সমুদ্রসীমা বিজয়ের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন মিছিল

প্রকাশ:| বুধবার, ৯ জুলাই , ২০১৪ সময় ০৮:১০ অপরাহ্ণ

ভারতের সঙ্গে সমুদ্রসীমা বিজয়ের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ।

অন্যদিকে সমুদ্রসীমা বিজয়ের আনন্দে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ ও নগর ছাত্রলীগ পৃথকভাবে নগরীতে আনন্দ মিছিল বের করেছে।

সমুদ্রসীমা বিজয়ের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন মিছিলবুধবার সাবেক মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী এবং সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন এক বিবৃতিতে সরকারের এই অর্জনের জন্য চট্টগ্রামবাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান।

বিবৃতিতে এ দুই নেতা বলেন, আন্তর্জাতিক আদালতে শান্তিপূর্ণ আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশ তার ন্যায্য হিস্যা আদায় করেছে। বঙ্গোপসাগরে বিরোধপূর্ণ ২৫ হাজার ৬০২ বর্গ কিলোমিটার এলাকার মধ্যে বাংলাদেশ ১৯ হাজার ৪৬৭ বর্গ কিলোমিটার সমুদ্র অঞ্চল অর্জন করেছে। এর মধ্য দিয়ে নিজস্ব সমুদ্রসীমার বাইরে ভারত মহাসাগরীয় মহীসোপানে প্রায় ১ লক্ষ ১৮ হাজার ৮১৩ বর্গ কিলোমিটারের বেশি টেরিটোরিয়াল সমুদ্র অঞ্চল ও ২০০ নটিক্যাল মাইল অর্থনৈতিক অঞ্চলে বাংলাদেশের একচ্ছত্র অধিকার ও সার্বভৌমত্ব অর্জিত হয়েছে।

বিবৃতিতে তারা আরও উল্লেখ করেন, এই রায়ের মাধ্যমে চট্টগ্রাম উপকূল থেকে মহীসোপানের তলদেশে ৩৫৪ নটিক্যাল মাইল পর্যন্ত বিস্তৃত প্রাণিজ ও খনিজ সম্পদের উপর বাংলাদেশের একক অধিকার অর্জিত হয়েছে। পাশাপাশি এ অর্জিত সমুদ্র অঞ্চলের লুকায়িত সম্পদ আহরণও উত্তোলনে বাংলাদেশের নায্য অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

সমুদ্র বিজয়ের মাধ্যমে মহাসাগরীয় বিশ্বে নতুন একটি বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বলে উল্লেখ করেছে নগর আওয়ামী লীগ।

উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ

বুধবার বিকেলে উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের প্রশাসক এম এ সালামের নেতৃত্বে এক আনন্দ মিছিল বের হয়। মিছিলটি নগরীর স্টেশন রোড, জুবলীরোড, রেয়াজউদ্দিন বাজার আমতলা হয়ে নিউমার্কেট চত্বরে এসে শেষ হয়।

এর আগে দোস্ত বিল্ডিং চত্বরে আয়োজিত এক সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক জসিম উদ্দিন, দপ্তর সম্পাদক মহিউদ্দিন বাবলু, প্রচার সম্পাদক জসিম উদ্দিন শাহ, শিক্ষা ও মানব সম্পদ সম্পাদক বেদারুল আলম চৌধুরী বেদার প্রমুখ।

সমাবেশে এম এ সালাম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ইতোপূর্বে আমরা মায়ানমারের সঙ্গে সমুদ্রসীমা মামলায় জয়লাভ করেছি। ভারতের সঙ্গেও মামলায় জিতে ১৯ হাজার ৪৬৭ বর্গকিলোমিটার এলাকার সমুদ্রসীমা অর্জন করেছি। এ অর্জন প্রধানমন্ত্রীর সাহসী নেতৃত্বের জন্যেই সম্ভব হয়েছে। এ বিজয় বাংলাদেশের জনগণের, দেশ ও জাতির।

ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল

এদিকে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার বিরোধপূর্ণ সমুদ্রসীমা বিজয়ের পর নগরীর দারুল ফজল মার্কেটে দলীয় কার্যালয়ের নিচ থেকে আনন্দ মিছিল বের করে নগর ছাত্রলীগ। মিছিলটি নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে শহীদ মিনারে এসে সমাবেশ করে।

সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু, সহ-সভাপতি ফারুক ইসলাম, নাজমুল হাসান রুমি, রাহুল বড়ুয়া, একরাম হক রাসেল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর, সহ-সম্পাদক অভিষেক নাগ প্রমুখ।