সাংবাদিক হত্যা-নির্যাতন করে গণতন্ত্র রক্ষা করা যাবে না

প্রকাশ:| শনিবার, ৪ ফেব্রুয়ারি , ২০১৭ সময় ১১:২৮ অপরাহ্ণ

দৈনিক সমকালের শাহজাদপুর প্রতিনিধি আবদুল হাকিম শিমুল হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তারা বলেছেন, ‘সাংবাদিক হত্যা-নির্যাতন করে গণতন্ত্র রক্ষা করা যাবে না।’

শনিবার দুপুর ১২টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে সমকালের পাঠক সংগঠন সুহৃদ সমাবেশের আয়োজনে এই কর্মসূচি পালন করা হয়।

এতে বক্তারা আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগে হাইব্রিড হয়ে যারা আজ বড় নেতা হয়েছে তারাই নির্যাতন করছেন সাংবাদিক। এ জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হস্তক্ষেপ করতে হবে। উনাকেই হাইব্রিডদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। সরকারকে বিব্রত করতে তৎপর এসব লোকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। সাংবাদিক হত্যায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে।’

সমকালের বিশেষ প্রতিনিধি ও চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান সারোয়ার সুমনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বিএফইউজে’র সহ-সভাপতি শহীদ উল আলম, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হেলাল উদ্দিন চৌধুরী, সিইউজে’র সাবেক সভাপতি এম নাসিরুল হক, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শুকলাল দাশ, সিইউজে’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আমীন, প্রেসক্লাবের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মহসিন কাজী, সিইউজের সিনিয়র সহ সভাপতি রতন কান্তি দেবাশীষ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক স্বরুপ ভট্টাচার্য, সাংগঠনিক সম্পাদক সবুর শুভ, টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শাহনেওয়াজ রিটন, সমকালের ডিজিএম (মার্কেটিং) সুজিত কুমার দাশ, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক শওকত বাঙালী, সমকালের সিনিয়র সাব এডিটর স্বপন কুমার মল্লিক, সিনিয়র রিপোর্টার তৌফিকুল ইসলাম বাবর, স্টাফ রিপোর্টার রুবেল খান, স্টাফ ফটোগ্রাফার মোঃ রাশেদ, রিপোর্টার আবদুল্লাহ আল মামুন, শৈবাল আচার্য্য, সমকাল সুহৃদ চট্টগ্রাম মহানগরের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিত চৌধুরী, সমকাল সুহৃদ চবির যুগ্ম সম্পাদক আতাউর রহমান, পরিবর্তন চট্টগ্রামের আহ্বায়ক এহসান আল কুতুবী প্রমুখ। এসময় চট্টগ্রামের প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিক, বিভিন্ন পেশাজীবী, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরাও উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সমকালের রিপোর্টার আহমেদ কুতুব।

মানববন্ধনে বক্তারা আরও বলেন, ‘দেশে সাংবাদিক সমাজ চরম প্রতিকূলতা ও নিরাপত্তাহীনভাবে জীবন যাপন করছে। পেশাদায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সাংবাদিকদের সরকারন্থি নেতা, পুলিশসহ নানাভাবে আক্রান্ত হতে হচ্ছে; গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যুও বরণ করতে হচ্ছে। সাংবাদিকদের মিথ্যা মামলায় জড়ানোর পাশাপাশি করা হচ্ছে গ্রেফতারও। বিগত ১২ বছরে দেশে সবচেয়ে বেশি সাংবাদিক হত্যাসহ নির্যাতনের শিকার হয়েছে। কিন্তু এসবের একটিরও বিচার হয়নি। যারা সাংবাদিকদের রক্ষা করার কথা তারাই আমাদের উপর হামলা চালাচ্ছে; গুলি করে মৃত্যুও ঘটাচ্ছে।’ বক্তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন। ব

বক্তারা জানান, আওয়ামী লীগের কিছু হাইব্রিড নেতা যে অপকর্ম শুরু করেছে তাদের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামসহ সারা দেশের সাংবাদিকরা মাঠে নেমেছে। সাংবাদিকদের হত্যা করে; তাদের উপর হামলা চালিয়ে কখনো গণতন্ত্র করা যায় না। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা মানে সাংবাদিকদের লাঠি পেটা করা নয়; পুলিশ দিয়ে তাদের হামলা করা কিংবা হত্যা করা নয়। এসব হামলা ও হত্যার বিরুদ্ধে সারাদেশে সাংবাদিকসহ পেশাজীবীরা যেভাবে গর্জে উঠেছেন তাতে বলা যায় যে সেদিন আর বেশি দূরে নয়; যেদিন সাংবাদিকরা অক্ষম প্রশাসন ও হাইব্রিড নেতাদের বিরুদ্ধে হরতালসহ কঠোর কর্মসূচি দিব। দেশ, সমাজতথা সার্বিক বিষয়ে প্রতিবেদন তৈরি করতে গিয়ে সাংবাদিকরা হামলার শিকার হচ্ছে। যেমনটি হয়েছে সাংবাদিক শিমুল। দুই গ্রুপের প্রতিবেদন সংগ্রহ করতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে করুন মৃত্যু বরণ করতে হয়েছে তাকে। তার মৃত্যুর খবর শুনে তার নানীও মারা যায়। এরচেয়ে মর্মান্তিক ঘটনা আর কি হতে পারে? সমাবেশ থেকে সাংবাদিকদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারের পাশাপাশি হত্যা-হামলার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করা হয়।

এদিকে সাংবাদিক শিমুল হত্যার প্রতিবাদে সোমবার সকাল ১১টায় সমাবেশ কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন। একই দাবিতে মঙ্গলবার মানববন্ধন কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে চট্টগ্রাম পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ।