‘সন্ত্রাস-জঙ্গীবাদ ও মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ত ব্যক্তিদের দলে ঠাঁই নেই’

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ২ আগস্ট , ২০১৮ সময় ০৮:২০ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ত ব্যক্তিদের দলে স্থান দেওয়া হবে না। মাদকের সাথে সন্ত্রাস ওতপ্রোতভাবে জড়িত। মাদকাসক্ত ব্যক্তি মাদকের টাকা জোগাড়ের জন্য সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি করবে এটাই বাস্তবতা। কোন মাদকাসক্ত ব্যক্তি সুস্থ জীবনে ফিরে আসতে চাইলে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে নিরাময়ের জন্য সর্বাত্মক সহযোগিতা দেয়া হবে। তিনি আরো বলেন, একটা মানুষকে সর্বনাশের পথে ঠেলে দেয় মাদক। মাদক শুধু একজন মানুষকে নয় একটা পরিবার, সমাজ ও দেশকে ধ্বংসের দিকেও ঠেলে দেয়। এইটা নিউক্লিয়াস বোমা থেকেও ভয়ংকর। আর জঙ্গিবাদ নতুনভাবে আবির্ভুত হয়েছে। এটা শুধু বাংলাদেশ নয় গোটা বিশ্বব্যাপী একটি সমস্যা। আমরা ধর্মে বিশ্বাস করি। ইসলাম ধর্মে জঙ্গীবাদ-সন্ত্রাসের স্থান নেই। মানুষ খুন করে কেউ বেহেশতে যেতে পারে না। মেয়র বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম। জোর করে কাউকে ধর্মান্তরিত করা হয়েছে এ ধরনের কোন নজির ইসলামের ইতিহাসে নেই। তবে জঙ্গীরা ইসলাম ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। কোমলমতি শিশুদের এ পথ থেকে ফিরিয়ে আনার উপর গুরুত্বারোপ করে সিটি মেয়র সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও মাদকের বিরুদ্ধে এলাকা ভিত্তিক জনমত সৃষ্টি ও প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানান । তিনি আজ বৃহস্পতিবার বিকালে ৩৬নং গোসাইলডাঙ্গা ওয়ার্ডে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদক বিরোধী সভায় এসব কথা বলেন।
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন আয়োজিত খান বাহাদুর সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম চৌধুীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় চসিক আইন শৃংখলা বিষয়ক স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান কাউন্সিলর এইচ এম সোহেল, স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট (যুগ্ম জেলা জজ) মিসেস জাহানারা ফেরদৌস, মাদক দ্রব্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক রুহুল আমিন, রাজনীতিক মো. দেলোয়ার, মো, ইসকান্দর মিয়া, হাজী ইলিয়াছ, নুর হোসেন, মো. ফরিদ, এস এম সালাউদ্দিন, আবু জহুর, আবু তালেব সোহেল ও মো. সিরাজ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে খান বাহাদুর সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্রী শাহনাজ মুন্নী সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান। সিটি মেয়র শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, তোমাদের প্রধান লক্ষ্যই থাকবে উপযুক্ত শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে নিজেদের গড়ে তোলা। তোমাদেরকেই আগামী দিনে দেশের নেতৃত্ব দিতে হবে। তরুণ সমাজ হচ্ছে তারুণ্যের অহংকার। তারা যদি এগিয়ে না আসে তাহলে দেশের কাংখিত উন্নয়ন সম্ভব নয়। যুব সম্প্রদায়ই পারে সমাজের ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে। এ প্রসঙ্গে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকের বিরুদ্ধে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স এর কথা উল্লেখ করে সিটি মেয়র বলেন, এই লক্ষ্যে বর্তমান সরকার যা যা করণীয় তা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। তরুণ প্রজন্ম আমাদের দেশের সম্পদ, তাদেরকে সঠিকভাবে গড়ে তুলতে পরিচর্যা ও উদ্বুদ্ধ করতে হবে। তাই মাদক, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসী কর্মকা- থেকে নিজ সন্তানকে দূরে রাখার দায়িত্ব অভিভাবকসহ সমাজপতিদের। এ লক্ষে বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশাজীবীদের সমন্বয়ে ওয়ার্ড ভিত্তিক সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদক প্রতিরোধ কমিটি গঠন করা হচ্ছে। সিটি মেয়র তার বক্তব্যে বলেন, এলাকায় কোন মাদক ব্যবসায়ীর তথ্য পেলে আপনারা সরাসরি আমাকে কিংবা সংশ্লিষ্ট আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে অবহিত করবেন।


আরোও সংবাদ