্যায়ে একটা মামলা সাধারণত খারিজ করে দেয়া যায় না। কিন্তু একটি আদালত এ ধরনের একটি মামলা খারিজ করে দিয়েছেন বলে আমাদের কাছে ‍অভিযোগ এসেছে। কাল (বুধবার) অভিযোগের সত্যতা যাচাই করে দেখব। এরপর আমরা আইন মন্ত্রণালয় কিংবা সুপ্রিম কোর্টের কাছে চিঠি পাঠাতে পারি। অথবা নিজেরাই কোন সিদ্ধান্ত নিয়ে পদক্ষেপ নিতে পারব। তবে তদন্তের আগে কিছুই বলা যাবেনা।

২০০৬ সালে সীতাকুন্ড উপজেলার বাসিন্দা নিলুফা জামান শাহানা স্বামীর বাড়িতে খুন হন। এ ঘটনায় তার ভাই শাহ আলম সুমন শাহানার স্বামী মোহাম্মদ আলী, তার ভাই শাহেদ আলী, পরিবারের সদস্য রওশন আরা বেগম, জাশেদ আলী, জিমু, জোবেদা বেগম জেবুকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।

২০০৭ সালে পুলিশ সেই মামলায় আদালতে স্বামী মোহাম্মদ আলীসহ চার জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দেয়। চার্জ গঠনের পর থেকে এ মামলায় একাধিকবার সাক্ষী হাজিরের সমন ইস্যু করা হলেও কেউ হাজির হয়নি।

মঙ্গলবার বাদি শাহ আলম সুমন সাক্ষী দিতে হাজির হন। কিন্তু আদালত তার সাক্ষ্য না নিয়ে মামলাটি খারিজ করে দিয়েছেন বলে তিনি লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেছেন।