সময় শেষ, আর মিথ্যা বলবেন না।

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর , ২০১৫ সময় ০৮:৫৪ অপরাহ্ণ

মাহবুব উল আলম হানিফআওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ করে বলেছেন, মিথ্যা বলে জনগণকে ধোঁকা দেওয়ার সময় শেষ। তাই দয়া করে আর মিথ্যা বলবেন না।

তিনি বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম, আপনি চিন্তা করবেন না। ইতালিয়ান নাগরিককে হত্যার ক্লু গোয়েন্দা সংস্থার তদন্তে বেরিয়ে আসছে।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয় শ্রমিক লীগের ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ জাতীয় শ্রমিক লীগ আয়োজিত ৩ অক্টোবর শেখ হাসিনাকে দেওয়া গণসংবর্ধনা উপলক্ষে এক যৌথ সভায় বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।

হানিফ বলেন, সোমবার ইতালিয়ান নাগরিককে হত্যা করা হয়েছে সরকারকে বিব্রত করতে। কারণ ওই ইতালিয়ান নাগরিকের কোনো শত্রু ছিল না। এটা কোনো ছিনতাইয়ের ঘটনাও নয়। এ হত্যা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে। যারা সরকারকে বিব্রত করতে ইতালিয়ান নাগরিককে হত্যা করেছে, তাদের বিচার হবেই। গোয়েন্দা সংস্থার তদন্তে অনেক ক্লু বেরিয়ে আসছে। কিছুদিনের মধ্যেই প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের করা হবে। এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীরা জড়িত ছিল কিনা তাও বেরিয়ে আসবে।

হানিফ বলেন, তিনি (ফখরুল) বললেন দেশ পরিচালনায় সরকার নাকি ব্যর্থ। তাই ইতালিয়ান নাগরিককে হত্যা করা হয়েছে। সরকার নাকি উদোর পিণ্ডি বুধোর ঘাড়ে চাপিয়েছে। মির্জা ফখরুলের কী চমৎকার অভিযোগ। যে সরকার গোটা বিশ্বের কাছে সমাদৃত হয়েছে আর তিনি বলছেন, সরকার ব্যর্থ হয়েছে। আপনাদের আমলে তো দেশ দুর্নীতিতে পাঁচবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। আমরা সেই হিসেবে ব্যর্থ। আজ বাংলাদেশ নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে।

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, পাকিস্তানী এজেন্ট বিএনপি-জামায়াত ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। এই স্বাধীনতাবিরোধীরা পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের পর থেকে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। তাদের ষড়যন্ত্র এখনো থেমে নেই। যখন শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সর্বোচ্চ পুরস্কার ‘চ্যাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ’ পেয়েছেন, তখন ইতালিয়ান নাগরিককে হত্যা করা হয়েছে। কী কারণে তাকে হত্যা করা হল তার কিছুই এখনো পাওয়া যায়নি। তবে মামলা হয়েছে। এই মামলার সুষ্ঠু তদন্ত হবে। কারা কারা জড়িত তাদের খুঁজে বের করা হবে।

‘চ্যাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ’ পুরস্কার পাওয়ায় ৩ অক্টোবর শেখ হাসিনাকে দেওয়া গণসংবর্ধনা সফল করতে নেতাকর্মী ও দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে হানিফ বলেন, শেখ হাসিনার ‘চ্যাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ’ পুরস্কার বাঙালি জাতির গৌরব। এতে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি বিশ্ব দরবারে আরও উজ্জ্বল হয়েছে। তাই ওই দিন আপনারা সকলে গণসংবর্ধনায় অংশগ্রহণ করবেন, যাতে করে আমরা প্রমাণ করতে পারি বাংলাদেশের মানুষ শেখ হাসিনার ওপর আস্থাশীল।

ঢাকা মহানগর জাতীয় শ্রমিক লীগ দক্ষিণের সভাপতি শামসুল আলম বকুলের সভাপতিত্বে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, জাতীয় শ্রমিক লীগের কার্যকরী সভাপতি ফজলুল হক মন্টু, সহ-সভাপতি মোল্লা আবুল কালাম, শ্রমিক নেতা সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

নিউজচিটাগাং২৪/এসএ


আরোও সংবাদ