সবজি ও মাছ বাজারে আগুন!

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৪ আগস্ট , ২০১৫ সময় ০৮:৪৭ অপরাহ্ণ

বিভিন্ন সবজি
কায়সার হামিদ মানিক, উখিয়া প্রতিনিধি,
কক্সবাজারের উখিয়ায় উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে নিত্যপণ্য ও মাছ, মাংস, মরিচ, হলুদ ও পিঁয়াজ সহ সবজির দাম অস্বাভাবিক ভাবে বেড়ে যাওয়ার কারণে খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষের পরিবার চালাতে কষ্টের অন্ত নেই। ক্রেতাদের অভিযোগ, বৃষ্টি আর খারাপ আবহাওয়ার অজুহাত দেখিয়ে বিক্রেতারা অস্বভাবিক হারে দাম বাড়িয়ে নিচ্ছে। ব্যবসায়ীরা বলছে, টানা বৃষ্টির কারণে শাকসবজির চাষাবাদ নষ্ট হয়েছে। তাছাড়া চাহিদা অনুযায়ী সরবরাহ না থাকায় মরিচ, হলুদ, পিয়াজের দাম বেড়েছে।
উখিয়া বাজারের পাইকারী ব্যবসায়ী সিরাজ সওদাগর জানান, ভারতীয় পিয়াজ ৬৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে, যা ঈদের আগে ছিল মাত্র ৩০/৩৫ টাকা। দেশী পিয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩৫/৪০ টাকা দরে। তিনি আরো বলেন, একদিকে বৃষ্টি অন্যদিকে ভারত থেকে পিয়াজ আমদানি আশানরূপ হচ্ছে না। এছাড়া খুচরা বাজারে কাঁচা মরিচ বিক্রি হচ্ছে ১শ টাকা ও হলুদ বিক্রি হচ্ছে ২শ টাকা দরে। মাছ মাংশের বাজারে চাহিদামত মাছ পাওয়া না গেলেও নিু মানের বিভিন্ন প্রজাতির মাছ বিক্রি হচ্ছে চড়া দামে। মাছ বিক্রেতারা বলছে, পাহাড়ী ঢল ও বৃষ্টির পানিতে পুকুর, জলাশয় ও মৎস্য খামার জলমগ্ন হয়ে পড়ার কারণে মাছ সাগরে ভেসে গেছে। তাই উখিয়ার হাট বাজারে মাছ সংকটের সৃষ্টি হয়েছে।
গতকাল মঙ্গলবার সবজির বাজার ঘুরে দেখা যায়, করলা বিক্রি হচ্ছে কেজি ৭০ টাকা দরে। যা এক সপ্তাহ আগেও ২৫/৩০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। ঢেড়শ ৮০ টাকা, আলু ৪০ টাকা, বেগুন ৭০ টাকা, বরবটি ৬০ টাকা, লাউ ৩০ টাকা, কাঁচা কলা হালি প্রতি ৮০ টাকা, শশা ৮০ টাকা, টমেটো দেড়শ টাকা দরে বিক্রি করতে দেখা গেছে। খুচরা ব্যবসায়ী নুর আহমদ জানান, স্থানীয় উৎপাদিত শাকসবজি বাজারে না আসার কারণে চাহিদা পূরণ হচ্ছে না। বাজারের আরেক ব্যবসায়ী শফি আলম জানান, চট্টগ্রামের বিভিন্ন আড়তে সবজি সংকট দেখা দেওয়ায় সরবরাহ কমে গেছে। তাই সবজির দাম বেড়েছে।
এখানে গরুর মাংশ বিক্রি হচ্ছে ৪শ টাকা ও খাসির মাংশ বিক্রি হচ্ছে ৫শ টাকা দরে। বয়লার মুরগি ১৬০ টাকা দরে বিক্রি করতে দেখা গেছে। মাংশ বিক্রেতারা জানান, মিয়ানমার থেকে গবাদি পশুর আমদানি হ্রাস পাওয়ার কারণে মাংশের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।