সাইনবোর্ড বাংলায় লেখার অনুরোধ

প্রকাশ:| সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি , ২০১৭ সময় ০৯:২৯ অপরাহ্ণ

নগরীর চেরাগি মোড় থেকে শহীদ মিনার পর্যন্ত ভাষা অভিযাত্রা কর্মসূচি পালন করেছে উদীচী চট্টগ্রাম জেলা সংসদ।  এসময় ইংরেজিতে লেখা সাইনবোর্ড নামিয়ে বাংলায় লেখার জন্য বিভিন্ন বাণিজ্যিক ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে উদ্বুদ্ধ করা হয়।  দোকানে-প্রতিষ্ঠানে বিতরণ করা হয় সর্বস্তরে বাংলা ভাষা চালুর দাবি সম্বলিত প্রচারপত্র।

কেন্দ্রঘোষিত ভাষা অভিযাত্রা কর্মসূচির অংশ হিসেবে নগরীর চেরাগির মোড়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে উদীচী।  উদীচীর চট্টগ্রাম জেলা সংসদের সহ সাধারণ সম্পাদক জয় সেনের সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন সহ সভাপতি ও গণজাগরণ মঞ্চের সদস্য সচিব ডা. চন্দন দাশ।

শহীদ মিনারে গিয়ে অভিযাত্রা কর্মসূচির সমাপ্তি ঘোষণা করেন উদীচী চট্টগ্রাম জেলা সংসদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা শীলা দাশগুপ্তা।

বক্তব্যে চন্দন দাশ বলেন, সর্বস্তরে বাংলা ভাষা চালুর জন্য আমরা উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী মাঠে নেমেছি।  রক্ত দিয়ে যে মাতৃভাষার স্বীকৃতি আমরা পেয়েছি সেই ভাষার মর্যাদা রক্ষার জন্য আমাদের মাঠে নামতে হচ্ছে এটা গ্লানির বিষয়।  অথচ পৃথিবীর বুকে প্রথম রাষ্ট্রভাষা হিসেবে স্বীকৃতি আদায় করে নিয়েছিল বাংলা।  তারপরও বাংলা ভাষা সর্বস্তরে চালু হয়নি।

‘আমরা দাবি জানাচ্ছি, চট্টগ্রামে যেসব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক-বীমায়, সরকারী-বেসরকারি অফিসে, দোকানে ইংরেজিতে সাইনবোর্ড লেখা আছে সেগুলো নামিয়ে ফেলুন।  বাংলায় সাইনবোর্ড লিখুন।  প্রয়োজনে বাংলার নিচে ছোট করে ইংরেজিতে লিখুন। ’ বলেন চন্দন দাশউদীচীর ভাষা অভিযাত্রা কর্মসূচি

সমাপনী বক্তব্যে শীলা দাশগুপ্তা বলেন, সর্বস্তরে বাংলা ভাষা প্রচলনের আন্দোলন এখনই জোরদার করতে হবে।  বাংলা ভাষার বিকৃতি রোধ করতে হবে।  শুদ্ধ বানানে বাংলা লিখতে হবে।  না হলে একদিন বাংলা ভাষা হারিয়ে যাবে।  ইংরেজি মাধ্যমের স্কুল-কলেজে বাংলা পড়ানো হয় না।  সেখানে বাংলা পড়াতে হবে।

এরপর চেরাগি থেকে আন্দরকিল্লা, লালদীঘি হয়ে শহীদ মিনার পর্যন্ত প্রচারপত্র বিলি করেন উদীচীর কর্মীরা।  এসময় ইংরেজিতে সাইনবোর্ড লেখা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নাম ধরে মাইকে ঘোষণা দেয়া হয় এবং তাদের সেটা নামিয়ে বাংলায় লেখার অনুরোধ করা হয়।

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা উদীচীর আহ্বানে স্বত:স্ফূর্ত সমর্থন ‍জানান।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে বিশিষ্ট গণসঙ্গীত শিল্পী রবীন দে, উদীচী চট্টগ্রাম জেলা সংসদের সহ সভাপতি সুনীল ধর, গণজাগরণ মঞ্চ চট্টগ্রামের সমন্বয়কারী শরীফ চৌহান, সংস্কৃতিকর্মী হাবিব বিপ্লব, সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী তরুণ উদ্যোগের যুগ্ম আহ্বায়ক প্রীতম দাশ ও রুবেল দাশ প্রিন্স এবং শিক্ষিকা সালমা জাহান মিলি উপস্থিত ছিলেন।