সব ভয়ভীতির উর্দ্ধে থেকে শারদীয়া দুর্গোৎসব পালন করুন

প্রকাশ:| রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর , ২০১৭ সময় ০৯:৩৮ অপরাহ্ণ

 

 

আসন্ন দুর্গাপূজা উপলক্ষে ফিরিঙ্গীবাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ¦ হাসান মুরাদ বিপ্লব এর উদ্যোগে সনাতনী ধর্মালম্বীদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, চট্টগ্রাম জেলার জেলা প্রশাসক মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরী। আলহাজ¦ হাসান মুরাদ বিপ্লব এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, মহানগর জাতীয় পার্টির সহ-সভাপতি তপন চক্রবর্তী, শিক্ষক শাহাদাত হোসেন, কুঞ্জ বিহারী দাশ, মহানগর যুবলীগ সদস্য খোরশেদ আলম রহমান, সাবেক ছাত্রনেতা সাইফুদ্দিন আহমেদ, যুবনেতা জাহাঙ্গীর আলম, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আবদুল আজিজ, তারাপদ ইমন, মহানগর ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক অসিউর রহমান, সদস্য সাফফাত বিন আমিন। ছাত্রনেতা ও কোতোয়ালী থানা পূজা পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অনিন্দ্য দেবের সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন, আলহাজ¦ আবদুল হালিম দোভাষ, সম্ভু নাথ হোড়, লক্ষীপদ দাশ, অনিল সর্দার, নটন পাল, নুর উদ্দিন চৌধুরী বাবুল, জাহাঙ্গীর সিদ্দিকী, জাফর আহমদ, প্রদীপ দাশ বাচ্চু, দোদুল দাশ, সবির আহমেদ, আবিদ হোসেন, রাজীব নন্দী বাবু, লিটন দেবনাথ, নিলু চক্রবর্তী, যুবনেতা জামাল উদ্দিন মাসুম, মিজানুর রহমান জসিম, জ-ই-লিটন, নুরুল আজিম, ছাত্রনেতা আবু তৈয়ব মিজান, সৌরভ দাশ, আকাশ চক্রবর্তী প্রমুখ।
প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক বলেন, সব ভয়ভীতির উর্দ্ধে থেকে শারদীয় দুর্গোৎসব পালন করুন। আমি এবং আমার প্রশাসন সব সময় আপনাদের আছি। যে কোন পরিস্থিতিতে শান্তিপূর্ণ ভাবে সনাতন ধর্মের সবচেয়ে বৃহৎ এ উৎসব পালন হউক এটাই প্রত্যাশা করি। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ ধর্মীয় সম্প্রীতির দেশ। এখানে জাতিগত কোন সহিংসতা নেই। ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার এই রীতিতে অসম্প্রদায়িক চিন্তা চেতনায় ভিত্তিতে সবাই বসবাস করছি। তাই নিরাপত্তার সঙ্গে পূজা সম্পন্ন করতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী যাতে সার্বক্ষণিক আপনাদের পাশে থাকে সেই ব্যবস্থা করা হবে।
সভাপতির বক্তব্যে হাসান মুরাদ বিপ্লব বলেন, অত্র এলাকার সকল সম্প্রদায়ের মানুষগুলো শান্তিতে বসবাস করে আসছে। এখানো কোন হানাহানি নেই, দখল বা চাঁদাবাজি নেই। যেকোন প্রয়োজনে আমাকে ডাকলে আমি সাড়া দিব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মাদারস্ অব হিউমিনিটি উপাধিতে ভূষিত হওয়ায় উনাকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি আরও বলেন, দেশে আজ যেভাবে রোহিঙ্গা সংকটে সৃষ্টি হয়েছে সেটাও তিনি মোকাবেলা করতে বিশে^র নেতাদের কাছে প্রশংসিত হয়েছে। লাখো লাখো রোহিঙ্গাদের খাবার ও স্বাস্থ্যসেবার উদ্যোগ নিয়েছেন। এজন্য তিনি আজ বিশ^ নেতৃতে পরিণতি হয়েছেন।
পরে তিনি ৭টি পূজা মন্ডপে ব্যক্তিগত অর্থায়নে নগদ অর্থ পূজা কমিটির কাছে প্রদান করেন।


আরোও সংবাদ