‘সরকার দেশের নাগরিকদের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করেছে‘

প্রকাশ:| শনিবার, ৬ ফেব্রুয়ারি , ২০১৬ সময় ০৭:৪৫ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, শিক্ষিত, দক্ষ ও মূল্যবোধ সম্পন্ন সুনাগরিক সৃষ্টিতে শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। শিক্ষিত নাগরিক সমাজ নগর জীবন ও নগর ব্যবস্থা গঠন এবং পরিচালনার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। সমাজকে আলোকিত করার জন্য শিক্ষার গুরুত্ব অপরিসীম। 977

চট্টগ্রাম ফাউন্ডেশন ট্রাস্ট কর্র্তৃক আয়োজিত ১৭ তম মেধাবৃত্তি, সেলাই মেশিন বিতরণ ও আজীবন সদস্যদের সম্মাননা সনদ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।

শনিবার বিকেলে চসিক কে বি আবদুচ ছত্তার মিলনায়তনে চট্টগ্রাম ফাউন্ডেশন ট্রাস্টের চেয়ারম্যান মো. ইসকান্দর আলী চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সুপ্রভাত মিডিয়া লি: এর উদ্যোক্তা পরিচালক তৈয়বুর রহমান, অপরাজয় বাংলাদেশের সেন্টার ম্যানেজার শেলী রক্ষিত। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম ফাউন্ডেশন ট্রাস্ট এর ট্রাস্টি সেক্রেটারি সিরাজুল করিম মানিক, আতাউল হাকিম চৌধুরী খসরু, মুহাম্মদ আবুল কাসেম চৌধুরী, মো. মাহতাব উদ্দিন, এম এ সবুর প্রমুখ।9778

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র আরো বলেন, বর্তমান সরকার দেশের নাগরিকদের অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসার পাঁচটি মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করেছে। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। দুস্থ নারী উদ্যোক্তাদের সেলাই মেশিন বিতরণ প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, একটি সেলাই মেশিন একটি পরিবারের ভাগ্য পরিবর্তন করতে পারে। তিনি বলেন, মানুষ মানুষের জন্য। সেবার মাধ্যমে সমাজ পরিবর্তনই আমাদের লক্ষ্য হওয়া উচিত। এ সংগঠন বিগত ১৫ বছর ধরে সেবা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এ ধরনের কার্যক্রমকে আরো ছড়িয়ে দিতে হবে। তিনি বিত্তবান ব্যক্তিদেরকে সেবার মাধ্যমে সমাজকে এগিয়ে নেবার আহবান জানান। মেয়র বলেন, চট্টগ্রাম আমাদের শহর, এ শহরকে গ্রিন সিটিতে পরিবর্তন করার লক্ষ্যে আমি কাজ শুরু করেছি। শহরকে পরিপূর্ণ, পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আমি বিশেষ কর্মসূচি হাতে নিয়েছি। এ শহরকে আধুনিক, পরিচ্ছন্ন ও বাসযোগ্য শহর হিসেবে গড়ে তোলার জন্য আমি দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। সমাজকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য আমাদের দায়িত্ব ও দায়বদ্ধতা রয়েছে। দারিদ্রকে দুর করার আমাদের ইতিবাচক দৃষ্টি ভঙ্গি নিয়ে কাজ করতে হবে।
অনুষ্ঠানে চট্টগ্রামের বিভিন্ন কলেজ মাদ্রাসার ৫০ জন্য ছাত্র-ছাত্রীকে এককালিন মেধাবৃত্তি, ১০ জন দুস্থ ও নারী উদ্যোক্তাকে সেলাই মেশিন প্রদান করা হয়। এছাড়াও মেয়র মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীনকে অনারারি সদস্য পদ সহ ৯ আজীবন সদস্যদেরকে সম্মাননা ক্রেস্ট ও সনদ প্রদান করা হয়। সনদপ্রাপ্তরা হলেন আসাদুজ্জামান মজুমদার, ডা. খালেদা ফারুক, মো. হোসেন সিকদার, মো. সাইফুল আলম চৌধুরী, আবদুল্লাহ আল মাহমুদ চৌধুরী, এড. আহমদ হোছাইন, ড. মো. রেজাউল কবির, আ ন ম আবদুস শাকুর ও এম এ সবুর।