সময় আসলে সব খুলে বলব-বাবুনগরী

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই , ২০১৩ সময় ১০:৫১ অপরাহ্ণ

৫ মে ঢাকা অবরোধের দিন সংঘটিত সহিংস কর্মকাণ্ডের সঙ্গে হেফাজতে ইসলামের কোনো সম্পর্ক নেই বলে দাবি করেছেন সংগঠনের মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী।b

বৃহস্পতিবার রাতে প্রায় দুইমাস পর চট্টগ্রামের হাটহাজীর দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রসায় পৌঁছে সাংবাদিকদের কথা বলেন তিনি।
বাবুনগরী বলেন, “সময় আসলে সব খুলে বলব।”
৫ মে ঘটে যাওয়া কোন ঘটনার সঙ্গে হেফাজতের কোনো সর্ম্পক নেই জানিয়ে তিনি বলেন, “অহেতুক আমাকে ১৭টি মামলা দেওয়া হয়েছে। তারা আমাকে রিমান্ডে নিয়ে গিয়ে অনেক টর্চার (শাস্তি) করতে চেয়েছে। তবে ওপরের নির্দেশে তা তারা পারেনি।”
হাটহাজারী মাদ্রাসার ছাত্র মাওলানা মো. লোকমান  জানান, সন্ধ্যা ৭টায় মাগরিবের নামাজ পড়ে চট্টগ্রামের সিএসসিআর নামে একটি প্রাইভেট ক্লিনিক থেকে বাবুনগরী হাটহাজারী মাদ্রাসার উদ্দেশ্যে রওনা দেন।
এ সময় হেফাজত নেতারা তার সঙ্গে ছিলেন বলে জানান মো. লোকমান।
বাবুনগরী হাটহাজারী মাদ্রাসায় পৌঁছলে তাকে স্বাগত জানান হেফাজতের নায়েবে আমির হাফেজ শামসুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদী, অর্থ সম্পাদক মাওলানা ইলিয়াছ, মাওলানা হারুন, মাওলানা ইয়াহিয়া, পৌর হেফাজতের সভাপতি মাওলানা মীর ইদ্রিছ, সম্পাদক জুনায়েদ বিন ইয়াহিয়া, মাওলানা নাসির উদ্দিন মুনির প্রমুখ।
পরে বাবুনগরী সাংবাদিকদের বলেন, “হেফাজত একটি অরাজনৈতিক সংগঠন। বর্তমান সরকার বলছে আমরা জামায়াতসহ ১৮ দলীয় জোটের সাথে আঁতাত করে বিভিন্ন কর্মসূচি দিয়েছে, তা সম্পূর্ণ বানোয়াট ও ভিত্তিহীন।”
ইসলামের বিরুদ্ধে ‘কটূক্তিকারীদের’ শাস্তির দাবিতে হেফাজতে ইসলাম আন্দোলন করছে বলে জানান তিনি।
চার সিটি নির্বাচন ও আসন্ন গাজীপুর নির্বাচনের সঙ্গে হেফাজতের কোনো সম্পর্ক নেই উল্লেখ করে বাবুনগরী বলেন, “সাধারণ জনগণ যাকে পছন্দ তাকেই ভোট দিবে। ভোট দেওয়া জনগণের নাগরিক অধিকার।”
দলীয় কর্মকাণ্ড সক্রিয় রাখতে আসন্ন রমজানে বিভিন্ন জেলা, উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে ইফতার মাহফিল, আলোচনা সভা করে ১৩ দফার পক্ষে জনমত সৃষ্টি করা হবে বলে জানান তিনি।
ঈদের পর দলীয় নেতাদের সাথে আলোচনা করে আন্দোলনের ছক নির্ধারণ করা হবে বলেও জানান হেফাজত মহাসচিব।
হাটহাজারী মাদ্রাসা থেকে হেফাজত মহাসচিব তার জন্মস্থান ফটিকছড়ির দৌলতপুরের বাবুনগর গ্রামের উদ্দেশ্যে যাত্রা করার কথা রয়েছে। তবে সেখানে তিনি কয়দিন থাকবেন তা জানা যায়নি।
উল্লেখ্য, গত ৫ মে হেফাজতের ঢাকা অবরোধ শেষে চট্টগ্রামে ফেরার পথে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাকে আটক করে। পরে তার বিরুদ্ধে করা বিভিন্ন মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাকে দুই দফায় রিমান্ড নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। রিমান্ডে থাকাকালীন সময়ে বাবুনগরী অসুস্থ হয়ে পড়েন।